নারীর চিৎকারে ধরা পুলিশ
নারীর চিৎকারে ধরা পুলিশ

নারীর চিৎকারে ধরা পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক

উল্লাপাড়ায় এক নারীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগে এক পুলিশ কনস্টেবলকে আটক করা হয়েছে। তার নাম মাজেদুল ইসলাম বাবু (২৬)।

শুক্রবার উল্লাপাড়ায় ওই নারীর বাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

মাজেদুল ইসলাম বাবু উল্লাপাড়া উপজেলার ভদ্রকোল গ্রামের আলতাব হোসেনের ছেলে।

বর্তমানে তিনি গুলশান-২ থানায় কর্মরত।

উপজেলার মনিরপুর গ্রামের ওই নারী শুক্রবার উল্লাপাড়া মডেল থানায় অভিযোগপত্র দেন।

এতে তিনি বলেন, ১২ বছর আগে ভদ্রকোল গ্রামে বিয়ে হয় তার। বিয়ের পর তাদের একটি পুত্র সন্তান জন্ম নেয়। কিন্তু বিয়ের কয়েক বছর পর থেকে প্রতিবেশী পুলিশ কনস্টেবল মাজেদুল ইসলাম বাবু তাকে বিয়ে করার জন্য নানাভাবে প্রস্তাব দেন। এক পর্যায়ে স্বামীকে তালাক দিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান তিনি।

এরপর থেকে ছুটিতে বাড়িতে এসে নিয়মিত ওই নারীর সঙ্গে যোগাযোগ করে মাজেদুল এবং তাকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে অনেকবার শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে।

মাঝে কিছুদিন ঢাকার গাজীপুরে একটি বাসা ভাড়া করে তাকে সেই বাসায় নিয়ে রাখেন।

আরও পড়ুন: ‌


সাপ নিতে লাগছে ক্রেন, ভাইরাল ভিডিও নিয়ে নাটকীয়তা

পূজামণ্ডপে হামলা, নুরের দলের নেতাকর্মী গ্রেপ্তার

‘রাস্তায় নামাজ মানুষের জন্য সমস্যার’ আমিরের বিজ্ঞাপনের উত্তরে বিজেপি নেতা

পীরগঞ্জে সহিংসতার ঘটনায় গ্রেপ্তার আরও ৪

পরে তাকে বিয়ে না করে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। এক পর্যায়ে গত বুধবার রাতে মাজেদুল উল্লাপাড়ায় তার বাবার বাড়িতে গিয়ে তাকে ফুসলিয়ে ধর্ষণ করে।

শুক্রবার সকালে মাজেদুল তাদের ঘর থেকে বের হওয়ার সময় ওই নারী চিৎকার করে। এরপর বাড়ির লোকজন মাজেদুলকে আটক করে।

পরে উল্লাপাড়া থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তাকে থানায় নিয়ে আসে।

উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হুমায়ন কবির জানান, কনস্টেবল মাজেদুল থানা আটক আছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে পুলিশ। ঘটনার সত্যতা প্রমাণ পেলে তিনি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে মাজেদুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য লিখিত প্রতিবেদন দেবেন।

news24bd.tv/তৌহিদ

সম্পর্কিত খবর

;