মিছিল থেকে গ্রেপ্তার সাতজনের বিরুদ্ধে পুলিশের ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলা

অনলাইন ডেস্ক

মিছিল থেকে গ্রেপ্তার সাতজনের বিরুদ্ধে পুলিশের ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলা

লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর তদন্ত ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের মশাল মিছিলে সংঘর্ষের সময় আটক সাতজনের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টা মামলা করেছে পুলিশ। 

শুক্রবার মধ্যরাতে শাহবাগ থানায় মামলাটি করা হয়।  

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেফতার হয়ে কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে বন্দি অবস্থায় বুধবার লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যু হয়। এর প্রতিবাদে শুক্রবার দিনভর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বিক্ষোভ করেন বামধারার ছাত্র সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা।

এদিন সন্ধ্যায় টিএসসি থেকে মশাল মিছিল নিয়ে শাহবাগে এলে তাদের বাধা দেয় পুলিশ। এক পর্যায়ে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ বেধে যায়।

এ সময় পুলিশের লাঠিপেটায় তাদের ৩০ জন আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন আন্দোলনকারীরা। অপরদিকে আন্দোলনকারীদের হামলায় ১৫ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছিলেন বলে দাবি করা হয়।

আরও পড়ুন:


জিয়ার অবদান অস্বীকার করার অর্থই হল স্বাধীনতাকে অস্বীকার: ফখরুল

সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে রাজনীতিতে সুযোগ দিয়েছিলেন জিয়া: কাদের

বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের রিটেইলার মিট প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

খুলনায় বিএনপির অফিস ঘিরে রেখেছে পুলিশ, তীব্র উত্তেজনা


তবে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ওই ঘটনার আলোকচিত্রে পুলিশ সদস্যদের লাঠিপেটা করতে দেখা গেছে।

ঘটনার সময় সাতজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা হলেন- আমজিন হায়দায় (২২), নজিব আমিন চৌধুরী (২৭), তানজিমুর রহমান (২২), আকিব আহমেদ (২২), আরাফাত (২৬), নাজিফা জান্নাত (২৪) ও জয়তী চক্রবর্তী (২৩)।

এদিকে আজ শনিবার আসামিদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাদের সাত দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করে শাহবাগ থানা পুলিশ।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ঠাকুরগাঁওয়ে ‘অলৌকিক আগুনের’ আতঙ্ক, তান্ত্রিকদের দাবি কালাজাদু !

আব্দুল লতিফ লিটু, ঠাকুরগাঁও

ঠাকুরগাঁওয়ে ‘অলৌকিক আগুনের’ আতঙ্ক, তান্ত্রিকদের দাবি কালাজাদু !

আগুনে পুড়ে মারা যাওয়ার ভয়ে দুই সন্তানকে বাবার বাড়ি রেখে এসেছেন আমেনা বেগম। দিন-রাত এক করে বাড়ির জিনিসপত্র পাহাড়া দিচ্ছেন তিনি। আতঙ্ক ঘরবাড়িতে যে কোনো সময় আগুন লেগে সব পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়ার।

আমেনা বেগমের মতো আগুন আতঙ্কে দিন পার করছে নুর আলম, মোতালেব, মকসেদ আলীসহ বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার চাড়োল ইউনিনের সাবাজপুর গ্রামের ২০পরিবারের প্রায় শতাধিক লোকজন।

ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর দাবি অলৌকিকভাবে প্রতিদিন ৩-৪ বার আগুন লাগছে বাড়ির বিভিন্ন স্থানে। গত ২০ দিনে প্রায় শতাধিকবার আগুন লেগেছে বাড়িগুলোতে।


লকডাউনে শপিংমলে যেতে লাগবে মুভমেন্ট পাস

মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ হওয়ার সুযোগ

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমল চট্টগ্রামে

হিরো আলম বললেন, এইটা মরুভূমি না, যমুনা নদীর চর

আগুন নেভানোর জন্য ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি বৈদ্যুতিক পাম্প স্থাপন করেছেন গ্রামের লোকজন। সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার তিনবার আগুন লেগেছিল ওই গ্রামে।

এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়,  মার্চের ২৯ তারিখ রাতে প্রথম আগুনের সূত্রপাত হয়। ওইদিন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও পরের দিন আগুনে ৩টি পরিবারের ঘর-বাড়িসহ আসবাবপত্র পুড়ে প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়।

ভুক্তভোগী মসসেদ আলী জানান, আমরা এখন বিশ্বাস করে নিয়েছি এটা অলৌকিক আগুন। গত ২০ দিনের বেশি সময় ধরে আগুন লেগেই চলছে। বন্ধ হচ্ছে না।

একই গ্রামের  মোতালেব হোসেন জানান, গ্রামে বেশ কয়েকজন তান্ত্রিক নিয়ে এসেছিলাম। তান্ত্রিকদের মতে পরিবারগুলোর উপর কালাজাদু করেছে কেউ। এগুলো দূর করতে হবে। তবে তাদের মধ্যে অনেকেই চেষ্টা করে আগুন বন্ধ করে পারেনি। আমরা আগুন নেভানোর জন্য বিভিন্ন স্থানে ৫টি পাম্প বসিয়েছি।

আমেনা বেগম বলেন, সন্তানদের এখন আত্মীয়দের বাড়ি রেখে এসেছি। মাঠের কাজে যেতে পারছিনা। চরম আতঙ্কে দিন কাটছে পরিবারগুলোর। তাদের দাবি উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় আগুনের সূত্রপাত খুঁজে বের করে গ্রামের পূর্বের অবস্থা ফেরানোর।

উপজেলায় ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা জানান, অসতর্কতার কারণে আগুন লাগছে। আমরা ওই পরিবারগুলোকে ১ মাস মনিটরিং করতে পরামর্শ দিয়েছি। সঠিকভাবে মনিটরিং করলে আগুনের সূত্রপাত খুঁজে পাবে। অলৌকিক কোনো ঘটনা আমরা বিশ্বাস করি না।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার যোবায়ের হোসেন জানান, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর উপজেলা প্রশাসন থেকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে শুকনো খাবার, কম্বল ও অন্যান্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। স্থানীয় চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবহিত করা হচ্ছে পরিবারগুলোর সার্বক্ষনিক খোঁজ খবর রাখার জন্য।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

২৮ তারিখের পর বাড়ছে না লকডাউন

অনলাইন ডেস্ক

২৮ তারিখের পর বাড়ছে না লকডাউন

২৮ তারিখের পর বাড়ছে না লকডাউন। এ কথা জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

বিস্তারিত আসছে...

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ৩৬২৯

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ৩৬২৯

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৬২৯ জন। এতে দেশে এখন পর্যন্ত মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৩৯ হাজার ৭০৩ জনে।

এসময়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেল আরও ৮৮ জন। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৮৬৯ জনে।

আজ শুক্রবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, এদিন সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ২২৫ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৬ লাখ ৪৭ হাজার ৬৭৪ জন।

আরও পড়ুন:


ওবায়দুল কাদেরকে পদত্যাগের আহ্বান ভাগ্নে মঞ্জুর

২৫ এপ্রিল থেকে দোকানপাট ও শপিংমল খোলা

বান্দরবান সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে 'বন্দুকযুদ্ধে' রোহিঙ্গা নিহত

বাগেরহাটে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ২


news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৮৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৮৮

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেল আরও ৮৮ জন। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৮৬৯ জনে।

এ সময়ে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ৬২৯ জন। এতে দেশে এখন পর্যন্ত মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৩৯ হাজার ৭০৩ জনে।

আজ শুক্রবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, এদিন সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ২২৫ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৬ লাখ ৪৭ হাজার ৬৭৪ জন।

আরও পড়ুন:


ওবায়দুল কাদেরকে পদত্যাগের আহ্বান ভাগ্নে মঞ্জুর

২৫ এপ্রিল থেকে দোকানপাট ও শপিংমল খোলা

বান্দরবান সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে 'বন্দুকযুদ্ধে' রোহিঙ্গা নিহত

বাগেরহাটে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ২


news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমল চট্টগ্রামে

অনলাইন ডেস্ক

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমল চট্টগ্রামে

চট্টগ্রামে সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনায় সংক্রমিত হয়ে আরও দুজন মারা গেছেন। এ নিয়ে মোট মারা গেল ৪৮২ জন। এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) করোনায় মারা যায় তিনজন।

এছাড়া একই সময় নতুন করে ২৯৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ১৩ শতাংশের বেশি। যা গত তিন দিনের মধ্যে এই হার সর্বনিম্ন।

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) সকালে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টার করোনা-সংক্রান্ত প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

সরকারি তথ্য অনুযায়ী, এ নিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় সংক্রমিত হয়ে মোট ৪৮২ জন মারা গেলেন। চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত ৪৮ হাজার ৪৩৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর