সিলেট-৩ আসন থেকে নির্বাচিত হাবিবের শপথ গ্রহণ

অনলাইন ডেস্ক

সিলেট-৩ আসন থেকে নির্বাচিত হাবিবের শপথ গ্রহণ

সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন সিলেট-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে বিজয়ী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব।

রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সংসদ ভবনে শপথবাক্য পাঠ করান স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সংসদ সচিবালয়ের সচিব কে এম আব্দুস সালাম।

শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী ও হুইপ ইকবালুর রহিমসহ সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। শপথগ্রহণ শেষে হাবিবুর রহমান রীতি অনুযায়ী শপথ বইয়ে স্বাক্ষর করেন।

আরও পড়ুন: 


সিরাজগঞ্জে ট্রাকচাপায় যুবক নিহত

আত্রাই নদীতে গোসলে নেমে স্বামী-স্ত্রী নিখোঁজ


গত ৪ সেপ্টেম্বর এ আসনে উপ-নির্বাচনে হাবিবুর রহমান হাবিব নৌকা প্রতীকে ৮৯ হাজার ৭০৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। 

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিক লাঙল প্রতীকে ২৪ হাজার ৬০৪ ভোট পান।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ইউপি নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগের ৩১ চেয়ারম্যান

অনলাইন ডেস্ক

ইউপি নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগের ৩১ চেয়ারম্যান

দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ৩১টি ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী রয়েছে। বাছাইয়ে মনোনয়নপত্র বৈধ হলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন ক্ষমতাসীন দলের এ ৩১ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীরা। আগামীকাল ২১ অক্টোবর মনোনয়নপত্র বাছাই ও ২৬ অক্টোবরে প্রত্যাহারের সময় শেষে দ্বিতীয় ধাপে এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানা গেছে।  

এবার দ্বিতীয় ধাপে ১৭টি দলের প্রার্থী অংশ নিচ্ছেন। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাওয়া প্রার্থীরা সবাই আওয়ামী লীগের। প্রথম ধাপেও দলটির ৬৯ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। 

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ১১ নভেম্বর ৮৪৬ ইউপির ভোট রয়েছে। এর আগে রবিবার এসব ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ৪ হাজার ৮০ জন মনোনয়নপত্র জমা দেন।

গতকাল মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনের জনসংযোগ পরিচালক যুগ্ম সচিব এস এম আসাদুজ্জামান জানান, মাঠপর্যায়ের একীভূত তথ্য অনুযায়ী দ্বিতীয় ধাপে চেয়ারম্যান পদে একজন করে প্রার্থী রয়েছেন ৩১টি ইউপিতে। এসব ইউপিতে চেয়ারম্যান মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন শুধু একজন। বাছাই ও প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সময় পার হওয়ার পর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিতদের চূড়ান্ত সংখ্যা জানা যাবে।  

যেসব ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে একক মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে- সিরাজগঞ্জ সদরের সয়দাবাদ, যশোর চৌগাছার ফুলসারা, মাগুরা সদরের হাজরাপুর, বাগেরহাট সদরের গোটাপাড়া, মোল্লাহাটের গাংনী, জামালপুর সদরের রশিদপুর, শেরপুর সদরের কামারেরচর, কিশোরগঞ্জ বাজিতপুরের বলিয়ারদি ও হালিমপুর, মানিকগঞ্জের সিংগাইরের বায়রা, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের গোলাকান্দাইল ও ভুলতা, চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের সৈয়দপুর, মুরাদপুর, কুমিরা ও সোনাইছড়ি, মিরসরাইয়ের করেরহাট, ধুম, ওসমানপুর, কাটাছাড়া, মঘাদিয়া, মায়ানী, হাইতকান্দি ও ইছাখালী, কুমিল্লার লাকসামের কান্দিরপাড়, গোবিন্দপুর, উত্তরদা, আজগরা ও লাকসাম পূর্ব, ফেনীর ফুলগাজীর ফুলগাজী ও আনন্দপুর।

আরও পড়ুন:


এখনও যেভাবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হবার সুযোগ রয়েছে বাংলাদেশের!

প্রোগ্রামে ‘বোরকা না পরার’ নির্দেশ ঢাবি ছাত্রলীগ নেত্রীর!

রাজধানীতে ১৭ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ

‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে সাকিব-মুস্তাফিজের কার্যকর বোলিংয়ে স্বস্তির জয়


এবার ৮৪৬ ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থী ১৪২৫ জন, স্বতন্ত্রী প্রার্থী ২৬৫৫ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। সব মিলিয়ে চেয়ারম্যান পদে ৪ হাজার ৮০ জন, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য পদে ৯ হাজার ৫৬১ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ২৮ হাজার ১৪৯ জনের মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে।

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

কমছে পিঁয়াজের দাম

অনলাইন ডেস্ক

কমছে পিঁয়াজের দাম

বাজারে কমতে শুরু করেছে পিঁয়াজের দাম। শারদীয় দুর্গাপূজার বন্ধ শেষে আবারও ভারতীয় পিঁয়াজ আমদানি অব্যাহত থাকায় পিঁয়াজের দাম পাইকারিতে (ট্রাকসেল) কমেছে কেজি প্রতি ২ থেকে ৩ টাকা। একদিন আগেও বন্দরে প্রতি কেজি পিঁয়াজ প্রকারভেদে ৩৬টাকা থেকে ৩৮টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে।   

জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার থেকে তা কমে ৩৫ টাকা থেকে ৩৬টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। পিঁয়াজের দাম কমায় খুশি বন্দরে পিঁয়াজ কিনতে আসা পাইকাররা।

হিলি বন্দরে পিঁয়াজ কিনতে আসা আইয়ুব আলী বলেন, পূজার বন্ধের আগে পিঁয়াজের যে দাম ছিল বন্ধের পরে সেই পিঁয়াজের দাম কেজি প্রতি ১২ টাকার উপরে কমেছে। এতে করে আমাদের মতো পাইকারদের সুবিধা হয়েছে আগের চেয়ে নগদ টাকা কম লাগছে। কিন্তু পূজার বন্ধের আগে যেসব স্থানে পিঁয়াজ সাপ্লাই দেয় সেখানে এখনো পর্যাপ্ত পরিমাণে পিঁয়াজ রয়েছে যা বাড়তি দামের। এ কারণে ওই সব পার্টিরা পিঁয়াজ এখন কম দামে বিক্রি করায় লোকসানের মুখে পড়েছেন। এতে মোকামগুলোতে পিঁয়াজের নতুন করে কোনো ওর্ডার দিচ্ছে না। এতে করে আমরা যে আগে ৫/৭ ট্রাক পিঁয়াজ পাঠাতাম এখন সেখানে ১/২ ট্রাক ওর্ডার মিলছে না। 

হিলির পিঁয়াজ ব্যবসায়ী মিরাজুল ইসলাম ও রবিউল ইসলাম বলেন, বাজারে দেশীয় পিঁয়াজের সরবরাহ কমে যাওয়ায় দাম ঊর্ধ্বমুখী হয়ে যায়। একইভাবে ভারতে অতিবৃষ্টি ও বন্যার কারণে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ার কারণে সরবরাহ কমায় দাম ঊর্ধ্বমুখী হয়ে যায়। এতে করে দেশের চাহিদা মেটাতে বাড়তি দামে ভারত থেকে পিঁয়াজ আমদানির কারণে দেশের বাজারে পিঁয়াজের দাম বাড়তে থাকে। এ ছাড়া ভারতের পাশাপাশি মিয়ানমার থেকে প্রচুর পরিমাণে পিঁয়াজ আসছে যার প্রভাব পড়ছে দামের উপরে। 

আরও পড়ুন:


এখনও যেভাবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হবার সুযোগ রয়েছে বাংলাদেশের!

প্রোগ্রামে ‘বোরকা না পরার’ নির্দেশ ঢাবি ছাত্রলীগ নেত্রীর!

রাজধানীতে ১৭ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ

‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে সাকিব-মুস্তাফিজের কার্যকর বোলিংয়ে স্বস্তির জয়


হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, পূজার ৬দিন বন্ধ শেষে ১৭ অক্টোবর থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পুনরায় পিঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। এদিন বন্দর দিয়ে ১৭টি ট্রাকে ৪৭৪টন পিঁয়াজ আমদানি হয়েছে। গত সোমবার বন্দর দিয়ে ১৩টি ট্রাকে ৩৫৫টন পিঁয়াজ আমদানি হয়েছে। পিঁয়াজ যেহেতু কাঁচামাল তাই দ্রুত খালাস করে তা আমাদানিকারকদের নিকট সরবরাহ করতে বন্দর কর্তৃপক্ষ সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে।

news24bd.tv রিমু  

 

পরবর্তী খবর

প্রোগ্রামে ‘বোরকা না পরার’ নির্দেশ ঢাবি ছাত্রলীগ নেত্রীর!

অনলাইন ডেস্ক

প্রোগ্রামে ‘বোরকা না পরার’ নির্দেশ ঢাবি ছাত্রলীগ নেত্রীর!

বোরকা পরে ছাত্রলীগের দলীয় কোন প্রোগ্রামে না আসার নির্দেশ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল শাখা ছাত্রলীগ নেত্রী মাসুমা ইয়াসমিনের বিরুদ্ধে। একইসাথে ছাত্রলীগের যে কোন কর্মসূচির সময় ক্লাস থাকলেও সেটি বাদ দিয়ে প্রোগ্রামে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশন দিয়েছেন ওই নেত্রী। 

তথ্য সূত্রে জানা গেছে, হল কমিটির পদ প্রত্যাশী ছাত্রলীগের ওই নেত্রী তার কর্মীদের নিয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করেন। এসব রাজনৈতিক প্রোগ্রামে বোরকা পরে অংশগ্রহণ করতে তিনি তার কর্মীদের নিষেধ করেছেন। তবে কেউ চাইলে হিজাব পরতে পারবে বলে তিনি কর্মীদের জানান। এছাড়া ছাত্রলীগের সব প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করা বাধ্যতামূলক বলে তিনি ঘোষণা দেন। 

শিক্ষার্থীরা জানান, রবিবার (১৭ অক্টোবর) রাতে রোকেয়া হলে তার রুমে কর্মীদের ডাকেন মাসুমা ইয়াসমিন। এসময় কর্মীরা তার ডাকে সাড়া দিয়ে তার রুমে আসলে প্রথমে তিনি তাদের সঙ্গে তার রাজনৈতিক জীবনের স্মৃতি নিয়ে আলোচনা করেন। আলোচনার শেষ পর্যায়ে রাজনৈতিক প্রোগ্রামে বোরকা পরতে নিষেধ করেন। একইসঙ্গে প্রোগ্রাম থাকলে ক্লাসে না যাওয়ার জন্য বলেন।
এদিকে, বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ওই নেত্রীর কর্মীরা। তারা জানায়, কে কোন পোশাক পরে প্রোগ্রামে যাবে এটা একান্ত ব্যক্তিগত বিষয়। এ বিষয়ে নিষেধ করে তিনি ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হেনেছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তার এক কর্মী বলেন, ওইদিন রাতে সিনিয়রদের দিয়ে আপু আমাদের তার রুমে ডাকেন। রুমে যাওয়ার পর তিনি আমাদের সাথে অনেক বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। আলোচনার শেষ পর্যায়ে তিনি বলেন, সামনে হল কমিটি। এই দেড় মাসের মধ্যে কেউ যেন বোরকা পরে প্রোগ্রামে না যায়। তবে কেউ চাইলে শুধু হিজাব পরতে পারবে।

তবে এ অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন মাসুমা ইয়াসমিন। তিনি বলেন, 'আমি এ কথা বলিনি। আমি বলেছি, তোমাদের মধ্যে অনেকে আছো যারা ক্লাসের মধ্যে বোরকা পরো, কিন্তু বাইরে বোরকা ছাড়া যাও। সেক্ষেত্রে তোমরা চেষ্টা করবে বাইরে যেমন বোরকা ছাড়া যাও প্রোগ্রামের সময়ও এরকম যেতে। যার যেমন ইচ্ছে আরকি। তবে, তোমাদের যদি মনে হয় বোরকা পরে তুমি কমফোর্ট ফিল করো। তাহলে তোমরা সেভাবেই যাবে।'

আরও পড়ুন:


রাজধানীতে ১৭ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ

‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে সাকিব-মুস্তাফিজের কার্যকর বোলিংয়ে স্বস্তির জয়

বিশ্বে আবারও করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়েছে

ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক


এ বিষয়ে ছাত্রলীগের উপ-প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক মেশকাত হাসান বলেন, 'আমাদের গঠনতন্ত্রে এমন কোনো নির্দেশনা নাই। আমি নিজেও টুপি পাঞ্জাবি পরে রাজনীতি করি। যদি তিনি এমন কথা বলে থাকেন তাহলে তিনি ব্যক্তিগতভাবে এমন কথা বলেছেন। তিনি কোনোভাবেই একথা বলতে পারেন না।'

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে কোনো নির্দেশনা থাকলে সবাই বাধ্যতামূলকভাবে তা পালন করবে। আমাদের ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে এমন কোনো নির্দেশনা নাই। ছাত্রলীগের একেকটা ইউনিটের নেতাকর্মী তাদের কর্মীদের গোছানোর জন্য এরকম নির্দেশনা দিতে পারে। এক্ষেত্রে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে কোনো নির্দেশনা নাই। সূত্র: সময় টিভি

news24bd.tv রিমু  

 

 

পরবর্তী খবর

রাজধানীতে ১৭ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীতে ১৭ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ

১৭ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। রাজধানীর তুরাগে এ ঘটনা ঘটে।  

 ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত ইফতেখার আহমেদ নোমান পলাতক রয়েছেন। সোমবার রাত সাড়ে ১২টায় ওই কিশোরীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার তুরাগ থানার এসআই জাকির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, কিশোরীর পরিবার থানায় ইফতেখার আহমেদ নোমানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেন। পরে মেয়েটির শারীরিক পরীক্ষার জন্য ঢামেক হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়। অভিযুক্ত নোমানকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন:


‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে সাকিব-মুস্তাফিজের কার্যকর বোলিংয়ে স্বস্তির জয়

বিশ্বে আবারও করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়েছে

ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

হজরত মুহাম্মদ (সা.) বিশ্বে শান্তির সুবাতাস বইয়ে দিয়েছিলেন

অনলাইন ডেস্ক

হজরত মুহাম্মদ (সা.) বিশ্বে শান্তির সুবাতাস বইয়ে দিয়েছিলেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ধর্মীয় ও পার্থিব জীবনে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)- এর শিক্ষা সমগ্র মানবজাতির জন্য অনুসরণীয়। 

তিনি বলেন, ‘আমার দৃঢ় বিশ্বাস, মহানবী (সা.)- এর সুমহান আদর্শ অনুসরণের মধ্যেই মুসলমানদের অফুরন্ত কল্যাণ, সফলতা ও শান্তি নিহিত রয়েছে। করোনা মহামারিসহ আজকের দ্বন্ধ-সংঘাতসময় বিশ্বে প্রিয়নবী (সা.)- এর অনুপম জীবনাদর্শ, তাঁর সর্বজনীন শিক্ষা ও সুন্নাহর অনুসরণ এবং ইবাদতের মাধ্যমেই বিশ্বের শান্তি, ন্যায় এবং কল্যাণে নিশ্চিত হতে পারে।’   
 
আজ ২০ অক্টোবর পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে এক বাণীতে  প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব, বিশ্বমানবতার মুক্তির দিশারি, বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর জন্ম এবং ওফাতের পবিত্র স্মৃতি বিজড়িত ১২ রবিউল আউয়াল তথা ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) বিশ্ববাসী বিশেষত মুসলমানদের জন্য অত্যন্ত পবিত্র ও মহিমান্বিত দিন। এ উপলক্ষে আমি বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল মুসলিম উম্মাহকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানাচ্ছি।”  

তিনি বলেন, মহান আল্লাহ তাআলা আমাদের প্রিয়নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে এ পৃথিবীতে প্রেরণ করেছেন শান্তি, মুক্তি, প্রগতি ও সামগ্রিক কল্যাণের জন্য ‘রাহমাতুল্লিল আ’লামীন’ তথা সারা জাহানের রহমত হিসেবে। নবী করিম (সা.)-কে বিশ্ববাসীর রহমত হিসেবে আখ্যায়িত করে পবিত্র কোরআনে মহান আল্লাহ বলেছেন, ‘আমি আপনাকে সমগ্র বিশ্বজগতের জন্য রহমতরূপে প্রেরণ করেছি’ (সূরা আল-আম্বিয়া, আয়াত: ১০৭)। মুহাম্মদ (সা.) এসেছিলেন তওহিদের মহান বাণী নিয়ে। সব ধরনের কুসংস্কার, অন্যায়, অবিচার, পাপাচার ও দাসত্বের শৃঙ্খল ভেঙে মানবসত্তার চিরমুক্তির বার্তা বহন করে এনেছিলেন তিনি। বিশ্ববাসীকে তিনি মুক্তি ও শান্তির পথে আসার আহ্বান জানিয়ে অন্ধকার যুগের অবসান ঘটিয়েছিলেন এবং সত্যের আলো জ্বালিয়েছেন। তিনি বিশ্বভ্রাতৃত্ব প্রতিষ্ঠা, ন্যায় ও সমতাভিত্তিক সমাজ গঠন এবং মানবকল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত করে বিশ্বে শান্তির সুবাতাস বইয়ে দিয়েছিলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, বিশ্বশান্তির অগ্রনায়ক রাষ্ট্রের নিরাপত্তা, নাগরিকদের মধ্যে শান্তি-সম্প্রীতি বজায় রাখাসহ নানা দিক বিবেচনা করে প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করেন মানব ইতিহাসের প্রথম প্রশাসনিক সংবিধান ‘মদিনা সনদ’। বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় মহানবী (সা.)-এর অনবদ্য ভূমিকার আরেকটি অনন্য স্মারক হুদায়বিয়ার সন্ধি। বাহ্যিক পরাজয়মূলক হওয়া সত্ত্বেও কেবল শান্তি প্রতিষ্ঠার স্বার্থে তিনি এ সন্ধিতে স্বাক্ষর করেন। 

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


 

তিনি বলেন, তাঁর অমিত সাহস, ধৈর্য ও বিচক্ষণতা তখনকার মানুষকে যেমন বিমুগ্ধ করে, তেমনি অনাগত মানুষদের জন্যও শান্তি প্রতিষ্ঠার আদর্শ ও অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকে। মুহাম্মদ (সা.)-এর শান্তিপূর্ণ ‘মক্কা বিজয়’ মানব ইতিহাসের এক চমকপ্রদ অধ্যায়। কার্যত তিনি বিনাযুদ্ধে, বিনা রক্তপাতে ও বিনাধ্বংসে মক্কা জয় করেন। শত অত্যাচার-নির্যাতন ও যুদ্ধ করে আজীবন যে জাতি নবী করিম (সা.)-কে সীমাহীন কষ্ট দিয়েছে, সেসব জাতি ও গোত্রকে মক্কা বিজয়ের দিন তিনি অতুলনীয় ক্ষমা প্রদর্শন করে তাদের সঙ্গে উদার মনোভাব দেখিয়ে সমাজে শান্তি-শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা করেন। ক্ষমা ও মহত্ত্বের দ্বারা মানুষের মন জয় করে শান্তি ও শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠার এমন নজির বিশ্বে দুর্লভ।

প্রধানমন্ত্রী পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)- এর এই দিনে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহ্ তথা বিশ্ববাসীর শান্তি, মঙ্গল ও সমৃদ্ধি কামনা করে বলেন, ‘মহান আল্লাহ আমাদেরকে মহানবী (সা.)- এর সুমহান আদর্শ ও সুন্নাহ যথাযথভাবে অনুসরণের মাধ্যমে দেশ, জাতি ও মানবতার কল্যাণ কাজ করার তৌফিক দান করুন।’  

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর