সমুদ্রে নামতে মানতে হবে এই ১০ নির্দেশনা

অনলাইন ডেস্ক

সমুদ্রে নামতে মানতে হবে এই ১০ নির্দেশনা

‘সতর্কতাই নিরাপত্তার পূর্বশর্ত’ এই স্লোগানে সমুদ্রের পানিতে নামার আগে করণীয় ও সতর্কতার ব্যাপারে ১০ দিনব্যাপী ক্যাম্পেইন শুরু করেছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে এই ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ।

তিনি বলেন, সমুদ্রের পানিতে নামার আগে কিছু সতর্কবার্তা এই ১০ দিন আমরা প্রচার করতে চাই। পর্যটক যারা আসবেন তাদের তো জানা নেই যে এখানে লাইফগার্ড আছে। এখানে সিকিউরিটির ব্যবস্থা আছে। কোন চিহ্ন দিয়ে কি অর্থ প্রকাশ পায়, লাল পতাকার অর্থ কী ইত্যাদি। আত্মীয়স্বজন, পরিবার-পরিজন নিয়ে যারা কক্সবাজার সৈকতে বেড়াতে আসেন তারা অনেক সময় সিগনালগুলো খেয়াল করতে পারে না।

তাদের অবগতির জন্য এই আয়োজন করা হয়েছে। তাদের সহায়তার জন্য এখানকার বিচকর্মীরা সার্বক্ষণিক সজাগ রয়েছেন।

আজ থেকে শুরু করে আগামী ১০ দিন পর্যন্ত কলাতলী, সুগন্ধা এবং লাবণী বিশেষ করে এই তিনটা পয়েন্টে এ রকম প্রচারাভিযান চালানো হবে। এখন থেকে পর্যটকরা সমুদ্রস্নান কিংবা পানিতে নামার আগে প্রশাসনের দেওয়া নির্দেশনা ও সময়সূচি মেনে সমুদ্রসৈকতে নামবেন। এ সময় তিনি পর্যটকদের সহযোগিতার আহ্বান জানান।

এদিকে দেখা যায়, সমুদ্রসৈকতে গোসল করতে নামার আগে পর্যটকদের উদ্দেশে ১০ নির্দেশনা দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

এ ছাড়া গুপ্ত গর্ত (চোরাইখাল) ও গণস্রোতপ্রবণ এলাকা চিহ্নিত করে সাইনবোর্ড টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:


পর্ন ভিডিও বানানোর সেই কাহিনী জানালেন পরী

৪ রানে জয় পেল বাংলাদেশ

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার অভিযোগে মেয়র তাপসের কুশপুত্তলিকা দাহ

 নাটোরে সড়কে গেল মুক্তিযোদ্ধার প্রাণ

গয়েশ্বর বললেন, আওয়ামী লীগ ফুল স্টপ হয়ে যাবে


 

সমুদ্রে নামার আগে যে ১০ সতর্কতা মানতে হবে

১। সাঁতার না জানলে সমুদ্রের পানিতে নামার সময় লাইফ জ্যাকেট ব্যবহার করতে হবে।

২। লাল পতাকা চিহ্নিত করা পয়েন্টে কোনোভাবে নামা যাবে না।

৩। সৈকত এলাকায় সর্বদা লাইফগার্ডের নির্দেশনা মানতে হবে।

৪। বিকেল ৫টার পর সমুদ্রে নামা যাবে না।

৫। সমুদ্রে নামার আগে জোয়ার-ভাটাসহ আবহাওয়ার বর্তমান অবস্থা জেনে নিতে হবে

৬। লাইফগার্ড নির্দেশিত নির্ধারিত স্থান অন্য কোনো পয়েন্ট থেকে সমুদ্রে নামা যাবে না

৭। সমুদ্রে যেকোনো মুহূর্তে তীব্র স্রোত এবং গুপ্ত গর্ত সৃষ্টি হতে পারে।

৮। যে কোনো ভাসমান বস্তু পানিতে নামার আগে বাতাসের গতি সম্পর্কে জেনে নিন।

৯। শিশুকে সৈকতে সব সময় সঙ্গে রাখুন, তাকে একা সমুদ্রে নামতে দেবেন না।

১০। অসুস্থ অথবা দুর্বল শরীর নিয়ে সমুদ্রে হাঁটুপানির বেশি নামবেন না।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

চুক্তিতে রাইড শেয়ার বন্ধে কঠোর বার্তা দিলো বিআরটিএ

অনলাইন ডেস্ক

চুক্তিতে রাইড শেয়ার বন্ধে কঠোর বার্তা দিলো বিআরটিএ

রাইড শেয়ারিং অ্যাপস ছাড়া চুক্তিভিত্তিক যাত্রী পরিবহন করলে সংশ্লিষ্ট চালক ও যাত্রীর বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। একইসঙ্গে রাইড শেয়ারিং সেবার নীতিমালা অনুযায়ী নির্দিষ্ট ভাড়ার বেশি নিলে রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান ও চালকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে বিআরটিএ। 

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর)বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রাইড শেয়ারিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান, রাইড শেয়ারিং সেবাদানকারী মোটরযান মালিক, মোটরযান চালক এবং রাইড শেয়ারিং সেবাগ্রহণকারীদের অবহিত করা যাচ্ছে যে, অ্যাপস ভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সেবা প্রদান এবং গ্রহণের জন্য সরকার কর্তৃক রাইড শেয়ারিং সার্ভিস নীতিমালা ২০১৭ প্রবর্তন করা হয়েছে। এ নীতিমালা অনুযায়ী বিআরটিএ থেকে রাইড শেয়ারিং এনলিস্টমেন্ট সার্টিফিকেট গ্রহণ করে রাইড শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে সংশ্লিষ্ট সেবা প্রদান ও গ্রহণ এবং সুনির্দিষ্ট পরিমাণ ভাড়া আদায় করার শর্ত রয়েছে।

কিন্তু সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে, কতিপয় মোটরযান চালক এ নীতিমালার শর্ত পালন করছেন না। শর্ত পালন না করে চুক্তিভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সেবা প্রদান ও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে, যা রাইড শেয়ারিং সার্ভিস নীতিমালার পরিপন্থি। অ্যাপস ছাড়া চুক্তিভিত্তিতে রাইড শেয়ারিং সেবা গ্রহণ না করার জন্য সেবাগ্রহণকারীদের অনুরোধ করা যাচ্ছে। রাইড শেয়ারিং সার্ভিস নীতিমালার বিধান অমান্য করে চুক্তিভিত্তিক মোটরযান পরিচালনাসহ অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করলে সংশ্লিষ্ট রাইড শেয়ারিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান, মোটরযান মালিক, মোটরযান চালক ও সেবাগ্রহণকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন:

চাপের মুখে বাংলাদেশ

ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে টাইগার শিবিরে বড় দুটি দুঃসংবাদ

শাহরুখের সাথে জুটি থেকে সরে দাঁড়ালেন নায়িকা


 

চুক্তিভিত্তিক যাত্রী পরিবহন ও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় সংক্রান্ত যেকোনো অভিযোগ সহকারী পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ারিং), রাইড শেয়ারিং শাখা, বিআরটিএ, সদর কার্যালয়, বনানী, ঢাকা-১২১২, মোবাইল নম্বর: ০১৭১৪৫৫৬৫৭০, ফোন নম্বর: ০২-৫৫০৪০৭৪৫, ইমেইল: [email protected] বরাবর দাখিল করার অনুরোধ করা যাচ্ছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

মৃত্যু হলো আরও ছয়জনের, শনাক্ত ২৯৪

অনলাইন ডেস্ক

মৃত্যু হলো আরও ছয়জনের, শনাক্ত ২৯৪

গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বব্যপী তাণ্ডব চালানো করোনায় সারাদেশে আরও ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ৮৪৭ জনে।

একই সময়ে আক্রান্ত হিসেবে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ২৯৪ জন। মোট শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ৬৮ হাজার ৮৫৭ জনে।

আরও পড়ুন:


পাগলীর জন্ম নেওয়া সন্তানের পিতা এমপি বদি

টস জিতে ফিল্ডিংয়ে পাকিস্তান

শোয়েব মালিককে ‘দুলাভাই’ ‘দুলাভাই’ বলে ডাকল ভারতীয় দর্শকরা (ভিডিও)

এর আগের দিন (২৭ অক্টোবর) করোনায় সাতজনের মৃত্যু হয় ও সংক্রমিত হন ৩০৬ জন।

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনা পরিস্থিতি সংক্রান্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

news24bd.tv/তৌহিদ

পরবর্তী খবর

২০২২ সালে ছুটি কয়দিন তা জানা গেল

অনলাইন ডেস্ক

২০২২ সালে ছুটি কয়দিন তা জানা গেল

২০২২ সালে সাধারণ ও নির্বাহী আদেশ মিলিয়ে ২২ দিন ছুটি থাকবে। এর মধ্যে সাধারণ ছুটি ১৪ এবং নির্বাহী আদেশে ছুটি থাকবে ৮ দিন। 

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) মন্ত্রিসভার বৈঠকে ২০২২ সালের ছুটির এ তালিকা অনুমোদন দেওয়া হয়। ২২ দিনের মধ্যে ৬ দিন পড়েছে সাপ্তাহিক ছুটির দিনে।

মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর দুপুরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

আরও পড়ুন:


পাগলীর জন্ম নেওয়া সন্তানের পিতা এমপি বদি

টস জিতে ফিল্ডিংয়ে পাকিস্তান

শোয়েব মালিককে ‘দুলাভাই’ ‘দুলাভাই’ বলে ডাকল ভারতীয় দর্শকরা (ভিডিও)

পরবর্তী খবর

জানা গেল স্কুলশিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার তারিখ

অনলাইন ডেস্ক

জানা গেল স্কুলশিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার তারিখ

স্কুলশিক্ষার্থীদের করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়ার ঘোষণা দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। আগামী ১ নভেম্বর থেকে তাদের এই টিকা দেওয়া হবে। বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) মন্ত্রিপরিষদ বৈঠক শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে ঢাকায় ১২টি কেন্দ্রে টিকা দেওয়া শুরু হবে। প্রতিদিন ৪০ হাজার শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া হবে। তালিকা পাওয়া সাপেক্ষে এই টিকা কার্যক্রম চলবে।


বিস্তারিত আসছে...

আরও পড়ুন:

মেডিকেল শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন প্রধান বিচারপতির


news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

বিএনপি কর্মসূচির নামে সন্ত্রাস-জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে প্রতিহত করা হবে: কাদের

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপি কর্মসূচির নামে সন্ত্রাস-জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে প্রতিহত করা হবে: কাদের

বিএনপি কর্মসূচির নামে কোনরূপ সন্ত্রাস ও জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে আওয়ামী লীগ জনগণকে সাথে নিয়ে কঠোরভাবে প্রতিহত করবে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের তাঁর বাসভবনে ব্রিফিংকালে বিএনপিকে সতর্ক করে দিয়ে একথা বলেন।  

তিনি বলেন, সভা-সমাবেশ সকলের সাংবিধানিক অধিকার কিন্তু সমাবেশের অনুমতি না দিলে বিএনপি বলতো সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না,আর অনুমতি দিলে হামলা,সন্ত্রাস সৃষ্টি করে জনগণের সম্পদ বিনষ্ট করে।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, বিএনপির কর্মসূচি মানেই জনগণের মাঝে আতংক সৃষ্টি করা। শেখ হাসিনা সরকার কখনো খালি মাঠে গোল দিতে চায় না,সরকার চায় প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন, আর খালি মাঠে গোল দিতে আওয়ামী লীগ অভ্যস্তও নয়। বরং বিএনপিই জন্ম লগ্ন থেকে এ চর্চা করে আসছে। 

তিনি বলেন,  ১৫ ই ফেব্রুয়ারীর খালি মাঠে নির্বাচনে কথা বিএনপি ভুলে গেলেও জনগণ এখনও ভুলেনি। বিএনপি নেতারা তাদের ব্যর্থতা আড়াল করতে ও কর্মী সমর্থকদের রোষানল থেকে বাঁচার জন্য এসব বক্তব্য দিচ্ছেন বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবারও বলেন  নির্বাচন আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে নয়, নির্বাচন হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে। পূজা মণ্ডপের ঘটনায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে সরকারের মামলা দেওয়ার অভিযোগ সত্য নয় জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, কে কোন দল করে সেটা দেখে নয়, ভিডিও ফুটেজ দেখেই চিহ্নিতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। 

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার মাধ্যমে বিএনপি পরিস্থিতি ঘোলাটে করতে চেয়েছিল কিন্তু সরকার তা শক্ত হাতে দমন করেছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি জাতিকে বিভ্রান্ত করছে এবং  বিভেদ তৈরি করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করছে দেশকে উন্নয়নের সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে নিতে আর এটাই বিএনপি'র গাত্রদাহের কারণ বলেও মনে করেন ওবায়দুল কাদের। 

তিনি বলেন, গত মঙ্গলবার নয়াপল্টনে পুলিশের উপর হামলা এবং সন্ত্রাস সৃষ্টির মাধ্যমে বিএনপি প্রমাণ করেছে তারা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনে সক্ষম নয় তাদের কর্মসূচি মানে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা। ঙ্গলবারের কথিত সম্প্রীতি সমাবেশের আড়ালে বিএনপির ভিন্ন কোন এজেন্ডা ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখা দরকার।ব

ওবায়দুল কাদের প্রশ্ন রেখে বলেন,তবে কি অপরাধীদের বাঁচানোর জন্যই সম্প্রীতি সমাবেশের নামে বিএনপির এ সন্ত্রাস? তিনি আরও বলেন, আসলে হামলা,সংঘর্ষ, ষড়যন্ত্র আর সন্ত্রাসী বিএনপির রাজনীতি, সেটা পূজামণ্ডপে হোক আর নয়াপল্টনে হোক বিএনপি এই বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে পারছে না। 

আরও পড়ুন:


বিয়েতে মাংস বেশি খেয়েছে, নববধূকে তালাক!

আসছে ইউনিসেক্স কনডম, ব্যবহার করতে পারবে নারী-পুরুষ উভয়ই


স্থানীয় সরকার নির্বাচনের পরবর্তী ধাপে যে সকল এলাকায নির্বাচন হবে সে সকল এলাকার আওয়ামী লীগের প্রতিটি সাংগঠনিক ইউনিটকে এখন থেকেই প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন ইউনিটসমূহকে এখন থেকেই মিটিং করে রেজুলেশন প্রস্তুত করতে হবে।

তিনি বলেন, যখন যে এলাকার জন্য নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হবে তার পরপরই ইউনিয়ন থেকে উপজেলা এবং জেলা হয়ে রেজুলেশন কেন্দ্রে জমা দিতে হবে। 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তফসিল ঘোষণার সাথে সাথেই সংশ্লিষ্ট এলাকার রেজুলেশন জমা দেওয়া নিশ্চিত করতে এখন থেকে সভা করে আগেই রেজুলেশন তৈরির কাজ করার নির্দেশনা দেন। 

news24bd.tv রিমু    

 

পরবর্তী খবর