কোচের মেয়েকে পটিয়ে বিশ্বকাপে তোরেস
কোচের মেয়েকে পটিয়ে বিশ্বকাপে তোরেস

সংগৃহীত ছবি

কোচের মেয়েকে পটিয়ে বিশ্বকাপে তোরেস

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বকাপ একটা স্বপ্ন। যেই স্বপ্ন বুকে লালন করে ফুটবলে পা বাড়ায় তরুণ প্রজন্ম। স্প্যানিশ তরুণ ফেরান তোরেসের গল্পটাও ব্যতিক্রম নয়। প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে তার।

কোচ লুইস এনরিকের আস্থাভাজন হয়ে উঠেছেন ২২ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। তবে কোচের আস্থাভাজন হওয়ার আগে এনরিকের মেয়ে সিরা মার্টিনেজকে পটিয়েছেন বার্সেলোনার হয়ে খেলা এই তরুণ। যা তার দলে থাকাকে করেছে আরো পাকাপোক্ত।

মেয়েকে পটিয়ে বিশ্বকাপের দলে জায়গা পেয়েছেন বললে তোরেসের উপর অবিচার করা হবে।

কেননা যোগ্যতার সকল পরীক্ষায় পাস করেই দলে ডাক পেয়েছেন তিনি। ম্যানচেস্টার সিটি মাতিয়ে সবশেষ মৌসুমে যোগ দিয়েছেন বার্সায়। এরইমধ্যে ৩১ ম্যাচে মাঠে নেমে করেছেন ৬ গোল। জাতীয় দলের জার্সিতে সুযোগ হয় ২০২০ সালে। সেই থেকে এখন পর্যন্ত ৩১ ম্যাচে মাঠে নেমে ১৩টি গোল এসেছে তার পা থেকে। এনরিকের বিশ্বকাপ দলে অন্যতম আস্থার নাম এখন তোরেস।

কোচের মেয়ের সাথে প্রেম ও মাঠের চ্যালেঞ্জ সামলানো কতটা কঠিন এমন প্রশ্নে তোরেস বলেন, ‘মোটেই না। আমি মনে করি কোচ এবং আমি, আমরা জানি এটি পারিবারিক। কাজেই কোচ এবং প্লেয়ার এর মধ্যে পার্থক্য করতে পারি আমরা। আমি মনে করি আমাদের এটিকে স্বাভাবিক উপায়ে নিয়ে যেতে হবে। আমরা ঠিকঠাক হয়ে যাচ্ছি। ’

এ নিয়ে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল লুইস এনরিককেও। কোন ফুটবলারকে তিনি সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন এমন প্রশ্নের উত্তরে বেশ রসিকতা করেছেন এনরিকে।

এনরিকে বলেন, ‘এটি আমার জন্য খুব সহজ। এটি ফেরান তোরেস। কারণ তা না হলে আমার মেয়ে আমাকে ধরে মাথা কেটে ফেলবে। ’

উল্লেখ্য, কোস্টারিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে স্পেন। আগামী ২৩ নভেম্বর বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় মাঠে গড়াবে ম্যাচটি। তবে একাদশে থাকছেন তোরেস এটুকু নিশ্চিতভাবেই বলা যায়।

news24bd.tv/আমিরুল