ইরানকে বিশ্বকাপ থেকে নিষিদ্ধের দাবি
ইরানকে বিশ্বকাপ থেকে নিষিদ্ধের দাবি

সংগৃহীত ছবি

ইরানকে বিশ্বকাপ থেকে নিষিদ্ধের দাবি

অনলাইন ডেস্ক

নারীদের প্রতি ইরানের রক্ষণশীল মনোভাবে নারী অধিকার সংস্থা ‘ওপেন স্টেডিয়ামস’ চিঠি দিয়েছে ফিফাকে। চিঠিতে সংগঠনটি ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে কাতার বিশ্বকাপ থেকে ইরানকে নিষিদ্ধের দাবি তুলেছে।

পুলিশি হেফাজতে মাহসা আমিনির মৃত্যুকে কেন্দ্র করেই এমন দাবি তুলেছে সংস্থাটি। আমিনির মৃত্যুর পর ইরানে টানা তৃতীয় সপ্তাহ আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে।

ফিফার প্রেসিডেন্ট জিয়ানি ইনফান্তিনোকে পাঠানো ‘ওপেন স্টেডিয়ামস’ এর চিঠিতে বলা হয়, ইরানের প্রশাসন এখনও খেলা দেখার ক্ষেত্রে মহিলাদের উপরে নিষেধাজ্ঞা বজায় রেখেছে। একই সঙ্গে ইরানের ফুটবল সংস্থাও নারী সমর্থকদের নিরাপত্তা রক্ষায় পদক্ষেপ করছে না বলে অভিযোগ করেছে সংস্থাটি।

‘ইরানের ফুটবল সংস্থা প্রশাসনের অপরাধগুলোর সহযোগী। ইরানের মহিলা ফুটবল সমর্থকদের জন্য এ দেশের ফুটবল সংস্থা বিপদ হয়ে উঠেছে।

তা সে বিশ্বের যেখানেই আমাদের জাতীয় ফুটবল দল খেলুক না কেন। অথচ আমাদের সবার জন্য ফুটবল একটা নিরাপদ জায়গা হওয়া উচিত,’ লেখা হয়েছে চিঠিতে।

নারীদের অধিকার রক্ষার্থে গঠিত সংস্থাটি তাই আবেদন করেছে, নভেম্বরে শুরু হতে চলা কাতার বিশ্বকাপ থেকে ইরানকে নিষিদ্ধ করা হোক। চিঠিতে তারা লিখেছে, ‘এ দেশের ফুটবল সমর্থক হিসেবে ভারাক্রান্ত হৃদয়ে বিশ্বকাপ ফুটবলে ইরানের অংশগ্রহণ নিয়ে আমরা উদ্বেগ জানাচ্ছি। কেন ফিফা ইরান ও সে দেশের প্রতিনিধিদের এ রকম একটা বিশ্বমঞ্চ দেবে? এই বিষয়ে ফিফার নীতির তা হলে কী হবে? ফিফার কাছে আবেদন জানাচ্ছি এখনই ইরানকে বিশ্বকাপ থেকে বহিষ্কার করা হোক। ’

প্রসঙ্গত, ইরানে হিজাব আইন লঙ্ঘন করায় মাহসা আমিনি নামে এক তরুণীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ ওঠে পুলিশের বিরুদ্ধে। হিজাব বিধিমালা অমান্য করায় গ্রেপ্তার করা হয় ওই তরুণীকে। পরে গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির হিজাব বিধিমালা না মেনে চলার অভিযোগে ওই তরুণীকে আটক করে পুলিশ।

জানা যায়, পুলিশ ভ্যানের ভেতরে আমিনিকে শারীরিক অত্যাচার করা হয়। আটকের কয়েকদিন পর গত ১৭ সেপ্টেম্বর ইরানের একটি হাসপাতালে মৃত্যু হয় ২২ বছর বয়সী এ তরুণীর।

news24bd.tv/সাব্বির