ট্রাম্পকে অপ্রাপ্ত বয়স্ক রুশ মেয়ে পাঠানো হতো, ‘ভিডিও ধারণ’!

অনলাইন ডেস্ক

ট্রাম্পকে অপ্রাপ্ত বয়স্ক রুশ মেয়ে পাঠানো হতো, ‘ভিডিও ধারণ’!

৪০ বছরের বেশি সময় আগে নিজেদের সম্পদ হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে তৈরি করে রাশিয়া। ওই সম্পর্কের ভিত্তিতে লাভবান হতো ট্রাম্প এবং রাশিয়া। নতুন একটি বইয়ে বিস্ফোরক এ দাবি করা হয়েছে।

বইটির লেখক ক্রেগ উঙ্গার দাবি করেন, অসংখ্যবার ট্রাম্পকে দেউলিয়া হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করেছে রাশিয়া। ট্রাম্পের জন্য পাঠানো হয়েছে হাজার হাজার কোটি রুশ মুদ্রা। ৮০ এবং ৯০ দশকের মধ্যে এসব সহায়তা ট্রাম্প নিজের আবাসন ব্যবসার মাধ্যমে গ্রহণ করেন। ওই সব অর্থের বিরাট একটা অংশ ট্রাম্পের নামে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগও করেছে মস্কো।

উঙ্গার দাবি করেন, ট্রাম্প রুশ নারীদের সঙ্গে রাত কাটিয়েছেন। এতে তাকে সহায়তা করেছে মার্কিন ধনকুবের ট্রাম্পের বন্ধু জেফ্রি এপস্টেইন। তিনি ট্রাম্পকে অপ্রাপ্ত বয়স্ক রুশ মেয়ে সরবরাহ করতেন।

আরও পড়ুন: নিজের মেয়ে ইভাঙ্কার সঙ্গে ট্রাম্পের যৌন সম্পর্ক?

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আবারো যৌন হয়রানির অভিযোগ

ট্রাম্পের গোপন বিষয়ে ‘বোমা’ ফাটালেন স্টর্মি

পর্নো তারকার পর মুখ খুললেন ট্রাম্পের প্লেবয় সুন্দরী

ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রায়ই এপস্টেনের সরবরাহ করা নারীদের সঙ্গে সময় কাটাতেন। একদিন এমনই একটি মুহূর্তে মেলানিয়ার সঙ্গে তিনি ট্রাম্পের পরিচয় করিয়ে দেন।

এপস্টেইন নারী সরবরাহের পাশাপাশি ভোক্তাদের যৌন কর্মের ভিডিও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল করতেন। অপ্রাপ্ত বয়স্ক এক মেয়ের সঙ্গে ট্রাম্পের যৌনকর্মের একটি পর্ন ভিডিও তিনি ধারণ করেন।

বইতে উল্লেখ করা হয়, ১৯৮৭ সালে সোভিয়েত ইউনিয়নের নিরাপত্তা সংস্থা কেজিবির শীর্ষ পর্যায় থেকে মস্কোতে ট্রাম্প হোটেল নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য একটি আমন্ত্রণ পাঠানো হয়। এর মাধ্যমেই ট্রাম্পের সঙ্গে রাশিয়ার গভীর সম্পর্ক তৈরি হয়। শুরু হয় যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র ধ্বংসে রাশিয়ার বৃহত্তর পরিকল্পনা। প্রেসিডেন্ট হয়ে ক্ষমতায় আসার পর সহযোগিতার শোধ দেয়ার মোক্ষম সময় আসে ট্রাম্পের হাতে। পুতিন যা চেয়েছেন তার সবকিছুই দিয়েছেন ট্রাম্প। 

লেখক ক্রেগ উঙ্গার তার নতুন বই আমেরিকান কমপ্রোম্যাটে আরও তুলে ধরেছেন কীভাবে কেজিবি ডোনাল্ড ট্রাম্পকে তৈরি করেছে। কিভাবে তাদের পতিতালয়ের ব্যবসা, প্রভাব বিস্তারের লালসা, ক্ষমতার বলয় তৈরি এবং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ট্রাম্প কিভাবে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন তার কাহিনী। 

উঙ্গার একজন সাংবাদিক। তিনি এ পর্যন্ত ৬টি বই লিখেছেন। যার মধ্যে নিউইয়র্ক টাইমস বেস্ট সেলার হাউস অব বুশ, হাউস অব সৌদ, হাউস অব ট্রাম্প এবং হাউস অব পুতিনও রয়েছে। ট্রাম্প যদি রাশিয়ার সম্পদ হয়ে থাকে তাহলে তিনি কিভাবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হলেন? এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে লেখক উচ্চ পর্যায়ের শীর্ষ কর্মকর্তাদের দীর্ঘ সাক্ষাৎকার নিয়েছেন। যাদের মধ্যে ছিল পক্ষত্যাগ করা কেজিবির কর্মকর্তা-কর্মচারী, সাবেক সিআইএ কর্মকর্তা, এফবিআই কাউন্টার ইনটেলিজেন্ট এজেন্ট, আইনজীবীসহ আরও অনেকের সঙ্গে।

বইটিতে উঙ্গার বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তি এবং তার গোপন নোংরামির গল্প তুলে ধরেছেন। যা ট্রাম্পকে নিয়ে কংগ্রেসের অসংখ্য তদন্তকে ভুল হিসেবে প্রমাণ করে।

১৯৭৬ সালে ট্রাম্পের সঙ্গে রাশিয়ার মিত্রতা শুরু হয়। তখন তিনি কুইন্স থেকে ম্যানহাটন পর্যন্ত নিজের আবাসন ব্যবস্থা সম্প্রসারণ করছিলেন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পাকিস্তানে আস্থা ভোট আজ, হারলে পদত্যাগের ইঙ্গিত ইমরানের

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানে আস্থা ভোট আজ, হারলে পদত্যাগের ইঙ্গিত ইমরানের

পাকিস্তান পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেট নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ একটি আসনে পরাজিত হওয়ার পর  নিজেদের শক্তি প্রমাণে পার্লামেন্টে আজ আস্থা ভোট করতে চলেছেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) নেতা ও প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। 

বুধবার পাকিস্তানের সিনেটের ৯৬ সদস্যের উচ্চকক্ষের মধ্যে ৪৮টি আসনে নির্বাচন হয়। দেশটির আইনপ্রণেতারা দেশটির আঞ্চলিক ও জাতীয় পরিষদে দিনব্যাপী ভোট দেন। নির্বাচনে ক্ষমতায় থাকা পিটিআই ১৮ টি, পিপিপি চারটি, পিএমএল-এন পাঁচটি নতুন আসন পেয়েছে।

এ নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী জাতীয় পরিষদে তেহরিক-ই-ইনসাফের প্রার্থী আবদুল হাফিজ শেখ পরাজিত হয়েছেন। তিনি পাকিস্তানের বর্তমান অর্থমন্ত্রী। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে বিরোধী দল পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) নেতা ও পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি আবদুল হাফিজ শেখকে পরাজিত করেছেন। ইউসুফ রাজা গিলানি পেয়েছেন ১৬৯ ভোট আর হাফিজ শেখ পেয়েছেন ১৬৪ ভোট।

নির্বাচনের এ ফলাফলে বড় ধাক্কা খেয়েছে ইমরান খানের পিটিআই ও জোটের শরিকেরা। বর্তমানে জাতীয় পরিষদ তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। গোপন ব্যালটে ভোট হওয়ায় পিটিআইয়ের মিত্ররা অনেকেই জোটের পক্ষে ভোট দেননি।

পরাজয়ে পরপরই ইমরান খানকে সন্মানের সঙ্গে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন উল্লাসিত বিরোধীরা। পরে জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া ভাষণে রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ইমরান খান। 

তিনি যে অর্থ রোজগারের জন্য রাজনীতিতে আসেননি, সেকথা মনে করিয়ে দিয়ে বলেন, শনিবারের আস্থা ভোটে হেরে গেলে মসনদ ছেড়ে দেবেন। তার অভিযোগ, টাকার সাহায্যে ভোট কেনাবেচা হচ্ছে সংসদে। আর তাদেরই রক্ষা করছে নির্বাচন কমিশন। ক্ষুব্ধ ইমরানকে বলতে শোনা যায়, আমাদের গণতন্ত্র নিয়ে এটা কী ধরনের রসিকতা হচ্ছে? এ কেমন গণতন্ত্র?


আবাসিক হোটেলে অনৈতিক কর্মকাণ্ড, ধরা ২০ নারী

চুমু দিয়ে নারীদের সব রোগ সারিয়ে দেন ‘চুমুবাবা’

বুবলিকে ধাক্কা দেওয়া গাড়িটি ছিল ব্ল্যাক পেপারে মোড়ানো, ছিল না নম্বর প্লেট

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ


বছর তিনেক আগে ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথম কঠিন পরীক্ষার মুখে পড়তে হয়েছে ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন সরকারকে। সংসদের উচ্চকক্ষে হেরেছেন পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী। এরপরই নিম্নকক্ষে আস্থা ভোটের মাধ্যমে নিজের শক্তি পরীক্ষা করতে চাইছেন ইমরান। হেরে গেলে গদি ছাড়তেও আপত্তি নেই তার-এমনটাই সাফ জানিয়েছেন তিনি।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পরমাণু সমঝোতা প্রসঙ্গে

তেহরানের জন্য কূটনৈতিক পথ এখনো খোলা: যুক্তরাষ্ট্র

অনলাইন ডেস্ক

ইরানের পরমাণু সমঝোতা নিয়ে সৃষ্ট অচলাবস্থার অবসান ঘটাতে কূটনীতির পথ খোলা রয়েছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। 

এদিকে ফ্রান্স, ব্রিটেন ও জার্মানি আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার কাছে ইরানের বিরুদ্ধে প্রস্তাব উত্থাপনের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে। অন্যদিকে ইরাকে মার্কিন ঘাটির ওপর রকেট হামলাকারীদের চিহ্নিত করতে যুক্তরাষ্ট্র তদন্ত করছে বলে জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। 

ইরানকে আগে তার পরমাণু সমঝোতার প্রতিশ্রুতিতে পুরোপুরি ফিরে আসার দাবি পুনর্ব্যক্ত করে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এন্টনি ব্লিংকেন বলেছেন, এ বিষয়ে অচলাবস্থা কাটাতে তেহরানের জন্য কূটনৈতিক পথ এখনো খোলা। এছাড়া পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস সাংবাদিকদের জানান, ইরানের তিনটি অঘোষিত সাইটে ইউরেনিয়াম কণার আবিষ্কার তদন্তে আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের অনুমতি দিয়েছে। আর তেহরানের এই সিদ্ধান্তে যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ণ সমর্থন থাকবে বলে জানান প্রাইস।


আবাসিক হোটেলে অনৈতিক কর্মকাণ্ড, ধরা ২০ নারী

চুমু দিয়ে নারীদের সব রোগ সারিয়ে দেন ‘চুমুবাবা’

বুবলিকে ধাক্কা দেওয়া গাড়িটি ছিল ব্ল্যাক পেপারে মোড়ানো, ছিল না নম্বর প্লেট

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ


তিন ইউরোপীয় দেশ ফ্রান্স, ব্রিটেন ও জার্মানি আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা বা আইএইএ-র কাছে ইরানের বিরুদ্ধে প্রস্তাব উত্থাপনের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে। বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, আইএইএ-র মহাপরিচালক রাফায়েল গ্রোসি ইরানের সঙ্গে কারিগরি বৈঠকে বসার জন্য আবার ইরান সফরে যাচ্ছেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

অন্যদিকে বুধবার ইরাকের উত্তরাঞ্চলে মার্কিন যৌথ বাহিনীর বিমান ঘাটিতে রকেট হামলার ঘটনায় বৃহস্পতিবার পেন্টাগন হুশিয়ারি দিয়ে জানিয়েছে, হামলাকারীদের শনাক্ত করতে যুক্তরাষ্ট্র তদন্ত করছে। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, হামলাকারী শনাক্তের পর তার প্রশাসন এ বিষয়ে করণীয় নিয়ে তাদের রায় জানাবে। 

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বিশ্বব্যাপী করোনার টিকাদান অব্যাহত, তবুও লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বজুড়ে ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা বাড়লেও, প্রাণহানির সংখ্যা পূর্ববর্তী দিনের চেয়ে কমেছে। তবে ব্যাপকহারে সংক্রমণ বাড়ায় শুক্রবার থেকে কারফিউ জারি করছে ব্রাজিলের রিও ডি জেনেরিও। এদিকে, অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের অস্ট্রেলিয়াগামী চালান আটকে দিয়েছে ইতালি। তবে ইইউ জানিয়েছে, করোনার টিকাকে রাজনৈতিক বস্তু হিসেবে ব্যবহার করবেনা তারা। 

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ার পর ব্রাজিলে ব্যাপকহারে বেড়েছে সংক্রমণ। সেই সাথে বাড়ছে প্রাণহানিও। রিও ডি জেনেরিওতে শুক্রবার থেকেই শুরু হচ্ছে কারফিউ। বর্তমান পরিস্থিতি সামাল দেয়া নিয়ে তীব্র সমালোচনা রয়েছে প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসোনারোর বিরুদ্ধে। তবে অবিলম্বে এ ইস্যুতে হট্টগোল ও গুজব বন্ধের হুশিয়ারি দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট।


আমি সত্যের পক্ষে থাকব, সত্যেও কথা বলব: এমপি একরাম

তৃতীয় লিঙ্গের অধিকার রক্ষা; সাহসী উদ্যোগ বৈশাখী টিভির

দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গে ছাড় দেবে না আওয়ামী লীগ: হানিফ

যে কারণে বুড়ো সাজলেন রনবীর


সংক্রমণ কমছেনা যুক্তরাষ্ট্রেও। ২২ মার্চ থেকে ওয়াশিংটনে করোনা টিকাদান আরও জোরদার করছে কতৃপক্ষ। দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে অতিরিক্ত টিকাদান কেন্দ্র চালু করার ঘোষণাও দিয়েছে লস এঞ্জেলসের মেয়র। এদিকে বৃহস্পতিবার থেকে ইউটাহ-তে শুরু হয়েছে জনসন এন্ড জনসনের টিকাদান।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী, টিকা উৎপাদনকারী কোনো কোম্পানি জোটের সঙ্গে চুক্তির শর্ত পূরণে ব্যর্থ হলে, সেখান থেকে ভ্যাকসিন রপ্তানি বন্ধের সুযোগ পাবে সদস্য রাষ্ট্র।

সেই নির্দেশনাকে কাজে লাগিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় অক্সফোর্ডের করোনাটিকার একটি চালান রপ্তানি আটকে দিয়েছে ইতালি। তবে টিকাকে রাজনৈতিক বস্তু হিসেবে ব্যবহার করবেনা বলে জানিয়েছে ইইউ। অবশ্য ভ্যাকসিনের চালান বন্ধের ফলে অস্ট্রেলিয়ার টিকাদান কর্মসূচি ব্যাহত হবে না বলে আশ্বস্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন।  

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সম্পর্ক মানতে না পেরে মেয়ের শিরচ্ছেদ করলেন বাবা

অনলাইন ডেস্ক

সম্পর্ক মানতে না পেরে মেয়ের শিরচ্ছেদ করলেন বাবা

প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে এক বাবা তার নিজের মেয়েকে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ভারতের উত্তর প্রদেশের হারদই জেলায় বুধবার মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটে।

জানা গেছে, ১৭ বছর বয়সী মেয়ের সঙ্গে এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক মানতে পারেননি বাবা সরভেশ কুমার। পরে বাড়িতে মেয়েকে একা পেয়ে একটি কক্ষে আটকে রেখে ধারাল অস্ত্র দিয়ে মাথা কেটে ফেলেন তিনি। এরপর সেই কাটা মাথা হাতে নিয়ে থানায় যাচ্ছিলেন। পথচারীরা স্থানীয় থানায় খবর দিলে পুলিশ তাকে আটক করে। 

পুলিশ বলছে, অভিযুক্ত সরভেশ কুমার তাদের সব প্রশ্নেরই উত্তর দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, তার পছন্দ নয় এমন একজনের সঙ্গে তার মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। আর তাই তিনি ক্ষুব্ধ হয়ে মেয়ের শিরচ্ছেদ করেছেন। 


আমি সত্যের পক্ষে থাকব, সত্যেও কথা বলব: এমপি একরাম

তৃতীয় লিঙ্গের অধিকার রক্ষা; সাহসী উদ্যোগ বৈশাখী টিভির

দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গে ছাড় দেবে না আওয়ামী লীগ: হানিফ

যে কারণে বুড়ো সাজলেন রনবীর


তিনি জানান, মেয়ের শরীর এবং যে অস্ত্র দিয়ে তিনি শিরশ্ছেদ করেছেন তা এখনো তার বাড়ির কক্ষেই আছে। আর তিনি কাটা মাথা নিয়ে থানার দিকে আসছিলেন।  

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, পুলিশ এ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। 

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ইরাকে ঐতিহাসিক সফরে পোপ ফ্রান্সিস

অনলাইন ডেস্ক

ইরাকে ঐতিহাসিক সফরে রয়েছেন খ্রিস্টান প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস। ৫ থেকে ৮ তারিখ পর্যন্ত তিনদিনের এ সফরে আজ রোম থেকে ইরাক পৌঁছেছেন পোপ। 

গেলো ২০ বছরে বিভিন্ন সহিংসতার জেরে কয়েক লাখ খ্রিস্ট ধর্মবলম্বী্ ইরাক ছেড়ে পালিয়ে গেছে। এছাড়াও গেলো কয়েকবছরে ইসলামিক জঙ্গী গোষ্ঠী আইএস এর সবচেয়ে বেশি নিপীড়নের শিকার হয়েছে ইরাকের স্থানীয় খ্রিস্টানরা। 

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধিসহ, সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলিতে বিভিন্ন সন্ত্রাসী হামলাও বেড়েছে ইরাকে। এমন অবস্থায় পোপ ফ্রান্সিসের এ সফর খ্রিস্টান সম্প্রদায়কে আরো উজ্জীবিত বোধ করবে বলে আশা করছেন স্থানীয়রা। 


আমি সত্যের পক্ষে থাকব, সত্যেও কথা বলব: এমপি একরাম

তৃতীয় লিঙ্গের অধিকার রক্ষা; সাহসী উদ্যোগ বৈশাখী টিভির

দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গে ছাড় দেবে না আওয়ামী লীগ: হানিফ

যে কারণে বুড়ো সাজলেন রনবীর


পোপের সফর উপলক্ষে এরইমধ্যে সেখানে নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। রাজধানী বাগদাদ এবং সেখানকার গীর্জায় বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা রক্ষী। 

এছাড়া পোপের কথা শোনার জন্য ফ্রানসো হারিরি স্টেডিয়ামকে চলছে বিশাল জনসমাবেশ আয়োজনের প্রস্তুতি।   

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর