এফ-৩৫ ও এস-৪০০ একসঙ্গে রাখা যাবে না, তুরস্ককে যুক্তরাষ্ট্র

অনলাইন ডেস্ক

এফ-৩৫ ও এস-৪০০ একসঙ্গে রাখা যাবে না, তুরস্ককে যুক্তরাষ্ট্র

সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন তুরস্কের কাছে এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান বিক্রি স্থগিত রাখার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তা প্রত্যাহার করবে না বর্তমান জো বাইডেন প্রশাসন। এক এক মার্কিন সামরিক কর্মকর্তা এমন কথা বলেছেন।

তিনি বলেছেন, আমেরিকার কাছ থেকে এফ-৩৫ পেতে হলে তুরস্ককে রাশিয়ায় তৈরি অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়- পেন্টাগনের প্রেস সেক্রেটারি জন কিরবি রোববার এক বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, এফ-৩৫ এবং এস-৪০০ একসঙ্গে রাখা যাবে না। এস-৪০০-এর ব্যাপারে ওয়াশিংটনের নীতিতে কোনো পরিবর্তন আসেনি।

কিরবি আরো বলেন, তুরস্ক গত এক দশকে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার পরিবর্তে মার্কিন ব্যবস্থা প্যাট্রিয়ট কেনার সিদ্ধান্ত নিতে পারত। কিন্তু তা না করে আমেরিকার এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান কেনার যোগ্যতা হারিয়েছে আঙ্কারা।

তুরস্ক হচ্ছে ন্যাটো জোটভুক্ত প্রথম দেশ যে কিনা রাশিয়ার কাছ থেকে অত্যাধুনিক আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ সংগ্রহ করেছে।  ২০১৭ সালে এ ধরনের চারটি ব্যবস্থা সংগ্রহের জন্য রাশিয়ার সঙ্গে ৫২০ কোটি ডলারের চুক্তি করে তুরস্ক। ২০১৯ সলের জুলাই মাসে এ ব্যবস্থা আঙ্কারাকে সরবরাহ শুরু করে মস্কো যে প্রক্রিয়া এখনো চলছে।

মার্কিন সরকার ২০১৭ সাল থেকেই রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ কেনার ব্যাপারে তুরস্ককে সতর্ক করে দিয়ে আসছে। মার্কিন সরকার দাবি করছে, এই চুক্তির মাধ্যমে তুরস্ক রাশিয়ার হাতে বিশাল অঙ্কের বাজেট তুলে দেয়ার পাশাপাশি ন্যাটা জোটের সামরিক প্রযুক্তিকে বিপদের মুখে ঠেলে দিচ্ছে। তবে তুরস্ক ও রাশিয়া আমেরিকার এ দাবি প্রত্যাখ্যান করেছে। কিন্তু আঙ্কারা বলেছে, দেশটি কোনো অবস্থায় রাশিয়ার সঙ্গে করা এ সংক্রান্ত চুক্তি বাতিল করবে না।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কলকাতায় বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত ৯

অনলাইন ডেস্ক

কলকাতায় বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত ৯

স্ট্র্যান্ড রোডে রেলের বহুতল ভবনে আগুন

কলকাতার স্ট্র্যান্ড রোডে রেলের নিউ কয়লাঘাট বহুতল ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে রাত সোয়া ১১টা দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

১৪ তলা ভবনটির ১৩ তলায় প্রথমে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। আগুন ছড়িয়ে পড়ে ভবনের ১২ তলায়। সেখানে রেলের সার্ভার রুমটি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। প্রায় ৫ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। স্থানীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার এমনটিই জানিয়েছে।

নিহতদের মধ্যে ৪ জন ফায়ার সার্ভিস কর্মী, ১ জন আরপিএফ কর্মী এবং একজন এএসআই রয়েছেন। আরও ৩ জনের পরিচয় জানা যায়নি।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত ফায়ার সার্ভিস মন্ত্রী সুজিত বসু জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী মৃতদের প্রত্যেক পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার কথা ঘোষণা দিয়েছেন।

আরও পড়ুন


নামাজে মুস্তাহাব কাজগুলো কী জেনে নিন

কেয়ামতের দিন যে সূরা বান্দার হয়ে আল্লাহর কাছে সুপারিশ করবে

চিত্রনায়ক শাহিন আলম মারা গেছেন

চট্টগ্রাম কারাগারে নিখোঁজ বন্দি খুজঁতে কারা অভ্যন্তরে তল্লাশি


এরপর রাত সোয়া ১১টা নাগাদ ঘটনাস্থলে পৌঁছান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, ক্ষতিপূরণ ছাড়া মৃতদের প্রত্যেক পরিবার থেকে অন্তত এক জনকে সরকারি চাকরিও দেওয়া হবে।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র বলছে, প্রথমে আগুন কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসার পর ১৩ তলায় পৌঁছনোর চেষ্টা করেন কয়েক জন ফায়ার সার্ভিস কর্মী। ১২ তলায় পৌঁছে তাঁরা লিফ্‌ট থেকে বেড়িয়ে আসার চেষ্টা করেন। তা না পেরে ফিরে আসার চেষ্টা করেন। কিন্তু নীচেও নামতে পারেননি। ফলে লিফটের মধ্যেই তাঁদের মৃত্যু হয়। পরে মুখ্যমন্ত্রী জানান, লিফ্‌ট বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যায়। তার জেরেই ঝলসে মৃত্যু হয় তাঁদের।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

গিনিতে সামরিক ঘাঁটিতে ধারাবাহিক বিস্ফোরণ, নিহত ২০

অনলাইন ডেস্ক

গিনিতে সামরিক ঘাঁটিতে ধারাবাহিক বিস্ফোরণ, নিহত ২০

মধ্য আফ্রিকার দেশ ইকুয়ে-টোরিয়াল গিনির বন্দরনগরী বাটার একটি সামরিক ঘাঁটিতে ধারাবাহিক বিস্ফোরণ ঘটেছে। এ ঘটনায় ২০ জন নিহত এবং অন্তত ৪২০ জন আহত হয়েছেন।

স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যায় শহরের ওই সামরিক ঘাঁটি এলাকায় পর পর চারবার বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের সময় গোটা এলাকায় ধোঁয়া আচ্ছন্ন হয়ে পড়ে। হতাহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।


কাদের মির্জা যেভাবে মারলো, মনে হলো আমি পকেট মাইর

চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেওয়া হলো প্রতিবন্ধী নারীকে

অর্থনীতির নতুন পথ সন্ধানের এখনই সময়

৫ বছরে লাশ হয়ে দেশে ফিরেছেন ৪৮৭ নারী শ্রমিক


তবে বিস্ফোরণের কারণ এবং কারা দায়ী তা জানা যায়নি। দুর্ঘটনার পর দেশটির প্রেসিডেন্ট হতাহত পরিবারের  প্রতি সমবেদনা জানান। দেশটিতে দায়িত্বরত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত  এ ঘটনাকে বড় বিপর্যয় আখ্যায়িত করে সমবেদনা জানিয়েছেন।

এছাড়া স্পেনের রাষ্ট্রদূত তাদের দেশের নাগরিকদের ঘরে অবস্থান করার নির্দেশনা দিয়েছেন। 

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সস্ত্রীক করোনা আক্রান্ত সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদ

অনলাইন ডেস্ক

সস্ত্রীক করোনা আক্রান্ত সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদ

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ ও তার স্ত্রী আসমা আল-আসাদ। সিরীয় প্রেসিডেন্টের কার্যালয় সোমবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানা জানিয়েছে, সিরীয় প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্টলেডি দুজনের শরীরেই মৃদু উপসর্গ ছিল। পরে তাদের পিসিআর টেস্টের ফলাফল পজিটিভ এসেছে।

প্রেসিডেন্টের কার্যালয় জানিয়েছে, ৫৫ বছর বয়সী আসাদের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। তিনি ও তার স্ত্রী আগামী দুই-তিন সপ্তাহ বাড়িতে আইসোলেশনে থাকবেন।

তবে তারা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কোনও ধরনের প্রমাণ গণমাধ্যমের কাছে উপস্থাপন করা হয়নি।


আরও পড়ুনঃ


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


বার্তা সংস্থা সানায় প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস থেকে সিরিয়াসহ সারা বিশ্বের মানুষের সুরক্ষা ও সুস্থতা কামনা করেছেন প্রেসিডেন্ট আসাদ। এছাড়া সবাইকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সংক্রান্ত সকল নীতি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মুসলিম উইঘুরদের ওপর গণহত্যার অভিযোগ মিথ্যা দাবি চীনের

অনলাইন ডেস্ক

জিনজিয়াং প্রদেশে সংখ্যালঘু মুসলিম উইঘুরদের ওপর গণহত্যার অভিযোগকে অযৌক্তিক ও মিথ্যা বলে দাবি করেছে চীন। রোববার দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই এ দাবি করেন।

বলেন, এটি নির্দিষ্ট উদ্দেশ্য সাধনের জন্য ছড়ানো গুজব ছাড়া, আর কিছূই নয় । যা হাস্যকরও বটে। সম্প্রতি কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র ও নেদারল্যান্ডস জিনজিয়াংয়ের উইঘুর নিপীড়নকে গণহত্যা বলে আখ্যায়িত করেছে।  চীনে প্রায় দেড় কোটি উইঘুর মুসলমানের বাস। 


চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেওয়া হলো প্রতিবন্ধী নারীকে

অর্থনীতির নতুন পথ সন্ধানের এখনই সময়

৫ বছরে লাশ হয়ে দেশে ফিরেছেন ৪৮৭ নারী শ্রমিক

সন্তানদের নিয়ে রাজনীতি করবেন না : শ্রীলেখা


অভিযোগ রয়েছে, সেখানে বসবাসরত প্রায় ১০ লাখ উইঘুরের ওপর ব্যাপক নিপীড়ন চালাচ্ছে বেইজিং। যদিও  বরাবরই এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে শি জিন পিং সরকার।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সৌদি আরবে হামলার পর থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়ছে তেলের দাম

অনলাইন ডেস্ক

সৌদি আরবে হামলার পর থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়ছে তেলের দাম

আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়তে শুরু করেছে জ্বালানি তেলের দাম। সৌদি আরবের তেল স্থাপনাগুলো লক্ষ্য করে হামলার পরপরই এই খবর পাওয়া যায়।

করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর থেকে প্রথমবারের মতো ব্রেন্ট ক্রুডের দাম উঠেছে ব্যারেলপ্রতি ৭০ ডলারের ওপর। আর যুক্তরাষ্ট্রের তেলের দাম উঠেছে গত দুই বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে।

এশীয় বাণিজ্যে সোমবার দিনের প্রথমভাগে তেলের আন্তর্জাতিক মানদণ্ড ব্রেন্ট ক্রুডের দাম প্রায় পাঁচ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭১ দশমিক ৩৮ ডলারে। যা গত ১৪ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ।

এদিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডব্লিউটিআই) তেলের দাম ২ দশমিক ৪ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৬৭ দশমিক ৬৯ ডলার প্রতি ব্যারেল।


আরও পড়ুনঃ


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


এর আগেই ডব্লিউটিআইয়ের দাম ব্যারেলপ্রতি ৬৭ দশমিক ৯৮ ডলার দেখা গিয়েছিল, যা ২০১৮ সালের অক্টোবরের পর থেকে সর্বোচ্চ।

এর আগে, ২০১৯ সালে সৌদির প্রধান তেল স্থাপনাগুলোতে হামলার পরদিনই বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম প্রায় ১৪ শতাংশ বেড়ে গিয়েছিল।

সূত্রঃ এপি, ইয়াহু

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর