কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সভাপতির বাসায় ককটেল হামলার অভিযোগ

আকবর হোসেন সোহাগ, নোয়াখালী


কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সভাপতির বাসায় ককটেল হামলার অভিযোগ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খানের (৭৫) বাসায় ককটেল হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে এ ঘটনায় কেউ আহত হয়নি।

শনিবার (৯ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের খিজির হায়াত মঞ্জিলে এ ককটেল হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা।।

খিজির হায়াত জানান, তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের রাজনীতি নিয়ে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার তার বিরোধ বেঁধে যায়। ওই বিরোধের জের ধরে মির্জা কাদেরের নির্দেশে তার কয়েকজন অনুসারী এই ককটেল হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। হামলায় কাঁচের বড় বড় দুটি জানালা ভেঙে চুরমার হয়ে যায়। একের পর এক ককটেল বিস্ফোরণের আওয়াজে আমরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ি।

খিজির হায়াত খানের সহধর্মিনী ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আরজুমান পারভিন রুনু দাবি করেন, রাত সাড়ে ১০টার দিকে ১৫-২০ জন কাদের মির্জার অনুসারী সিএনজি চালিত অটোরিকশা যোগে আমাদের বাসার সামনের সড়কে এসে দাঁড়ায়। এরপর তারা আমাদের বাসার সীমানায় প্রবেশ করে বাসা লক্ষ্য করে ককটেল ছুঁড়তে থাকে। এ সময় তারা বিকট শব্দে ৬টির মত ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। বিস্ফোরণের আওয়াজ শুনে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে তারা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায়। এ হামলার কিছু দৃশ্য আমাদের সিসি ক্যামেরায় দেখা যায়। যা আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ করেছি।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে ৫৩ সেকেন্ডের একটি ভিডিও দেখা যায, মুখোশধারী ৫-৬ জন যুবক দেশীয় অস্ত্র হাতে খিজির হায়াত খানের বাসার একেবারে কাছাকাছি চলে আসে। এরপর তারা কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পুনরায় রাস্তার দিকে চলে যায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে পারিবারিক বিরোধকে কেন্দ্র করে বসুরহাট পৌরসভার ৬নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও কাদের মির্জার ঘনিষ্ঠ সহযোগী আনোয়ার হোসেন চৌধুরী শিমুলের (৪৩) মাথা পাটিয়ে দেয় একই বাড়ির এক যুবক। কাদের মির্জার অনুসারীরা অভিযোগ করে কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামীলীগের দুটি গ্রুপের মধ্যে বিবদমান দ্বন্দ্বের জেরে কাদের মির্জার প্রতিপক্ষ নোয়াখালী জেলা পরিষদের সদস্য আকরাম উদ্দিন সবুজের ছেলে মঞ্জিল তার মাথা ফাটিয়ে দেয়। পরে এ ঘটনার জের ধরে রাত পৌনে ১০টার দিকে কাদের মির্জার অনুসারীরা আকরাম উদ্দিন সবুজের বসুরহাট নতুন বাস স্টানে অবস্থিত ড্রীম লাইন বাস কাউন্টারে অগ্নি সংযোগে করে। স্থানীয়দের তৎপরতায় ফায়ার সার্ভিস তাৎক্ষণিক আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। একপর্যায়ে কাদের মির্জার অনুসারীরা রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খিজির হায়াত খানের বাসায় ককটেল হামলা চালায়।

স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, হামলার ঘটনার জের ধরে স্থানীয় আওয়ামী লীগের কাদের মির্জা ও খিজির হায়াত খান-মিজানুর রহমানের অনুসারীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। তবে যে কোনো মুহূর্তে ফের রক্তক্ষয়ী সংঘাতের আশঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় লোকজন।

এ বিষয়ে মতামত জানতে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার ফোনে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

আরও পড়ুন:


রোববার রাজধানীর যেসব এলাকার মার্কেট বন্ধ থাকবে

প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ১৩ বছর বয়সী কিশোরীকে দুদিন ধরে ধর্ষণ

নির্বাচন কমিশন নিয়ে রাজনীতিতে আবারও উত্তাপ, যা বলছে বিএনপি-আ.লীগ

পল্লবী থেকে উধাও হওয়া সেই ৩ বান্ধবীকে দেওয়া হল পরিবারের জিম্মায়


কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো. সাইফুদ্দিন আনোয়ার জানান, উপজেলা আওয়া মীলীগ সভাপতির বাসায় ককটেল হামলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সাবেক কাউন্সিলর শিমুল চৌধুরীর ওপর হামলার ঘটনা স্বীকার করে বলেন, তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, ড্রীম লাইন বাস কাউন্টারে অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তরা অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটায়। তবে ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

উল্লেখ্য, এর আগে চলতি বছরের ৮ মার্চ বিকেল ৫টার দিকে উপজেলার বসুরহাট পৌরসভা এলাকার বসুরহাট বাজারের রুপালী চত্বরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খানের ওপর আবদুল কাদের মির্জার নেতৃত্বে হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া যায়।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

মহেশখালীতে সাবেক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

মহেশখালীতে সাবেক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

কক্সবাজারের মহেশখালীতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মো: রুহুল কাদের (৩৫) নামের সাবেক এক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত রুহুল কাদের মহেশখালী উপজেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সহ-সভাপতি।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) দিবাগত রাত ১০ টার দিকে উপজেলার কালামারছড়ার ইউনিয়নের ফকিরজুমপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত রুহুল ওই এলাকার মোহাম্মদ আমিনের ছেলে। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রুহুল রাত ১০টার দিকে মহেশখালী উপজেলার কালারমার ছড়া বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। এসময় ফকিরজুম পাড়ায় পৌঁছলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিতভাবে তাকে সিএনজি থেকে নামিয়ে প্রথমে কুপিয়ে পরে গুলি করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

আরও পড়ুন


পূজামণ্ডপ কেন্দ্রিক ‘অপ্রীতিকর ঘটনায়’ ৭১ মামলায় আটক ৪৫০

শুধু তামিম নয়, বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি আরও একজন: পাপন

তথ্য প্রতিমন্ত্রী শপথ ভঙ্গ করেছে, তার পদত্যাগ করা উচিত: জিএম কাদের

বিসিবি সভাপতির কাঠগড়ায় তিন 'সিনিয়র' খেলোয়াড়


এসময় স্থানীয়রা রুহুল কাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে কালারমার ছড়া উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও পরে আশংকাজনক অবস্থায় চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: আব্দুল হাই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। এসময় তিনি জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ খুনের ঘটনা ঘটতে পারে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। 

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বাঘের খাঁচায় আরো দুই শাবক

নয়ন বড়ুয়া জয়

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বাঘের খাঁচায় আরো দুই শাবক

চট্টগ্রামের চিড়িয়াখানায়  বাঘের খাঁচায় আরো দুই শাবক। মা জয়া নামে বাঘিনীর আদরেই বড় হচ্ছে  এসব শাবক। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ বলছে, চট্টগ্রামের চিড়িয়াখানায় এখন এক ডজন বাঘ।দর্শনার্থীরাও বাঘ দেখে খুশি। 

বনের বাঘ এখন খাঁচায়, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় একের পর এক জন্ম দেয় বাঘের শাবক। সম্প্রতি আরো দুই শাবক জন্ম দিয়েছে মা জয়া। ২০২০ সালের ১৪ নভেম্বর জয়া বাঘিনী জো বাইডেন নামে ছেলে বাঘ শাবকের জন্ম দেয় ।যা তার প্রথম সন্তান ছিল। জো বাইডেনের প্রতি বিমাতাসুলভ আচরণ করায় সেটিকে চিড়িয়াখানার তত্ত্বাবধানে লালন পালন করা হয়েছিল।তবে এবার দুই শাবকই মায়ের  আদরেই বড় হচ্ছে।

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় কোন বাঘ না থাকায় ২০১৬ সালে আফ্রিকা থেকে রাজ-পরি নামে  দুই বাঘ আনা হলেও এখন  নতুন দুই শাবকসহ এই চিড়িয়াখানার বাঘের খাঁচায়  এক ডজন বাঘ।

বাঘের ঝাঁক দেখে খুশি দর্শনার্থীরা। শুধু বাঘ নয় হাতিসহ আরো নতুন নতুন প্রানী যুক্ত করার চেষ্টা করছে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। কিছুদিন আগেও বিরল সাদা বাঘ শুভ্রা জন্ম দিয়েছে আরেকটি ফুটফুটে ডোরাকাটা শাবক।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় ৬০ মামলা, গ্রেপ্তার ২৬৩

অনলাইন ডেস্ক

সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় ৬০ মামলা, গ্রেপ্তার ২৬৩

দেশের বিভিন্ন স্থানে মন্দির ও বাড়িঘরে ভাঙচুর এবং হামলার ঘটনায় ৬০টি মামলা হয়েছে। আসামি করা হয়েছে ৮ হাজার ৯৪৯ জনকে। এরমধ্যে এখন পর্যন্ত বিভিন্ন জেলার ২৬৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে ‘কোরআন’ পাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এসব ঘটনা ঘটে।

তথ্যমতে, ঘটনার কেন্দ্রস্থল কুমিল্লায় সহিংসতার ঘটনায় ১ হাজার ৫৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৪৪ জনকে। নোয়াখালীতে ৫ হাজার জনকে আসামি করে ৯০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


এছাড়া বাগেরহাটে ৪, পাবনায় ৩, চাঁপাইনবাবঞ্জে ১০, সিলেটে ২০, মৌলভীবাজারে ২, কুড়িগ্রামে ২১, গাজীপুরে ২০, কিশোরগঞ্জে ৪, মাদারীপুরে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সবশেষ গতকাল রোববার (১৭ অক্টোবর) রাতে রংপুরের পীরগঞ্জে হিন্দুদের বাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। পীরগঞ্জে হামলায় ২০টি বাড়িঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় ৪৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

শেখ রাসেলের জন্মদিনে নয়াদিল্লিতে বৃক্ষ রোপণ

অনলাইন ডেস্ক

শেখ রাসেলের জন্মদিনে নয়াদিল্লিতে বৃক্ষ রোপণ

ভারতের নয়াদিল্লিস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশন আজ দূতালয় চত্বরে উন্নত প্রজাতির ১০০টি বৃক্ষ রোপণ করা হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে এই আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশের হাই কমিশনার মুহাম্মদ ইমরান বৃক্ষরোপন করে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এ সময় দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের জন্মদিনে শত বৃক্ষ রোপনের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। 

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


বৃক্ষরোপনে সহযোগিতা করেন দিল্লীর খ্যাতনামা স্বেচ্ছাসেবক সংগঠন প্লানটোলজি। বৃক্ষ রোপনের সময়ে প্লানটোলজির নির্বাহী প্রধান রাধুকা আনন্দও  একটি বৃক্ষ রোপন করেন।

পরে শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে দূতাবাস আয়োজিত অনুষ্ঠানে শিশুদের চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সন্তানরা।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

হাসপাতালে চলছিলো রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের বৈঠক, হাতেনাতে ধরা ১৭ জন

অনলাইন ডেস্ক

হাসপাতালে চলছিলো রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের বৈঠক, হাতেনাতে ধরা ১৭ জন

শেরপুর শহরের নারায়ণপুর এলাকার একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে ১৭ জামায়াত নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। আজ বিকেলে তাদের আটক করা হয়। 

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সাম্প্রতিক কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে কুরআন শরীফ নিয়ে তৈরিকৃত সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা, অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির লক্ষে দারুস শিফা প্রাইভেট হাসপাতালে জামায়াত নেতাকর্মীরা রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের জন্য গোপন বৈঠকে মিলিত হন। খবর পেয়ে গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) কর্মকর্তা ও পুলিশ অভিযান চালায়। পরে হাসপাতালটির ৯নং কক্ষ থেকে বৈঠক চলাকালে ১৭ নেতাকর্মীকে হাতেনাতে আটক করা হয়। আটকের সময় তাদের কাছ থেকে ২৩টি মোবাইলসহ কিছু আলামত জব্দ করা হয়।

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


তবে আটককৃতদের দাবি, তারা ওই হাসপাতাল পরিচালনার সঙ্গে জড়িত। সেখানে রাষ্ট্র বা সরকারবিরোধী কোনো গোপন বৈঠক ছিল না।

এ ব্যাপারে শেরপুর সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বন্দে আলী জানান, এনএসআই’র গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাদের আটক করা হয়েছে। তবে তারা কী উদ্দেশ্যে সেখানে সমবেত হয়েছিলেন জিজ্ঞাসাবাদের পর জানা যাবে। রাষ্ট্রদ্রোহের কোনো প্রমাণ পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর