ত্রিদেশীয় সিরিজ ‘বাংলাওয়াশ’-এর ট্রফি উন্মোচন
ত্রিদেশীয় সিরিজ ‘বাংলাওয়াশ’-এর ট্রফি উন্মোচন

সংগৃহীত ছবি

ত্রিদেশীয় সিরিজ ‘বাংলাওয়াশ’-এর ট্রফি উন্মোচন

অনলাইন ডেস্ক

অস্ট্রেলিয়া টি-২০ বিশ্বকাপ সামনে রেখে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে স্বাগতিকদের ছাড়াও ত্রিদেশীয় সিরিজে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। তিনি জাতির সিরিজের পর্দা উঠবে আগামী ৭ অক্টোবর বাংলাদেশ-পাকিস্তানের ম্যাচ দিয়ে। সিরিজের টাইটেল স্পন্সর হিসেবে থাকছে বাংলাওয়াশ। এরইমধ্যে উন্মোচিত হয়েছে সিরিজের ট্রফিও।

নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান এখনো দলের সাথে যোগ না দেওয়ায় অধিনায়কদের নিয়ে করা ফটোসেশনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন সহ অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান। এছাড়াও ট্রফি উন্মোচন ফটোসেশনে ছিলেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম ও নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচ আগামী ৭ অক্টোবর। যেখানে বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে পাকিস্তান।

সাকিবের দলের দ্বিতীয় ম্যাচ ৯ অক্টোবর স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে।

এরপর আবারও ১২ ও ১৩ তারিখ নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ফাইনালে ওঠলে বাড়বে ম্যাচের সংখ্যা। ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৪ অক্টোবর। সিরিজের সবগুলো ম্যাচই হবে ক্রাইস্টচার্চে।

ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষে সেপ্টেম্বরের ১৪ বা ১৫ তারিখ অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে যাবে টাইগাররা। সেখানে আরও দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে টাইগাররা। আগামী ১৭ অক্টোবর বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান। ১৯ অক্টোবর দ্বিতীয় ও শেষ প্রস্তুতি ম্যাচের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা, যারা বিশ্বকাপে আছে বাংলাদেশেরই গ্রুপেই।

আনুষ্ঠানিক প্রস্তুতি ম্যাচ শেষে হোবার্টে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। ২৪ অক্টোবর নিজেদের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ বাছাইপর্ব থেকে উঠে আসা দল। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ আগামী ২৭ অক্টোবর। সুপার টুয়েলভে টাইগারদের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা।

ত্রিদেশীয় সিরিজ ও বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, লিটন দাস, ইয়াসির আলী, নুরুল হাসান (সহ-অধিনায়ক), মোস্তাফিজুর রহমান, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, তাসকিন আহমেদ, ইবাদত হোসেন, হাসান মাহমুদ, নাসুম আহমেদ ও নাজমুল হোসেন।

স্ট্যান্ডবাই: শরীফুল ইসলাম, রিশাদ হোসেন, মেহেদী হাসান ও সৌম্য সরকার।

news24bd.tv/আমিরুল