বিচারের কাঠগড়ায় অং সান সুচি
বিচারের কাঠগড়ায় অং সান সুচি

বিচারের কাঠগড়ায় অং সান সুচি

অনলাইন ডেস্ক

মিয়ানমারে সহিংসতায় উসকানি দেয়ার অভিযোগে গৃহবন্দী নেত্রী অং সান সুচিকে বিচারের মুখোমুখি করেছে সামরিক জান্তা। সুচির বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণিত হলে কয়েক দশকের জেল হতে পারে, খবর পার্সটুডের।    

গতকাল মঙ্গলবার ট্রায়াল সেশনের পর সুচির আইনজীবী খিন মং জাও বলেন, অভিযোগের বিষয়ে তার মক্কেল নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন এবং তিনি সুস্থ আছেন বলেই মনে হয়েছে। এর এক সপ্তাহ আগে অসুস্থতার কথা বলে অং সান সুচি অন্য একটি আদালতের শুনানিতে উপস্থিত হওয়া থেকে বিরত থাকেন।

 

রও পড়ুন:

যশ-নুসরাতকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন নিখিল!

ব্রিটিশ রাজকুমারী বিট্রিস ও মোজ্জির ঘরে এল কন্যা সন্তান

রাজ্য সভাপতির পদ হারালেন দিলীপ ঘোষ

শেষ মুহুর্তের গোলে মান বাঁচালো বার্সেলোনা


আইনজীবী খিন মং আরো বলেন, সরকারি কৌঁসুলিদের সাক্ষ্য নিয়েছে আদালত। গত বছরের নির্বাচনের সময় সুচি করোনাভাইরাসের নিয়ন্ত্রণ লঙ্ঘন করেন। ওই নির্বাচনে তার দল লীগ ফর ডেমোক্রেসি বিপুল বিজয় লাভ করে তবে সামরিক বাহিনী বলেছিল, নির্বাচনে বড় রকমের অনিয়ম হয়েছে।

চলতি বছরের প্রথম দিকে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী ক্যু’র মাধ্যমে সুচি ও তার দলকে ক্ষমতাচ্যুত করে। তবে সুচিকে আটকের পরপরই দেশের জনগণ ব্যাপকভাবে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে।

বর্তমানে তিনি গৃহবন্দী অবস্থায় রয়েছেন এবং অবৈধভাবে ওয়াকি-টকি রেডিও আমদানি করাসহ নানা ধরনের অভিযোগ তোলা হয়েছে তার বিরুদ্ধে। এর মধ্যে আগস্ট মাসে জান্তা প্রধান মিং অং হ্লেইং নিজেকে মিয়ানমারের প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেন।

news24bd.tv রিমু