টঙ্গীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ, আহত ৩
টঙ্গীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ, আহত ৩

প্রতীকী ছবি

টঙ্গীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ, আহত ৩

গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুরের টঙ্গীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আশিক নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আরো ৩ জন আহত হয়েছে। গতকাল শনিবার রাত ৯টার দিকে টঙ্গীর গাজীপুরা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আশিক একই এলাকার সোলাইমান হোসেন সেলু মিয়ার ছেলে।

সে স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন।

স্থানীয় ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, বেশ কিছু দিন আগে আশরাফুল নামে এক যুবকের সঙ্গে মতবিরোধ হয় আশিকের। বিষয়টি স্থানীয়রা মীমাংসা করে দেন। শনিবার রাতে ফিফা বিশ্বকাপ খেলা দেখার প্রস্তুতি নিচ্ছিল আশিক ও তার বন্ধুরা।

হঠাৎ আশরাফুলের মোবাইল নম্বর থেকে একটি কল আসে আশিকের ফোনে। আশিককে জানানো হয়, এক ব্যক্তিকে ছিনতাইকারী সন্দেহে আটক করেছে। তাকে চেনে কি না শনাক্ত করার জন্য নীলাচল হাউজিং সোসাইটির প্রকল্প এলাকায় যেতে বলেন তারা। ওই ব্যক্তিকে শনাক্ত করার জন্য  নীলাচল হাউসিং প্রপার্টিজের ভেতরে প্রবেশ করেন। এর কিছুক্ষণ পরেই সেখান থেকে মারধর ও ডাক চিৎকারে আশিকের পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়রা সেখানে উপস্থিত হন। এ সময় দুর্বৃত্তদের হামলার শিকার হন টুটুল, বিল্লাল ও সাব্বির নামে তিন যুবক। পরে স্থানীয়রা থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ আশিককে রক্তাক্ত অবস্থায় সেখান থেকে উদ্ধার করে টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেলের হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে হাসপাতালে নিহত আশিকের বন্ধু-বান্ধব ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা আশিকের হত্যাকারি সন্দেহে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা কয়েকজন যুবকের উপর হামলা চালায়। এসময় তারা গুরুতর আহত হন। এছাড়াও হাসপাতালে জরুরি বিভাগের জানালার গ্লাস ও মূল্যবান আসবাপত্র ভাংচুর করা হয়। পরে পুলিশ তাদের লাঠিপেটা করে ছত্রভঙ্গ করে দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল ইসলাম বলেন, লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।

news24bd.tv/রিমু