স্বাস্থ্যবিধি না মেনে উদাসীনতা প্রদর্শন করলে লকডাউন অর্থহীন: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্বাস্থ্যবিধি না মেনে উদাসীনতা প্রদর্শন করলে লকডাউন অর্থহীন: কাদের

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জনগন ঠিকমত মাস্ক ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে লকডাউনের প্রয়োজন হয় না আর স্বাস্থ্যবিধি না মেনে উদাসীনতা প্রদর্শন করলে লকডাউন অর্থহীন। ঠিকমত মাস্ক পরিধান করোনা সংক্রমণ থেকে নিস্কৃতি পাওয়ার সবচেয়ে বড় সুরক্ষা।

মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সকালে তাঁর সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংকালে একথা বলেন মন্ত্রী। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনার সংক্রমণ এখন শহর থেকে গ্রামে ছড়িয়ে পড়েছে, একটা সময় অনেকে মনে করতেন গ্রামের মানুষের করোনা হবে না, এ ধারণা ভুল প্রমাণ করে ভাইরাসের সংক্রমণ এখন গ্রাম থেকে গ্রামে ছড়িয়ে পড়েছে। প্রতিদিনই সংক্রমণ আগের দিনের হারকে অতিক্রম করে যাচ্ছে। এমন অবস্থায় মাস্ক পরার পাশাপাশি কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবীসহ দলমত নির্বিশেষে সকল রাজনৈতিক দলকে সচেতনতা বাড়ানো জন্য ক্যাম্পেইন পরিচালনার আহবান জানান। হাট বাজারে বা চায়ের দোকানে জটলা তৈরি না করে সতর্কভাবে চলাফেরা এবং মাস্ক পরিধানের মধ্য দিয়ে প্রতিরোধ ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে বলেও জানান তিনি।

নিজের সুরক্ষার জন্য সতর্ক না হলে, উদাসীনতা দেখালে কেউ আমাদের সুরক্ষিত করতে পারবে না উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন - একসময় হয়তো হাসপাতালে বেড বাড়িয়েও রুগী সামাল দেওয়া যাবে না, সেই পরিস্থিতি মাথায় রেখে মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করার পাশাপাশি সামজিক দুরত্ব বজায়সহ অন্যান্য সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

আরও পড়ুন


স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোরবানির পশুর হাট বসাতে অনুমতি

খুলনা বিভাগে করোনায় আরও ৪৮ জনের মৃত্যু

বগুড়ার তিন হাসপাতালে ২০ জনের মৃত্যু

বরিশাল নগরীর ৬টি কেন্দ্রে মডার্নার টিকা প্রদান শুরু


আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সবাইকে স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, মনে রাখতে হবে করোনা প্রতিরোধে সবচেয়ে শানিত হাতিয়ার হচ্ছে মাস্ক। লকডাউনকে ফাঁকি দেওয়া গেলেও করোনাকে ফাঁকি দেওয়া যায় না, - তার প্রমাণ অতিসংক্রমণ এবং মৃত্যুর উচ্চ হার।প্রধানমন্ত্রী করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির মধ্যেও উৎসবের যে সুযোগ করে দিয়েছেন তার সদ্ব্যাবহার করার জন্য দলমত নির্বিশেষে সকলের প্রতি আহবান জানান মন্ত্রী। 

কেউ যেন দায়িত্বহীনভাবে ফেরিঘাট, বাস টার্মিনাল, লঞ্চ টার্মিনাল এবং কোরবানীর পশুর হাটে বাঁধভাঙা ভীড় সৃষ্টি  না করে, সেদিকে সবাইকে কঠোর সতর্কতা হওয়ার আহবান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন - তা না হলে ভয়ংকর বিপর্যয় নেমে আসবে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। 

করোনার এই সংকটকালে এবং ঈদুল আজহা উপলক্ষে অসহায়, দুঃস্থ এবং খেটে-খাওয়া মানুষের পাশে থাকা অব্যাহত রাখতে আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান ওবায়দুল কাদের। পাশাপাশি দলের দুখী,অসহায় এবং অসুস্থ কর্মীদেরও সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে দলের সামর্থ্যবান ও জনপ্রতিনিধিদের প্রতি অনুরোধ জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

ওবায়দুল কাদের বর্তমান পরিস্থিতিতে দলীয় রাজনৈতিক ও সাংগঠিক কর্মসূচি স্থগিতের ঘোষণা দিয়ে বলেন - এখন একমাত্র কর্মসূচি হচ্ছে অসহায় মানুষের পাশে থাকা।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

শুক্রবার থেকে মশা নিধনে ছাত্রলীগ

অনলাইন ডেস্ক

শুক্রবার থেকে মশা নিধনে ছাত্রলীগ

সারাদেশে এডিস মশা নিধনে মাসব্যাপী কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। আগামীকাল শুক্রবার (০৬ আগস্ট) সারাদেশে এডিস মশা নিধনে মাঠে নামবে ছাত্রলীগ।

বৃহস্পতিবার (০৫ আগস্ট) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) এক অনুষ্ঠানে এডিস মশা নিধনে এই কর্মসূচির ঘোষণা দেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য।

মশা নিধনের কর্মসূচি উদ্বোধনের পর নেতাকর্মীদের নিয়ে টিএসসি এলাকায় মশকনিধনে ওষুধ ছিটায় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। এই কর্মসূচি থেকে জানানো হয়, শুক্রবার থেকে সারাদেশে সংগঠনের প্রতিটি ইউনিটে মশা নিধন কর্মসূচি পালিত হবে।

আরও পড়ুন:


পরীমনি কাণ্ডে থমথমে ‘সুনসান এফডিসি’

প্রজ্ঞাপন জারি, রোববার ব্যাংক বন্ধ


 

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সমাজসেবাবিষয়ক উপসম্পাদক তানভীর হাসানের সঞ্চালনায় এই কর্মসূচিতে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি সাঈফ বাবু, মাহমুদুল হাসান (তুষার), তিলোত্তমা শিকদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ চৌধুরী ও বেনজীর হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক বরিকুল ইসলাম (বাঁধন) প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

করোনার ব্যর্থতা আড়াল করতে সরকার নাটক করছে : টুকু

অনলাইন ডেস্ক

করোনার ব্যর্থতা আড়াল করতে সরকার নাটক করছে : টুকু

করোনার ব্যর্থতা আড়াল করতে সরকার বিভিন্ন নাটক করছে বলে অভিযোগ করেছেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

চিত্র নায়িকা পরীমনিসহ বিভিন্ন বাসায় অভিযান ও আটকের প্রসঙ্গ টেনে বৃহস্পতিবার এক ভার্চুয়াল আলোচনায় ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু এই অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, এখন করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে গেছে, করোনায় সংক্রমণ সংখ্যা বেড়ে গেছে। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ মরছে। এগুলোকে পাশ কাটানোর জন্য এইসব অভিযান পরিচালনা করে, গণমাধ্যামকে ব্যস্ত রাখা হচ্ছে।

ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপির উদ্যোগে কোভিড-১৯ হেল্প সেন্টারের উদ্বোধন উপলক্ষে এই ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর উপস্থিত ছিলেন। তবে তিনি তার নির্বাচনী এলাকার নেতৃবৃন্দকে শুভেচ্ছা দেয়া ছাড়া কোনো বক্তব্য রাখেননি।

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

পটিয়ায় সরকারি সিদ্ধান্ত অমান্য করে টিকা প্রদানের ঘটনা ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ

অনলাইন ডেস্ক

সরকারি সিদ্ধান্ত অমান্য করে পটিয়ায় টিকা প্রদানের ঘটনাকে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ হিসেবেই দেখছেন চট্টগ্রামের রাজনীতিবিদরা।

এমন ঘটনা বরদাস্ত করা হবে না বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ বদিউল আলম। 

আরও পড়ুন:


পরীমনি কাণ্ডে থমথমে ‘সুনসান এফডিসি’

প্রজ্ঞাপন জারি, রোববার ব্যাংক বন্ধ


 

বৃহস্পতিবার সকালে পটিয়ায় করোনাকালে কাজ হারানো অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণের আগে এই মন্তব্য করেন তিনি। এসময় ৬শ দরিদ্র মানুষকে সহায়তা দেয়া হয়। ত্রাণ কার্যক্রমে পটিয়া ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন পর্যায়ের রাজনীতিবিদরাও অংশ নেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

‘আদর্শ ও জনকল্যাণে অবদানই হওয়া উচিত রাজনীতির মূলমন্ত্র’

অনলাইন ডেস্ক

‘আদর্শ ও জনকল্যাণে অবদানই হওয়া উচিত রাজনীতির মূলমন্ত্র’

আদর্শ ও জনকল্যাণে অবদানই রাজনীতির মূলমন্ত্র হওয়া উচিত। নীতির রাজাই হচ্ছে রাজনীতি, শ্রেষ্ঠ নীতির নাম রাজনীতি। দুষ্টদের লালন-পালন ও পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়া রাজনীতি নয়। রাজনীতি হতে হবে পরিশীলিত, পরিমার্জিত। রাজনীতির প্রতিপক্ষকে কখনো শত্রু ভাবা ঠিক নয়। শত্রুকে নিধন করতে হবে, সশরীরে মেরে ফেলতে হবে, এটা রাজনীতি হতে পারে না। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে হবে। রাজনীতির মৌলিক সত্তার জায়গায় দল-মত নির্বিশেষে আমাদের এক হতে হবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

বৃহস্পতিবার (০৫ আগস্ট) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে পিরোজপুর জেলা প্রশাসন আয়োজিত আলোচনা সভায় রাজধানীর বেইলি রোডের সরকারি বাসভবন থেকে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

মন্ত্রী বলেন,একটি পরিশীলিত, পরিমার্জিত, রূচিবান ও সম্ভাবনাময় ব্যক্তিত্ব ছিলেন শেখ কামাল। যিনি এ দেশের ক্রীড়াঙ্গন, সাংস্কৃতিক অঙ্গন ও রাজনীতিতে অনন্য-আসাধারণ অবদান রাখতে পারতেন। অথচ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট পরিবারের সদস্যদের সাথে তাকে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করা হয়। তিনি ছিলেন বাংলাদেশে আধুনিক ক্রীড়ার জনক। অপরদিকে বাঙালি সংস্কৃতিকে পূর্ণতা দেওয়ার জন্য সংস্কৃতির বিভিন্ন ধারা তিনি লালন করতেন, চর্চা করতেন। অন্যদিকে রাজনীতি ছিল তার জন্মসূত্রে পাওয়া। রাজনীতিতে তিনি নিজের জায়গা দখলের জন্য কখনো ক্ষমতার অপব্যবহারের মানসিকতা দেখান নি। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর শেখ কামাল সম্পর্কে বিরূপ কথা প্রচার করে বঙ্গবন্ধু পরিবারকে বিতর্কিত করার অপচেষ্টা করা হয়েছে। এটা ছিল জঘন্য মিথ্যাচার।

এ সময় শ ম রেজাউল করিম বলেন,বঙ্গবন্ধু বলেছেন, নিজের যা কিছু সামর্থ্য, যা কিছু ভালো তা উৎসর্গ করে দিয়ে দেশের কল্যাণে ও মানুষের উন্নয়নে নিজেকে নিবেদন করার নাম রাজনীতি। বঙ্গবন্ধু জীবনে কখনোই অনৈতিক কর্মকান্ডে সম্পৃক্তদের, কালো টাকার মালিকদের রাজনীতিতে এনে পৃষ্ঠপোষকতা দেন নি। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা বলেন, নিজের বিত্ত-বৈভবের জন্য, প্রাচুর্যের জন্য রাজনীতি নয়। মানুষের পাশে দাঁড়ানো, তার দুঃখ-কষ্টের সাথী হওয়া, গোটা জাতির স্বপ্ন পূরণের মাধ্যমে দারিদ্র্য, অসহায়ত্ব ও বৈষম্য দূর করার নাম রাজনীতি।

আরও পড়ুন:


পরীমনি কাণ্ডে থমথমে ‘সুনসান এফডিসি’

প্রজ্ঞাপন জারি, রোববার ব্যাংক বন্ধ


 

পিরোজপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক চৌধুরী রওশন ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাঈদুর রহমান ও পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ হাকিম হাওলাদার। পিরোজপুর জেলা যুবলীগের সভাপতি আক্তারুজ্জামান ফুলু, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউল আহসান গাজী, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক গোপাল বসু, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার গৌতম নারায়ণ চৌধুরীসহ পিরোজপুরের বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকতা এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ষড়যন্ত্রকারী-সুবিধাবাদীর বিষয়ে সজাগ থাকতে বললেন নাছিম

অনলাইন ডেস্ক

ষড়যন্ত্রকারী-সুবিধাবাদীর বিষয়ে সজাগ থাকতে বললেন নাছিম

ষড়যন্ত্রকারী-সুবিধাবাদীর বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম  বাহাউদ্দীন নাছিম। 

বৃহস্পতিবার ( ৫ আগস্ট)  বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ' বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠপুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭২ তম জন্মশতবার্ষিকী'র এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ এ আলোচনা সভায় আয়োজন করে।

বাহাউদ্দীন নাছিম বলেন,  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে আমরা রক্ষা করতে পারি নি। এটা আমাদের ব্যর্থতা।  জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে খুনিদের বিচার হয়েছে।কিন্ত ষড়যন্ত্রের সঙ্গে যারা জড়িত ছিলো তাদের ইতিহাস বাংলাদেশ মানুষের জানার অধিকার রয়েছে।  এই ইতিহাস যতদিন না উন্মুক্ত হবে, বাংলাদেশের মানুষ পরিস্কার ভাবে জানতে না পারবে, ততদিন ষড়যন্ত্রকারী, সুবিধাবাদীদের অপতৎপরতা চলতেই থাকবে।  এদের বিষয়ে আমাদের সজাগ থাকতে হবে। 

কৃষিবিদ নাছিম বলেন, জাতি পিতাকে হত্যাকাণ্ডের পর যারা প্রতিবাদ করতে পারেনি।  যারা বিশ্ববাসীর কাছে বাঙালি জাতিকে কাপুরুষের জাতি হিসেবে যে কালিমা লেপন করে দিয়েছিলো।  আমরা সেই কালিমা থেকে বেড়িয়ে আসতে সক্ষম হয়েছি, শুধুমাত্র জাতির পিতার কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার কারণে। বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার হয়েছে। 

আগস্ট মাস আসলে নানামুখী ষড়যন্ত্র হয় জানিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বলেন,যখনই আগস্ট আসে, তখনই ষড়যন্ত্রের নানান ডালপালা গজাতে থাকে। যেকোনো মূল্যেই ষড়যন্ত্রকারীদের মূলোৎপাটন করতে হবে, শেকড় উপড়ে ফেলতে হবে।  যাতে বাঙালি জাতি গণতান্ত্রিক অধিকার,  মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশকে সুবিধাবাধীদের হাত থেকে রক্ষা করতে হবে।  স্বার্থপর, যারা সময় বুঝে মাথা জাগায়, দুঃসময়ে কচ্ছপের মত লুকিয়ে বেড়ায় তাদের বিরুদ্ধে আমাদের সোচ্চার হতে হবে। 

বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠপুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল প্রসঙ্গে তিনি বলেন,  প্রিয় নেতা শেখ কামাল, জাতির পিতার আদর্শ ধারণ করতে হয় তিনি আমাদের শিখিয়ে গেছেন। তিনি ছাত্র জীবনে আদর্শিক ছিলেন। তিনি জাতির পিতার সন্তান হয়েও সাধারণ মানুষের মত চলাচল  করতেন। তিনি কাজ করতে ভালোবাসতেন। একসঙ্গে ক্রীড়া, শিক্ষা, সাহিত্য ও সংস্কৃতির তিনি শুধু সংগঠকই ছিলেন না, ছিলেন পৃষ্ঠাপোষকও।  তিনি ক্রীড়া সংগঠক হিসেবে বাংলাদেশে আধুনিক ফুটবলের জনক ছিলেন। 

আমরা শেখ কামালের মত সাহসী নেতা চাই। শেখ কামালের মত সাহসী যোদ্ধা চাই। শেখ কামালের মত আদর্শবান মানুষ চাই। সৎ মানুষ চাই। সৎ-সাহসী মানুষের নেতৃত্বেই বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে বলেও যোগ করেন আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম। 

আরও পড়ুন:


পরীমনি কাণ্ডে থমথমে ‘সুনসান এফডিসি’

প্রজ্ঞাপন জারি, রোববার ব্যাংক বন্ধ


 

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফীর সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবিরের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তৃতা করেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুরুল আমিন রুহুল এমপি,  ডা. দিলীপ কুমার রায়,  যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাজী মোরশেদ হোসেন কামাল, মহিউদ্দিন মহি,  দফতর সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজসহ অন্যরা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর