ইউক্রেন সংকট: নিরাপত্তা পরিষদে মার্কিন-রাশিয়ার দোষারোপ
ইউক্রেন সংকট: নিরাপত্তা পরিষদে মার্কিন-রাশিয়ার দোষারোপ

সংগৃহীত ছবি

ইউক্রেন সংকট: নিরাপত্তা পরিষদে মার্কিন-রাশিয়ার দোষারোপ

অনলাইন ডেস্ক

রাশিয়া এবং ইউক্রেন সীমান্তে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাওয়ায় স্থানীয় সময় সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে বিতর্কে জড়িয়েছে মার্কিন-রাশিয়ার দুই দেশের রাষ্ট্রদূত। এদিন তারা একে অন্যকে দোষারোপ করেন।

জাতিসংঘে নিযুক্ত রাশিয়ার দূত ভ্যাসিলি নেবেঞ্জা বলেন,  ইউক্রেনের সীমান্তে রুশ বাহিনী মোতায়েন করা হলেও উসকানিমূলক নয়। যা পশ্চিমারা আগ্রাসনের হুমকি বলছে।

অন্যদিকে জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত লিন্ডা থমাস-গ্রিনফিল্ড বলেন, রাশিয়ার অগ্রহণযোগ্য চূড়ান্ত শর্ত, যুদ্ধের উদ্দীপনা জাগাতে ইউক্রেনের সাথে সীমান্তে এক লাখের বেশি রুশ সেনা মোতায়েন করেছে। ইউক্রেন ইস্যুতে উত্তেজনা হ্রাসে নিরাপত্তা পরিষদের সভা থেকে বিশ্বকে এক কণ্ঠে  বলার জন্য শক্তির ব্যবহার প্রত্যাখ্যান করা। সামরিক ডি-এস্কেলেশনের আহ্বান জানানো, কূটনীতিকে এগিয়ে যাওয়ার সর্বোত্তম পথ হিসাবে সমর্থন করা এবং প্রতিটি সদস্য রাষ্ট্রের কাছে জবাবদিহিতার দাবি করা হয়।  

আরও পড়ুন:


বিশ্বে করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যু কমেছে


প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ইউক্রেনের পূর্ব সীমান্তে বিপুলসংখ্যক রুশ সেনা মোতায়েন নিয়ে মস্কোর সঙ্গে ইউক্রেন ও পশ্চিমা দেশগুলোর উত্তেজনা চলছে। কিয়েভ ও পশ্চিমা দেশগুলোর আশঙ্কা, ইউক্রেনে সামরিক হস্তক্ষেপের পরিকল্পনা করছে মস্কো। তবে মস্কো এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। চলমান এই উত্তেজনার মধ্যেই নিরাপত্তা পরিষদে বৈঠক আহ্বান করে যুক্তরাষ্ট্র।

news24bd.tv রিমু