রিছাং ঝরনায় পা পিছলে পড়ে ২ পর্যটকের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

রিছাং ঝরনায় পা পিছলে পড়ে ২ পর্যটকের মৃত্যু

খাগড়াছড়ির রিছাং ঝরনায় পা পিছলে পড়ে দুই পর্যটকের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) দুপুরে রিছাং ঝরনার উপরের খাদে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- খাগড়াছড়ি জেলা সদরের রুখোই চৌধুরী পাড়ার প্রিতম নাথ(২৩) এবং লক্ষীপুরের বাসিন্দা অপু চন্দ্র দাশ(২৪)। প্রিয়তম খাগড়াছড়ি জেলা শহরের পানখাইয়া পাড়া এলাকার মৃত দুলাল নাথের ছেলে।


স্বামীর 'গোপন অঙ্গ' কেটে বিচ্ছিন্ন করল স্ত্রী!

টয়লেটে যাওয়ার কথা বলে নববধূ উধাও


মাটিরাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আলী বলেন, দুপুরে দুই বন্ধু মোটরসাইকেলে ঝরনায় ঘুরতে আসেন। তারা পাহাড় বেয়ে ঝরনার উপরের অংশে উঠেন। তখন পা পিছলে দুইজনই নিচে পড়ে যান। সাঁতার না জানায় দুইজনের কেউ উঠতে পারেনি। মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়ছে। 

news24bd.tv / কামরুল

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মাথায় গাছের ডাল পরে কাঠ ব্যবসায়ীর মৃত্যু

মো. বুরহান উদ্দিন, সুনামগঞ্জ

মাথায় গাছের ডাল পরে কাঠ ব্যবসায়ীর মৃত্যু

সুনামগঞ্জের কুরবান নগর ইউনিয়নের বদিপুর গ্রামে মাথায় গাছের ডাল পরে শওকত আলী (৪৫) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

আজ সোমবার (১ মার্চ) বিকেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শওকত আলী বদিপুর গ্রামের মৃত আব্দুল বারিকের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত শওকত আলী বিভিন্ন জায়গায় গাছ কিনে সেই গাছ কেটে কাঠ তৈরি করে বিক্রি করতেন।  নিজের গ্রামে একটি কদম গাছ কিনে সোমবার বিকেলে শ্রমিক দিয়ে সেই গাছ কাটছিলেন।


প্রতিদিন নতুন নারী লাগত তার, পরতেন ত্রিশ দিনে ৩০ সানগ্লাস

১৭ বছরের কিশোরীর পেটে ৪৮ সেন্টিমিটার লম্বা চুলের দলা

ছোট ভাই মাকে বলল,‘আপুকে পেছনের রুমে নিয়ে গেছে এক ভাইয়া

স্ত্রীকে সৌদি পাঠিয়ে ৮ বছরের মেয়েকে নিয়মিত ধর্ষণ করে বাবা


অসাবধানতা বশত গাছের বড় একটি ডাল শওকত আলীর মাথায় পরে। গাছের ডালের আঘাতে তিনি জ্ঞান হারান। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তবরত চিকিৎসক জাহিদ হাসান বলেন, মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত শওকত আলী নামের একজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। তবে হাসপাতালে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ময়মনসিংহে ছিনতাকারী চক্রের ছয় নারী সদস্যসহ আটক ৭

সৈয়দ নোমান, ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহে ছিনতাকারী চক্রের ছয় নারী সদস্যসহ আটক ৭

ময়মনসিংহ নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ছিনতাইকারী চক্রের ছয় নারী সদস্য ও এক পুরুষ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে দশটি স্বর্ণের চেইন ও ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত বিশেষ কাটার উদ্ধার করা হয়েছে। অন্তত তিন মাস ধরে নগরীতে ছিনতাই করছিলো তারা।

আটকরা হলেন- নাসিমা বেগম (২২), নিহার বেগম (২৫), শিল্পি বেগম (২৫), মনোয়ারা বেগম (৪৫), সুরাইয়া বেগম (৪১) ও মো. রাশেদ মিয়া (২৫)। তাদের সবার বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর এলাকায়। শম্ভুগঞ্জ এলাকায় বাসা ভাড়া
নিয়ে তারা থাকতো।


এক নারী দিয়ে হতো না, প্রতিদিন নতুন নারী লাগত তার

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?


সোমবার সকাল সাতটার দিকে তাদের আটক করা হয় বলে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, এক শিক্ষিকার পাাঁচ বছর বয়সী মেয়ের স্বর্ণের চেইন ছিনতাই করতে গিয়ে হাতেনাতে আটক হয় পাপিয়া আক্তার (২৭) ও শিল্পি আক্তার (২৪) নামে আরো দুই নারী ছিনতাইকারী। তাদের বাড়ি ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার চরশ্রীরামপুর গ্রামে। তাদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। মঙ্গলবার আদালতে পাঠানো হবে।

পুলিশ সুপার মোহা. আহমার উজ্জামান বলেন, জনসমাগম বেশি এমন স্থানকে টার্গেট করে অপতৎপরতা চালাচ্ছিল চক্রটি। এই চক্রটি সুকৌশলে মানুষের মোবাইল ও চেইন ছিনতাইসহ নানা অপরাধমূলক কাজে জড়িত ছিল। চক্রটির মূলহোতাদের আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করা হচ্ছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মাদ্রাসা শিক্ষকের হাত-পা বাঁধা ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় এক মাদ্রাসা শিক্ষকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

আজ সকালে সদর উপজেলার বাজারগোপালপুর কলুপাড়ার একটি ভাড়াবাসা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত ইসমাইল হোসেন সদর উপজেলার হলিধানী গ্রামের আবুল খায়েরের ছেলে। 

পুলিশ জানায়, বাজারগোপালপুর বড়বাড়ি দাখিল মাদ্রাসার সুপার ইসমাইল হোসেনের ভাড়া বাসার নিজ কক্ষে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয় পরিবারের লোকজন। 


পুলিশকে কেন প্রতিপক্ষ বানানো হয়, প্রশ্ন আইজিপির

আমাকে ‘বলির পাঁঠা’ বানানো হয়েছে: সামিয়া রহমান

বিমা খাতে সচেতনতা সৃষ্টির ক্ষেত্রে আরও প্রচার প্রয়োজন: প্রধানমন্ত্রী

পোশাক খাতে ভিয়েতনামকে পেছনে ফেললো বাংলাদেশ


পরে পুলিশ এসে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। স্থানীয় ও পুলিশের ধারণা ওই মাদ্রাসা শিক্ষককে রাতের কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা হাত-পা বেঁধে ঘরের কাঠামোর সাথে ঝুলিয়ে হত্যা করেছে। গত ৪ বছর ধরে গ্রামের শরিফুল ইসলামের বাড়িতে স্ত্রী সন্তান নিয়ে তিনি বসবাস করে আসছিল।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মোবাইলে পরিচয়, দেখা করতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী

আব্দুল লতিফ লিটু, ঠাকুরগাঁও

মোবাইলে পরিচয়, দেখা করতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ১৫ বছর বয়সী এক তরুণীকে গণধর্ষণ করার আভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের ভগদগাজী মুরগীর ফার্ম এর পাশে একটি আম বাগানে এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

গণধর্ষণের ঘটনায় ওই তরুণীর মা বাদী হয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। 

এ মামলায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তাররা হলেন- রাণীশংকৈল উপজেলার উত্তর মহেশপুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে বাবুল (১৯), একই এলাকার খলিলুর রহমানের ছেলে সোহেল রানা (২০), নুনতোর বাবুপাড়া গ্রামের শামসুদ্দীনের ছেলে রমজান আলী (১৯), ঝাড়বাড়ি মোহাম্মদপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দীনের ছেলে পইদুল ইসলাম (২২)।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, এক মাস আগে ওই তরুণীর সাথে বাবু ওরফে বাবুলের মোবাইলে পরিচয় হয় এবং প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

পরে শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে তরুণী খালার বাসায় খাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে কাশিয়াডাঙ্গা ব্রিজে বাবুলের
সঙ্গে দেখা করতে যায়।

সেখানে আগে থেকে অপেক্ষারত বাবুল ও তার সহযোগী সোহেল সহ অপরিচিত ৪-৫ জন ওই তরুণী ও তার সাথে থাকা ভাতিজিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।


প্রতিদিন নতুন নারী লাগত তার, পরতেন ত্রিশ দিনে ৩০ সানগ্লাস

১৭ বছরের কিশোরীর পেটে ৪৮ সেন্টিমিটার লম্বা চুলের দলা

ছোট ভাই মাকে বলল,‘আপুকে পেছনের রুমে নিয়ে গেছে এক ভাইয়া

স্ত্রীকে সৌদি পাঠিয়ে ৮ বছরের মেয়েকে নিয়মিত ধর্ষণ করে বাবা

৬৬ নারীকে ধর্ষণ করেছে এক ‌‘ডেলিভারি বয়’


ভগদগাজী মুরগীর ফার্মে ওই তরুণীর ভাতিজিকে আটকে রেখে পাশের আম বাগানে বাবু ওরফে বাবুল ও তার সহযোগী সোহেল সহ অন্যরা ধর্ষণ করে।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মামলার তদন্ত চলছে, অন্য আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ভাতিজিকে মুরগীর ফার্মে আটকে ফুফুকে গণধর্ষণ

আব্দুল লতিফ লিটু,ঠাকুরগাঁও

ভাতিজিকে মুরগীর ফার্মে আটকে ফুফুকে গণধর্ষণ

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ১৫ বছর বয়সী এক তরুণীকে গণধর্ষণ করার আভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের ভগদগাজী মুরগীর ফার্ম এর পাশে একটি আম বাগানে এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

গণধর্ষণের ঘটনায় ওই তরুণীর মা বাদী হয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।


এক নারী দিয়ে হতো না, প্রতিদিন নতুন নারী লাগত তার

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী


এ মামলায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তাররা হলেন- রাণীশংকৈল উপজেলার উত্তর মহেশপুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে বাবুল (১৯), একই এলাকার খলিলুর রহমানের ছেলে সোহেল রানা (২০), নুনতোর বাবুপাড়া গ্রামের শামসুদ্দীনের ছেলে রমজান আলী (১৯), ঝাড়বাড়ি মোহাম্মদপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দীনের ছেলে পইদুল ইসলাম (২২)।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, এক মাস আগে ওই তরুণীর সাথে বাবু ওরফে বাবুলের মোবাইলে পরিচয় হয় এবং প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

পরে শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে তরুণী খালার বাসায় খাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে কাশিয়াডাঙ্গা ব্রিজে বাবুলের
সঙ্গে দেখা করতে যায়।

সেখানে আগে থেকে অপেক্ষারত বাবুল ও তার সহযোগী সোহেল সহ অপরিচিত ৪-৫ জন ওই তরুণী ও তার সাথে থাকা ভাতিজিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

ভগদগাজী মুরগীর ফার্মে ওই তরুণীর ভাতিজিকে আটকে রেখে পাশের আম বাগানে বাবু ওরফে বাবুল ও তার সহযোগী সোহেল সহ অন্যরা ধর্ষণ করে।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মামলার তদন্ত চলছে, অন্য আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর