ফের গাজা উপত্যকায় হামলার পরিকল্পনা ইসরাইলের!

অনলাইন ডেস্ক

ফের গাজা উপত্যকায় হামলার পরিকল্পনা ইসরাইলের!

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় আবারও আগ্রাসন চালানোর পরিকল্পনা করেছে ইহুদিবাদী ইসরাইলের মন্ত্রিসভা এমন খবর পাওয়া গেছে। লেবাননের আল-আখবার পত্রিকা জানিয়েছে, নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেতের সভাপতিত্বে মঙ্গলবার ইহুদিবাদী ইসরাইলি মন্ত্রিসভার এক নিরাপত্তা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে গাজা উপত্যকায় আবারও আগ্রাসন চালানোর ব্যাপারে একটি প্রস্তাব পাস হয়েছে। ইসরাইলের ১৩ নম্বর টিভি চ্যানেল জানিয়েছে, ইসরাইলি সেনাবাহিনী ফের গাজায় হামলা শুরু করতে চায়। কারণ, তাদের মতে গাজা যুদ্ধ শেষ হয়নি এবং এ ধরনের যুদ্ধের জন্য সব সময় প্রস্তুত থাকতে হবে।

এ কারণে ইসরাইলের যুদ্ধমন্ত্রী বেনি গান্তেজ ও সেনাপ্রধান আভিভ কুখাবি’র পরামর্শে গাজা উপত্যকার ওপর হামলার পরিকল্পনা অনুমোদন করেছে ইহুদিবাদী মন্ত্রিসভা।

এদিকে ইসরাইলি সেনাবাহিনীর জন্য নতুন করে অস্ত্রসস্ত্র ও গোলাবারুদ সংগ্রহ করার লক্ষ্যে জেনারেল কুখাবি আমেরিকা সফরে গেছেন। সাম্প্রতিক গাজা যুদ্ধে খরচ করা অস্ত্রের ঘাটতি পূরণ করতেই তার এ সফর অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তিনি মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে ১২ দিনের গাজা যুদ্ধের অভিজ্ঞতাও বিনিময় করবেন।

আরও পড়ুন


‘কোন ষড়যন্ত্র আওয়ামী লীগকে মাটি ও মানুষ থেকে আলাদা করতে পারবে না’

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ‘আঞ্চলিক প্রভাবশালী’ দেশের পথে

টাঙ্গাইলে লকডাউন উপেক্ষা করে চলছে দূরপাল্লার বাস


গত মে মাসের গোড়ার দিকে আল-আকসা মসজিদে মুসল্লিদের ওপর ইসরাইলি সেনাদের ব্যাপক দমন অভিযানের প্রতিবাদে গাজা উপত্যকা থেকে ইসরাইল অভিমুখে রকেট নিক্ষেপ শুরু করে প্রতিরোধ আন্দোলনগুলো। দখলদার ইসরাইল টানা ১২ দিন ধরে গাজা উপত্যকার বেসামরিক অবস্থানে বিমান হামলা চালিয়ে তার জবাব দেয়।

ইসরাইল বিমান হামলা শুরু করার সঙ্গে সঙ্গে গাজা থেকে ইসরাইলের বিভিন্ন শহর লক্ষ্য করে হাজার হাজার রকেট নিক্ষেপ করতে থাকে হামাস ও ইসলামি জিহাদ আন্দোলনসহ অন্যান্য প্রতিরোধ সংগঠন। তারা এই ১২ দিনে জেরুজালেম, তেল আবিব এমনকি দূরবর্তী হাইফা শহরে চার হাজারের বেশি রকেট নিক্ষেপ করে ইহুদিবাদীদের অন্তরে কাঁপন ধরিয়ে দেয়।ফিলিস্তিনিদের রকেটের পাল্লা ও নিখুঁতভাবে আঘাত হানার ক্ষমতা দেখে তেল আবিব ১২ দিনের মাথায় যুদ্ধবিরতি মেনে নিতে বাধ্য হয়। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

স্মরণকালের ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে তুরস্ক

অনলাইন ডেস্ক

স্মরণকালের ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে তুরস্ক। আগুনে পুড়ে এখন পযন্ত ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

তুর্কি সরকারের তথ্যমতে, ১ হাজার ৮০টি পানির ট্রাক, ২৮০টি জলবাহী ট্যাংকার এবং ১০ হাজার ৫৫০ জন দমকল কর্মী কাজ করে যাচ্ছেন। এছাড়া চার হাজারের বেশি প্রযুক্তি কর্মীও নিরলসভাবে পরিশ্রম করছেন। মোট ৭০টি দাবানলের আগুন লেগেছিলো। যার মধ্যে ৪০টি বনের আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে জানিয়েছে দমকল বাহিনী।

আরও পড়ুন:


বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত করোনার মতো বারবার রূপ পরিবর্তন করছে: বাহাউদ্দিন নাছিম

টিকা নেয়ার পরেও করোনা পজিটিভ ফারুকী

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা


 

প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেব এরদোয়ান জানিয়েছেন, দাবানল নিয়ন্ত্রণে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দমকল বাহিনী। প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, যাদের ঘর-বাড়ি, পশু পুড়ে গেছে তাদের সহায়তার দেবার। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

গাড়িতে বোনের দুই সন্তানের লাশ নিয়ে ঘুরছিলেন তিনি

অনলাইন ডেস্ক

গাড়িতে বোনের দুই সন্তানের লাশ নিয়ে ঘুরছিলেন তিনি

২০০৯ সালে নিজের বোনের কাছে নিরাপদ থাকার জন্য আপন দুই সন্তানকে দিয়েছিলেন বড় বোন। কিন্তু সেই বোনের হাতেই খুন হতে সেই দুই ভাই বোনকে। গেল বছরের মে মাসে প্রথমে তিনি খুন করেন বোনের ছেলেকে। তারপর তার মরদেহ স্যুটকেসে ভরে গাড়ির পিছনের ডালায় ঢুকিয়ে দেন। ছেলেটিকে খুন করার কয়েক দিন পর মেয়েটিকেও খুন করেন তিনি। তারপর এক বছর ধরে ওই গাড়িতেই দু’টি শিশুর দেহ নিয়ে ঘোরাফেরা করেছেন নিকোল। 

কিন্তু অবশেষে ট্রাফিক আইন ভেঙে আশ্চর্যজনভাবে পুলিশের হাতে ধরা পড়লেন তিনি।

ঘটনা আমেরিকার বাল্টিমোর এলাকার। নিকোল জনসন নামে ওই নারীকে শুক্রবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, বোনের ছেলেমেয়েকে খুনের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে নিকোলের ট্রাফিক আইন ভাঙার বিষয়টি কেন্দ্র করে।

ট্রাফিক আইন ভেঙে জোরে গাড়ি চালানোর জন্য গত বুধবার পুলিশ তাকে আটক করে। নিকোলের কাছে গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চাওয়া হয়। কিন্তু তিনি সঠিক কাগজ দেখাতে পারেননি ট্র্যাফিক পুলিশকে।

দায়িত্বে থাকা পুলিশ কর্মকর্তা নিকোলকে জানান, গাড়ি তুলে নিয়ে যাওয়া হবে। এ কথা শোনার পর কোনও আপত্তি জানাননি নিকোল। বরং তিনি জানান, গাড়িটা তারা নিয়ে যেতে পারেন। কেননা তিনি পাঁচ দিন বাড়িতে থাকবেন না। এর পরই নিকোল বলেন, সংবাদের শিরোনামে খুব শিগগিরই আসতে চলেছি।

পুলিশ জানিয়েছে, নিকোলের গাড়ির ডালা খুলতেই দুর্গন্ধ ভেসে আসে। সেখানে একটি বাক্স দেখা যায়। সেই বাক্সের মধ্যে গলিত একটি শিশুর হাড়। তার পাশেই আরও একটি শিশুর পচাগলা দেহ। এর পরই শুক্রবার গ্রেফতার করা হয় নিকোলকে।

জেরা করে পুলিশ জানতে পেরেছে, নিকোলকে ভরসা করে ২০১৯ সালে ছেলেমেয়েকে তার কাছে রেখে গিয়েছিল বোন। ২০২০ সালের মে মাসে ছেলেটিকে খুন করেন তিনি। তারপর তার মরদেহ স্যুটকেসে ভরে গাড়ির পিছনের ডালায় ঢুকিয়ে দেন।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


কী কারণে বোনের ছেলেমেয়েকে খুন করেছেন নিকোল তা খতিয়ে দেখেছেন তদন্তকারীরা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

করোনা বিধিনিষেধ শিথিল করে বিপাকে যুক্তরাজ্য

অনলাইন ডেস্ক

করোনা বিধিনিষেধ শিথিল করে বিপাকে যুক্তরাজ্য

করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসায় গণহারে টিকাদান কার্যক্রমের পাশাপাশি বিধিনিষেধ শিথিল করায় যুক্তরাজ্যে করোনা সংক্রমণ প্রায় ১৫ শতাংশ বেড়ে গেছে। করোনা সংক্রমণ নিয়ে এক সাপ্তাহিক জরিপে বিষয়টি উঠে আসে।

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে দেশটির হাসপাতালে রোগীর চাপ বেড়েছে। হাসপাতাল চিকিৎসা প্রয়োজন ছয় হাজারেরও বেশি লোকের, যা মার্চের পর সবচেয়ে বেশি।

কিন্তু দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দৈনিক পরীক্ষায় সংক্রমণ করে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে। যদিও এতে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও বিশেষজ্ঞরা।

দেশটির অফিস ফর ন্যাশনাল স্ট্যাটিটিক্স (ওএনএস) এর সর্বশেষ জরিপে বলা হয়, সংক্রমণ কমেনি বরং সংক্রমণ বেড়েছে। তবে বাড়ার বিষয়টি দৈনিক পরীক্ষায় উঠে আসে নি।

ওএনএস বলছে, ইংল্যান্ডে সংক্রমণ বেড়েছে এক লাখ ১৪ হাজার ৫০০ অর্থাৎ ১৫.৪ শতাংশ। ওয়েলস এবং নর্দান আয়ারল্যান্ডে সংক্রমণ বেড়েছে। কিন্তু স্কটল্যান্ডে সংক্রমণ কমেছে।

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশসহ চার দেশে দুবাইগামী ফ্লাইট বন্ধ ৭ আগস্ট পর্যন্ত

চীন ও অস্ট্রেলিয়ায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুশিয়ারি

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা

সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন বেসামরিক পদে ছয় শতাধিক নিয়োগ


এদিকে ওএনএসের জরিপ এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যে যে অসঙ্গতি সে সম্পর্কে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর বিভিন্ন কারণ থাকতে পারে।

উল্লেখ্য, টিকা কর্মসূচীর সফলতার কথা তুলে ধরে দেশটিতে পুরোপুরি বিধিনিষেধ তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

চীন ও অস্ট্রেলিয়ায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুশিয়ারি

অনলাইন ডেস্ক

চীন ও অস্ট্রেলিয়ায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুশিয়ারি

করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আবারও চীন ও অস্ট্রেলিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে মিউটেশনের মাধ্যমে আরও ভয়ংকর হয়ে ওঠার আগেই একে দমন করতে এই দুই দেশকে আহ্বান জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

গত কয়েকমাস করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকলেও সম্প্রতি আবারও করোনাভাইরাসে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে দেশটিতে।

চীনের নানজিং শহরে করোনার ডেল্টা ক্লাস্টার সংক্রমণ থেকে আক্রান্ত অন্তত ২০০ জনকে শনাক্ত করা হয়। যার ভেতরে একটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ৯ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মীও রয়েছে।

শনিবার নতুন করে চীনের আরও দুটি এলাকা- ফুজিয়ান প্রদেশ ও মেগাসিটি চংকুইংয়ে করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়। এ নিয়ে চীনের পাঁচটি প্রদেশে আবারও নতুন করোনা শনাক্ত করা হয়েছে।

নতুন করে করোনা শনাক্ত হওয়া পাঁচটি এলাকায় ইতিমধ্যেই লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

এদিকে, ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ায় অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড ও ব্রিসবেন লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) ছয়টি অঞ্চলের মধ্যে পাঁচটি অঞ্চলে গত চার সপ্তাহে সংক্রমণ গড়ে ৮০ শতাংশ বেড়েছে। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কারণে এই সংক্রমণ লাফিয়ে দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশসহ চার দেশে দুবাইগামী ফ্লাইট বন্ধ ৭ আগস্ট পর্যন্ত

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা

সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন বেসামরিক পদে ছয় শতাধিক নিয়োগ


ডব্লিউএইচও’র জরুরি বিভাগের প্রধান মাইকেল রায়ান এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, ‘এটির আরও বিপজ্জনক মিউটেশনের আগে এখন আমাদের আরও জরুরি পদক্ষেপ নিতে হবে।’

রায়ান জোর দিয়ে বলেন, ‘গেম প্ল্যান’ হিসেবে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা, হাত ধোয়া এবং টিকাদান এখনো কার্যকর উপায়।

সূত্রঃ দ্য গার্ডিয়ান

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে তুরস্ক

অনলাইন ডেস্ক

স্মরণকালের ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে তুরস্ক। আগুনে পুড়ে এখন পর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

তুর্কি সরকারের তথ্যমতে, ১ হাজার ৮০টি পানির ট্রাক, ২৮০টি জলবাহী ট্যাংকার এবং ১০ হাজার ৫৫০ জন দমকল কর্মী কাজ করে যাচ্ছেন। 

এছাড়া চার হাজারের বেশি প্রযুক্তি কর্মীও নিরলসভাবে পরিশ্রম করছেন। মোট ৭০টি দাবানলের আগুন লেগেছিলো। যারমধ্যে ৪০টি বনের আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে জানিয়েছে দমকল বাহিনী। 

আরও পড়ুন:


বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত করোনার মতো বারবার রূপ পরিবর্তন করছে: বাহাউদ্দিন নাছিম

টিকা নেয়ার পরেও করোনা পজিটিভ ফারুকী

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা


প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেব এরদোয়ান জানিয়েছেন, দাবানল নিয়ন্ত্রণে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দমকল বাহিনী। প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, যাদের ঘর-বাড়ি, পশু পুড়ে গেছে তাদের সহায়তার দেবার। একইসঙ্গে দাবানলের কারণ অনুসন্ধানের কথা জানিয়েছেন তিনি।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর