ভোটারবিহীন হ্যাঁ-না ভোটে গণতন্ত্র হরণ দিবস আজ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ফেসবুক পেজ থেকে

ভোটারবিহীন হ্যাঁ-না ভোটে গণতন্ত্র হরণ দিবস আজ

অনলাইন প্রতিবেদক

আজ ৩০ মে গণতন্ত্র হরণ দিবস। কারণ ১৯৭৭ সালের এই দিনে এক নাটকীয় ভোটের মাধ্যমে বাংলাদেশের রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে স্বৈরশাসক জেনারেল জিয়া।

বৃহস্পতিবার এক ফেসবুক পোস্টে মেজর জিয়ার সেই স্বৈরতন্ত্রের ফিরিস্তি তুলে ধরেছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। এতে বলা হয়, এই দিনে স্বৈরশাসক জিয়া হ্যাঁ-না ভোট আয়োজন করে ১১০-১২০% এর অধিক ভোট পেয়ে ক্ষমতা দখল করেন।

জানা যায়, জেনারেল জিয়া নিজেই এক সামরিক ফরমান জারি করে নিজেকে প্রধান সামরিক আইন প্রশাসক ঘোষণা করেন। আবার নিজেই আরেক ফরমান জারি করে ঘোষণা দেন তিনি দেশের ‘প্রেসিডেন্ট’।

তবে প্রশ্ন ওঠে কে তাকে প্রস্তাব দিল? কে তাকে ভোট দিল? কোনো কিছুরই প্রয়োজন পড়ল না! শুধু সামরিক ফরমান জারি করে বলেছিলেন, ‘এখন থেকে তিনিই দেশের প্রেসিডেন্ট’।

১৯৭৭ সালের ২১ এপ্রিল বিচারপতি আবুসাদাত মোহাম্মদ সায়েমকে রাষ্ট্রপতির পদ থেকে পদত্যাগে বাধ্য করে জিয়াউর রহমান রাষ্ট্রপতি হন।

৩০ মে জিয়াউর রহমান একা ‘প্রেসিডেন্ট প্রার্থী’ হয়ে ‘হ্যাঁ কিংবা না’ ভোট দেন। এরপরেই নিজেকে প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন।

আবুসাদাত মোহাম্মদ সায়েম ছিলেন দেশের ষষ্ঠ রাষ্ট্রপতি। ১৯৭৭ সালের ২১ এপ্রিল প্রেসিডেন্ট পদ থেকে পদত্যাগ করেন তিনি। সেসময়ে তিনি বলেছিলেন, স্বাস্থ্যর অবনতির কারণে পদ ছেড়ে দিয়েছেন। কিন্তু ইতিহাসবিদদের দাবি, মূলত মেজর জিয়া তাকে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে পদত্যাগে বাধ্য করেছিলেন।

news24bd.tv/FA

এই বিভাগের পাঠকপ্রিয়