তারা গোটা কোভিডকে নিয়ে ব্যবসা করেছে: ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক

তারা গোটা কোভিডকে নিয়ে ব্যবসা করেছে: ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আমরা আমাদের অধিকারগুলোকে প্রতিষ্ঠা করতে চাই। আমাদের যে অধিকারগুলোকে আজ এই ফ্যাসিস্ট সরকার সম্পূর্ণভাবে রাষ্ট্রযন্ত্রের দানব শক্তি ব্যবহার করে কেড়ে নিয়েছে, সেই শক্তিকে সরিয়ে আমরা সত্যিকার অর্থেই একটা জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে চাই। এজন্যই এত ত্যাগ, এত অশ্রু, এত ব্যথা, এত বেদনা। আমরা প্রায় প্রত্যেক বছর আপনাদের সামনে যখন এভাবে উপস্থিত হই, নিজেদেরকে মাঝে মাঝে খুব অপরাধী মনে হয়।’

‘অপরাধী মনে হয় এজন্য যে- আমরা এখন পর্যন্ত অবস্থার পরিবর্তন করতে পারিনি। একটি ভয়াবহ ফ্যাসিস্ট শক্তি আমাদের সব অর্জনগুলোকে ধ্বংস করে দিয়ে, মানুষের প্রতি মানুষের যে ভালবাসা ছিল সেটা নষ্ট করে দিয়ে, আমাদের স্বপ্নগুলোকে ভেঙে চুরমার করে দিয়ে একটা দানবীয় শক্তি হয়ে আমাদের ওপর তাণ্ডব নৃত্য করছে। এটাই বাস্তবতা।’

এই ধরনের অনুষ্ঠান প্রতিবছর আমাদের আবেগ-আপ্লুত করে জানিয়ে ফখরুল বলেন, আমরা যখন আমাদের সামনে এই পরিবারের সদস্যদের দেখতে পাই, যারা তাদের সন্তান, ভাই বা স্বামীর ছবি নিয়ে এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন, এটা আমাদের ভারাক্রান্ত করে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সাহেব বিগত ছয়-সাত বছর ধরেই এই পরিবারগুলোকে চিহ্নিত করেছেন, তাদের তালিকা তৈরি করেছেন এবং আমাদের বিভিন্ন অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীদের সহযোগিতায় বিএনপি তাদের কাছে ঈদের আগে যৎসামান্য কিছু উপহার-সামগ্রী প্রদান করেছে।

‘এত মানুষকে যে প্রাণ দিতে হয়েছে, এত তরুণদেরকে যে চলে যেতে হয়েছে, অবশ্যই সরকারকে এর জবাব দিতে হবে। যারা গুম হয়েছে, নিখোঁজ হয়েছে, তাদের পরিবারের কাছে তাদেরকে জবাব দিতে হবে, পুরো জাতির কাছে জবাব দিতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা ইতিহাসে দেখেছি, বিভিন্ন সময়ে যেসব সরকার বিচার করে ক্ষমতায় থাকে তাদের এসব কৌশল নিতে হয়, ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য। কেননা জনগণের সঙ্গে তাদের কোনো সম্পর্ক থাকে না। যেহেতু তারা গণবিচ্ছিন্ন সে কারণে তাদেরকে এই অত্যাচার-নির্যাতন-নিপীড়ন-হত্যা-গুম করে টিকে থাকতে হয়। এটা আজকের বিষয় নয়।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের সব সময় একটা কথা মনে রাখতে হবে- আমরা যে লড়াই করছি, যুদ্ধ করছি, সংগ্রাম করছি, এটা আমরা রাষ্ট্রযন্ত্রের সঙ্গে করছি। রাষ্ট্রযন্ত্র এই রাষ্ট্রকে আজ দখল করে ফেলেছে। প্রশাসন, মিডিয়া, ইলেকশন কমিশন, পার্লামেন্ট সব কিছু দখল করেছে, এটাই তাদের চরিত্র। এটা আমাদের ভাঙতে হবে। অবশ্যই আমরা তাদেরকে পরাজিত করতে সক্ষম হবো। এই রক্তের ধারা কখনো বৃথা যেতে পারে না। আমরা অবশ্যই বিজয়ী হবো।’

তিনি বলেন, ‘আজ দেখুন দেশের কী অবস্থা। আজ আরেকটা দানবীয় শক্তি করোনাভাইরাস গোটা বিশ্বকে গ্রাস করেছে। এটা ছোটখাটো বিষয় নয়। মানুষ পথ খুঁজে পাচ্ছে না। বড় বড় বিজ্ঞানীরা চূড়ান্তভাবে বলতে পারছে না, কোনটা সঠিক ভ্যাকসিন কোনটা না। আজকে এই সরকার কী করেছে? যেহেতু তাদের জনগণের কাছে জবাবদিহিতা নেই, যেহেতু তাদের কখনোই কোনো জবাব দিতে হয় না কারো কাছে, তারা গোটা কোভিডকে নিয়ে ব্যবসা করেছে। জনগণ হাসপাতাল থেকে হাসপাতালে ছুটে বেড়াচ্ছে একটা আইসিউ পায় না। দেড় বছর ধরে এই অবস্থা চলছে, তারা এদিকে লক্ষ্য রাখেনি। শুধু কী করে টাকা বানানো যাবে, কী করে দুর্নীতি করা যাবে তারা সেই কাজ করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আজ চতুর্দিকে তাকিয়ে দেখবেন যে, সরকার বলতে কিছু নেই। প্রশাসন বলতে কিছু নেই। কোথাও কোনো জবাবদিহিতা নেই। আজকের পত্রিকায় দেখলাম- ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তিনি তিন মাসের ছুটি নিয়ে আমেরিকা গেছেন। যখন দেশে এ ধরনের একটা ক্রাইসিস, যখন গরম ও কোভিডের মধ্যে মানুষের জীবন কাহিল অবস্থা, সেই সময়ে তিনি আমেরিকায় গিয়ে সেখান থেকে অফিস চালাবেন!’

পরবর্তী খবর

ক্ষমতায় থাকলে বিনয়ী হতে হয়: তথ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

ক্ষমতায় থাকলে বিনয়ী হতে হয়: তথ্যমন্ত্রী

দলের তরুণ নেতাকর্মীদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ক্ষমতায় থাকলে বিনয়ী হতে হয়। বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্বে উন্নয়নের সাথে যদি বিনয় যুক্ত হয় তাহলে দেশের মানুষ আবারো রায় দিয়ে আওয়ামী লীগকে এই দেশ পরিচালনার দায়িত্ব দিবে।  

তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টি ও দৃঢ়চেতা নেতৃত্বের কারণে আমরা পরপর তিনবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় গিয়েছি, তাই বলে অনেক নেতাকর্মীর মধ্যে আলস্য এসেছে, এই আলস্য কাম্য নয়। মনে রাখতে হবে বহু উন্নয়ন হয়েছে, সেই উন্নয়নের সাথে যদি আমাদের তরুণ কর্মীদের আস্ফালন থাকে মানুষ সেই উন্নয়ন ভুলে যাবে, আমাদেরকে পছন্দ করবে না। 

মঙ্গলবার বিকেলে শেখ হাসিনার ৪০ তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানরগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

চট্টগ্রাম থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহাতাব উদ্দিন চৌধুরী। প্রচার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুকের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন, যুগ্ম সম্পাদক সিটি মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী। 

বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, মুক্তিযোদ্ধা বদিউল আলম, আলহাজ আবদুচ ছালাম, নোমান আল মাহমুদ, শফিক আদনান, চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনি, এডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, চন্দন ধর, মশিউর রহমান চৌধুরী, আলহাজ দিদারুল আলম চৌধুরী, হাজী মোহাম্মদ হোসেন, সাইফুদ্দিন খালেদ বাহার, আবদুল লতিফ টিপু, জাহাঙ্গীর চৌধুরী সিইনসি, হাজী ইউনুছ কোম্পানি প্রমুখ। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

এর দায়িত্ব নেবে কে?

অনলাইন ডেস্ক

এর দায়িত্ব নেবে কে?

প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তার মুক্তি দাবি করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

ছাত্র, যুব ও শ্রমিক অধিকার পরিষদরে ডাকে আজ মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে জাফরুল্লাহ চৌধুরী এই দাবি জানান। 

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘আমলাদের মিষ্টি কথায় ভুলবেন না। অবিলম্বে রোজিনা ইসলামকে মুক্তি দিন। যেসব কর্মকর্তা-কর্মচারী তাঁর সঙ্গে অন্যায় করেছেন, তাঁদের অবিলম্বে জেলে পাঠান। রোজিনার পাশে আমরা সবাই আছি।’

জাফরুল্লাহ বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বুঝতে পারছেন না। তিনি অন্ধকার ঘরে বিড়াল খুঁজে বেড়াচ্ছেন। আমলারা তাঁকে অন্ধ করে রেখেছে। এ কারণে একের পর এক ভুল করে তিনি অন্যায় করছেন। ঈদ এমন একটি বিষয়, যখন সাধারণ মানুষ বছরে একবার বা দুবার তাঁদের পরিবার-পরিজনের সঙ্গে দেখা করতে যায়। কারও কথা না ভেবে আমলাদের কথা শুনে প্রধানমন্ত্রী মানুষের বাড়ি যাওয়া নাকচ করেছেন। সে জন্য আন্তজেলা বাস বন্ধ করা হয়েছে। কিন্তু আমলাদের একাধিক গাড়ি এখানে চলেছে। চিন্তা ছাড়া যানবাহন বন্ধ করায় জনগণের অন্তত ৫০০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। এর দায়িত্ব কে নেবে?’

news24bd.tv তৌহিদ

 

পরবর্তী খবর

সাংবাদিকদের নয়, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন : হানিফ

অনলাইন ডেস্ক

সাংবাদিকদের নয়, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন : হানিফ

অনুমতি ছাড়া করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের সরকারি নথির ছবি তোলার অভিযোগে দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ  সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এর প্রতিবাদে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে ডাকা সংবাদ সম্মেলন বয়কট করেছে সাংবাদিকরা। এবার সেই প্রতিবাদে শামিল হলেন সংসদ সদস্য মাহবুব উল আলম হানিফ।

মঙ্গলবার (১৮ মে) সন্ধ্যায় তার ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে তিনি এ ঘটনার প্রতিবাদ জানান।

ফেসবুক পোস্টে হানিফ লেখেন, ‘সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে নয়, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিলে দেশ-জাতি উপকৃত হবে।’

মঙ্গলবার (১৮ মে) সন্ধ্যা ৬টা ৫৯ মিনিটে এ পোস্ট করেন তিনি। এতে হাজার হাজার লাইক পড়ছে। 

ওই পোস্টে কমেন্ট করেছেন জিটিভির সিনিয়র কর্মকর্তা অঞ্জন রায়। কমেন্টে তিনি হানিফের সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘মাহবুবউল আলম হানিফ ভাই, শতভাগ একমত আপনার বক্তব্যের সাথে।’

এদিকে, মঙ্গলবার (১৮ মে) দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ডাকা সংবাদ সম্মেলন বয়কট করেছে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) ও বাংলাদেশ হেলথ রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএইচআরএফ)।


প্রসঙ্গত, অনুমতি ছাড়া করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের সরকারি নথির ছবি তোলার অভিযোগে দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে পাঁচ ঘণ্টা আটকে রাখার পর শাহবাগ থানা পুলিশে সোপর্দ করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

এরপর মঙ্গলবার (১৮ মে) সকালে তাকে আদালতে হাজির করে পাঁচদিনের রিমান্ডের আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরিফুর রহমান সরদার।

পরে রোজিনা ইসলামের রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত। এরপর প্রিজন ভ্যানে করে তাকে গাজীপুর জেলার কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগারে পাঠানো হয়।

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর

সাংবাদিক রোজিনার মুক্তির দাবি জানাল ন্যাপ

অনলাইন ডেস্ক

সাংবাদিক রোজিনার মুক্তির দাবি জানাল ন্যাপ

দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তার ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্ত দাবি এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য সচিবের পদত্যাগ চেয়েছে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (বাংলাদেশ ন্যাপ)। 

আজ সকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে দলটির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে তারা বলেন, রোজিনা ইসলাম বাংলাদেশের একজন সাহসী এবং জনপ্রিয় সাংবাদিক, যিনি বিভিন্ন অনুসন্ধানী রিপোর্ট করে ইতোমধ্যে বাংলাদেশের গণমানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন। সচিবালয়ের মতো একটি সুরক্ষিত জায়গায় একজন নারী সাংবাদিককে এভাবে ৫ ঘণ্টা বন্দি রেখে নির্যাতনের ঘটনা একটা লজ্জাজনক অধ্যায় এবং মধ্যযুগীয় বর্বরতার শামিল। এ ঘটনা স্বাধীন গণমাধ্যমের ইতিহাসে একটি কলঙ্কজনক অধ্যায়। অবিলম্বে রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তি চাই এবং দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত হওয়া এই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও সচিবের পদত্যাগ দাবি করছি।

নেতৃদ্বয় বলেন, সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের সঙ্গে যে মধ্যযুগীয় বর্বর আচরণ করা হয়েছে তা ন্যাক্কারজনক। এ ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন, ক্ষুব্ধ ও বিস্মিত। এটা স্বাধীন ও অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা এবং মুক্ত গণমাধ্যমের প্রতি ধারাবাহিক আক্রোশেরই প্রতিফলন।


স্বাস্থ্য বিভাগের পিয়ন থেকে শুরু করে ওপরের সবাই কোটি কোটি টাকার মালিক

যুদ্ধবিরতির জন্য ফিলিস্তিনিদের শর্ত মেনে নিতে বাধ্য হবে ইসরাইল: হামাস

রোজিনার মুক্তির দাবিতে শাহবাগ থানার সামনে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ

আরশের ছায়াতলে আশ্রয় পাবেন যে সাত ব্যক্তি


তারা বলেন, মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা করার ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্ত প্রয়োজন। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে জনগণের তথ্য পাওয়ার অধিকার নিশ্চিত করতে রোজিনা ইসলাম কাজ করছেন। তিনি তার প্রতিবেদনে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন দুর্নীতি ও অনিয়ম তুলে এনেছেন। এছাড়া করোনাকালীন জনগণের স্বাস্থ্য অধিকার রক্ষায় মন্ত্রণালয়ের দুর্বলতাগুলোও তার প্রতিবেদনে পরিষ্কারভাবে উঠে এসেছে। এসব প্রতিবেদন নিঃসন্দেহে স্বাস্থ্যখাতে সুশাসন ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। এমন একজন সাংবাদিককে পেশাগত কাজের সময় এভাবে আটক করা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। রোজিনাকে আটকের এ ঘটনা গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে একটি অত্যন্ত বাজে দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে, যা কোনোভাবেই প্রত্যাশিত নয়।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের মুক্তির দাবি জানাল বিএনপি

অনলাইন ডেস্ক

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের মুক্তির দাবি জানাল বিএনপি

প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে তার মুক্তির দাবি জানিয়েছে বিএনপি।

মঙ্গলবার (১৮ মে) দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে প্রথম আলোর সিনিয়র সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে ৫ ঘণ্টা আটক রেখে পুলিশের কাছে হস্তান্তর ও তার বিরুদ্ধে জিডি করার ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে তার মুক্তি দাবি করেন।


যুদ্ধবিরতির জন্য ফিলিস্তিনিদের শর্ত মেনে নিতে বাধ্য হবে ইসরাইল: হামাস

রোজিনার মুক্তির দাবিতে শাহবাগ থানার সামনে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ

আরশের ছায়াতলে আশ্রয় পাবেন যে সাত ব্যক্তি

আমলাতন্ত্রের দম্ভের হাত সাংবাদিক সমাজের গলা ধরেছে


# সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে আদালতে নেওয়া হয়েছে

রোজিনার মুক্তির দাবিতে শাহবাগ থানার সামনে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর