‘বাম-ডান সব এক প্ল্যাটফর্মে, কোথায় তাদের আদর্শ?’
‘বাম-ডান সব এক প্ল্যাটফর্মে, কোথায় তাদের আদর্শ?’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

‘বাম-ডান সব এক প্ল্যাটফর্মে, কোথায় তাদের আদর্শ?’

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপি, জামায়াত, বাম জোট সবাই এখন এক; তাদের কোনো নীতি নেই উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বিএনপি- জামায়াত জোটের সঙ্গে এখন মিলিত হয়েছে বাম জোট। কোথায় লেফটিস্ট? কোথায় রাইটিস্ট? বাম, অতি বাম, স্বল্প বাম, কঠিন বাম; সব যেন একই প্ল্যাটফর্মে। কোথায় তাদের আদর্শ?’

রোববার (১৮ ডিসেম্বর) রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।  
 
তিনি বলেন, ‘আর কী কারণে গ্রেনেড হামলায় সাজা পাওয়া আসামি, অর্থ পাচারে সাজা পাওয়া আসামি, এতিমের অর্থ আত্মসাতে সাজাপ্রাপ্তদের সঙ্গে তারা এক হয়? তাদের নেতৃত্বে এত তাত্ত্বিক কীভাবে যায় এটাই আমার প্রশ্ন।

’ 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘একটা সরকার ক্ষমতায় থাকলে যে উন্নয়ন হয় তা আওয়ামী লীগ প্রমাণ করেছে। কিন্তু এই ক্ষমতায় আসাটা সহজ নয়। ক্ষমতায় আসতে বারবার বাধার সম্মুখীন হয়েছি। কিন্তু মানুষের শক্তি সবচেয়ে বড় শক্তি।

মানুষের শক্তি নিয়েই আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে। ’ 

স্বাধীনতায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছিল বলে আমরা একটা জাতীয়তাবোধ উপলব্ধি করতে পারি। না হলে তো আমাদের পরাধীনতার গ্লানি নিয়েই বাঁচতে হতো। বঙ্গবন্ধু সেই স্বাধীনতাটা এনে দিয়েছেন। তাঁর স্বপ্নই ছিল প্রতিটি মানুষের জীবন মান উন্নত করা। এ জন্য তিনি জীবন উৎসর্গ করেছেন। তাকে বারবার কারাবন্দি করা হয়ে কিন্তু তিনি আদর্শ থেকে এক চুলও বিচ্যুত হননি। কখন কী করতে হবে তা তিনি ভালো করে জানতেন। সেভাবেই পদক্ষেপ নিয়েছেন। এ জন্যই দীর্ঘ সংগ্রামের মধ্য দিয়ে সাফল্য এনে দিতে পেরেছিলেন। ’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশ স্বাধীনের পর আমাদের কোনো রিজার্ভ ছিল না। গোলায় ধান ছিল না। ফসল ছিল না। সড়ক-সেতু-রাস্তা ধ্বংসপ্রাপ্ত ছিল। একটা যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে তিনি গড়ে তোলেন। মাত্র ৯ মাসে সংবিধান দিয়েছেন। ’ 

স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় ভারতসহ যেসব দেশ আমাদের পাশে ছিল তাদের আমরা সম্মাননা দিয়েছি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ভারত আমদের শরণার্থীদের আশ্রয় দিয়েছে। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ, অস্ত্র দিয়ে সহযোগিতা করেছে। তাদের যোদ্ধারা আমাদের সহযোগিতা করেছে। আমরা কৃতজ্ঞতা জানায়। রাশিয়া ও যুগস্লাভিয়াসহ অনেক দেশ আমাদের  সমর্থন দেয়। আমেরিকা সরকার পাকিস্তানিদের সাহায্য করলেও তাদের জনগণের আমাদের পাশে ছিল। ’ 

বিএনপি-জামায়াতের দুঃশাসনের কথা তুলে ধরে সরকারপ্রধান বলেন, ‘বিএনপি ও বিএনপি-জামায়াতের আমলে শোষণ, বঞ্চনা, ধর্ষণ ছিল নিত্য ঘটনা। আমি জনগণকে ধন্যবাদ জানায়, তারা এটা উপলব্ধি করে আমাদের ভোট দিয়ে ক্ষমতায় আনে। ’

news24bd.tv/ইস্রাফিল