‘নিষেধাজ্ঞা না তুললে আইএইএ’র ক্যামেরা খুলে ফেলা হবে’
‘নিষেধাজ্ঞা না তুললে আইএইএ’র ক্যামেরা খুলে ফেলা হবে’

‘নিষেধাজ্ঞা না তুললে আইএইএ’র ক্যামেরা খুলে ফেলা হবে’

অনলাইন ডেস্ক

ইরানের পরমাণু স্থাপনাগুলোতে আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থার যেসব ক্যামেরা বসানো আছে সাম্প্রতিক দ্বিপক্ষীয় চুক্তি অনুযায়ী তাতে ধারণ করা কোনো ছবি বা ভিডিও এই সংস্থা পাবে না। আর তিন মাসের মধ্যে ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা না হলে ওইসব ক্যামেরার সকল তথ্য মুছে ফেলার পাশাপাশি ক্যামেরাগুলো খুলে রাখা হবে বলেও জানানো হয়েছে।

ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থার প্রধান ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলী আকবর সালেহি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। শুক্রবার রাতে টেলিভিশনের এক টক-শো’তে তিনি বলেন, সংসদে পাস হওয়া আইন অনুযায়ী ইরান সম্প্রতি এনপিটি চুক্তি সম্পূরক প্রটোকল বাস্তবায়ন বন্ধ করে দিয়েছে।

তবে আইএইএ’র সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় চুক্তির ভিত্তিতে ওই সংস্থার ক্যামেরাগুলো এখনো ইরানের পরমাণু স্থাপনাগুলোতে বসানো রয়েছে এবং এসব স্থাপনার সব তৎপরতার দৃশ্য এসব ক্যামেরায় রেকর্ড হচ্ছে।

আরও পড়ুন:


পানির নিচের অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন টাইটানিকের সেই নায়িকা

কে এই রূপবতী তুলসী, যার গানের ভিউ ১০ কোটি ছাড়ালো (ভিডিও)

কার প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন শ্রাবন্তী, নাম ফাঁস করলেন নিজেই

বন্যপ্রাণীর মিঠাপানির চাহিদা মেটাতে সুন্দরবনে পুকুর খনন শুরু


কিন্তু আইএইএ’র প্রধান রাফায়েল গ্রোসির সাম্প্রতিক তেহরান সফরে তার সঙ্গে ইরানের তিন মাসের সাময়িক সমঝোতা হয়েছে। এই তিন মাসের মধ্যে আমেরিকা ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না করলে আইএইএ’কে এসব ক্যামেরার কোনো ছবি বা ভিডিও দেখতে দেয়া হবে না এবং স্থায়ীভাবে সেসব দৃশ্য মুছে ফেলা হবে। তিনি বলেন, এরপর ইরানের পরমাণু স্থাপনাগুলো থেকে আইএইএ’র সব ক্যামেরা খুলে ফেলা হবে।

news24bd.tv আহমেদ