‘মাস্টার’এর বক্স অফিসে মাস্টারগিরি : ৭ দিনে ১৬০ কোটি
Breaking News
‘মাস্টার’এর বক্স অফিসে মাস্টারগিরি : ৭ দিনে ১৬০ কোটি

‘মাস্টার’এর বক্স অফিসে মাস্টারগিরি : ৭ দিনে ১৬০ কোটি

অনলাইন ডেস্ক

তামিল সুপারস্টার বিজয় বাজিমাতে কাপছে বক্স অফিস! থালাপথি বিজয়ের নতুন সিনেমার এই ঝড় করোনার মধ্যেও!গত বুধবার মুক্তি পায় তামিল সুপারস্টার বিজয় অভিনীত বহুল আলোচিত ‘মাস্টার’ সিনেমা।  

ভারতের দক্ষিণী সুপারস্টার বিজয়ের ৬৪তম সিনেমা ‘মাস্টার’ দর্শক ও সমালোচকদের মন জয় করেছে। আর সেই প্রভাব পড়েছে বক্স অফিসেও। মুক্তির মাত্র তিন দিনে বক্স অফিসে ১০০ কোটির এলিট ক্লাবে প্রবেশের পর সপ্তম দিনেও ভালো সংগ্রহ করেছে বিজয়ের সিনেমা।

সিনেমাটি এরই মধ্যে বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে ১৫০ কোটি রুপির মাইলফলক ছুঁয়েছে। সপ্তম দিনে ভারতের প্রেক্ষাগৃহে এ সিনেমা সংগ্রহ করেছে ছয় থেকে সাত কোটি রুপি। সেই হিসাবে, সাত দিনে এ সিনেমার সংগ্রহ ১৬০ কোটি রুপি ছাড়িয়েছে।

বিজয়ের অষ্টম সিনেমা হিসেবে ‘মাস্টার’ এলিট ক্লাবে প্রবেশে করেছে। এর আগে বিজয়ের ‘থুপ্পক্কি’, ‘কাত্থি’, ‘থেরি’, ‘বৈরাভা’, ‘মার্সাল’, ‘সরকার’ ও ‘বিগিল’ এলিট ক্লাবে প্রবেশ করে।

১৩ জানুয়ারি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় ১৭৮ মিনিটের এই সিনেমা। লোকেশ কনগরাজ পরিচালিত সিনেমাটির প্রযোজনা সংস্থা এক্সবি ক্রিয়েশনস। এ সিনেমায় বিজয় প্রফেসর দুরাইরাজ ওরফে জেডির ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। আর গ্যাংস্টার ভবানির ভূমিকায় রয়েছেন বিজয় সেতুপতি। দুজনের মুখোমুখি লড়াইয়ের গল্প এই অ্যাকশন-এন্টারটেইনার।

‘মাস্টার’ সিনেমায় প্রথমবারের মতো নির্মাতা লোকেশ কনগরাজের সঙ্গে কাজ করেছেন থালাপথি বিজয়। এ সিনেমায় বিজয়ের নায়িকা মালবিকা মোহনন। প্রধান খলনায়কের চরিত্রে বিজয় সেতুপতি। এতে আরো অভিনয় করেছেন নাসার, শান্তনু ভাগ্যরাজ, শ্রীমান, আন্দ্রে জেরেম, অর্জুন দাস, সঞ্জীব, শ্রীনাথ, ভি জে রাম্য ও আজগাম পেরুমাল। সিনেমার গানের সুর করেছেন অনিরুধ রবিচন্দ্র। সিনেমাটি প্রযোজনা করেছে এক্সবি ক্রিয়েশনস।

বহুল প্রতীক্ষিত ‘মাস্টার’ সিনেমাটি ২০২০ সালের ৯ এপ্রিল মুক্তির কথা ছিল। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে মুক্তির তারিখ পিছিয়ে দেওয়া হয়। লকডাউন শেষে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তিপ্রাপ্ত তামিল ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির বড় সিনেমা ‘মাস্টার’। সংশ্লিষ্টদের আশা, এ সিনেমার মাধ্যমে ইন্ডাস্ট্রি ফের ঘুরে দাঁড়াবে।

বেশ কয়েকটি ওটিটি প্ল্যাটফর্ম থেকে প্রস্তাব দেওয়া হলেও নির্মাতারা রাজি হননি। তারা প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দিতে আগ্রহী ছিলেন। সিনেমাটি তামিল, তেলেগু, কন্নড় ও হিন্দি ভাষায় মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

গত ২৮ ডিসেম্বর থালাপথি বিজয় তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এডাপ্পডি কে পলান্নস্বামীর সঙ্গে দেখা করে অনুরোধ করেছিলেন সিনেমা হলে শতভাগ আসন নিশ্চিত করতে। পরে সে অনুরোধ আমলে নেওয়া হয়।

news24bd.tv /আলী

;