ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার যশোরে লিখিত অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার যশোরে লিখিত অভিযোগ

ইভ্যালির (সিইও) মো. রাসেল ও তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনের (প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান) বিরুদ্ধে এবার যশোরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন এক গ্রাহক। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাতে যশোরের কোতোয়ালি মডেল থানায় জাহাঙ্গীর আলম চঞ্চল নামে ওই গ্রাহক থানায় প্রতারণার অভিযোগ দেন। 

যশোরের কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগে জানা যায়, গত ২৯ মে ভোর রাত ৩টার দিকে ইভ্যালি থেকে এক লাখ ৩০ হাজার ১৪০ টাকা দিয়ে ভারতীয় বাজাজ কোম্পানির একটি পালসার মোটরসাইকেল কেনার জন্য টাকা দিয়েছিলেন জাহাঙ্গীর আলম চঞ্চল। টাকা পরিশোধের ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে পণ্যটি ডেলিভারি দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সাড়ে তিন মাস পার হলেও পণ্যটি ডেলিভারি দেওয়া হয়নি। তাদের হটলাইন নম্বরে যোগাযোগ করা হলেও কোনো সমাধান পাওয়া যায়নি। এভাবে দিনের পর দিন প্রতিষ্ঠানটি প্রতারণা করে আসছে।

আরও পড়ুন:


অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

ছাত্রকে যৌন হয়রানি ২৭ বছরের তরুণীর, ২০ বছরের কারাদণ্ড

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


ভুক্তভোগী জাহাঙ্গীর আলম চঞ্চল জানান, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি ডটকমের চমকপ্রদ বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট হয়ে পণ্য কিনতে ওই প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ ৩০ হাজার ১৪০ টাকা দিয়েছি। টাকা পরিশোধের সাড়ে তিন মাস হলেও আমার মোটরসাইকেলটি এখনো পাইনি। বিভিন্ন সময় তাদের হটলাইনে ফোন দিলে পণ্যটি দ্রুতই পাঠানো হবে এমন কথা বলা হয়। পরে ফোন দিলে আর রিসিভ করে না। তাই বাধ্য হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি।

যশোরের কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম জানান, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. রাসেল ও তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনের (প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান) বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

ফকির লালন সাঁইয়ের তিরোধান দিবস আজ, হচ্ছে না বাউল মেলা

জাহিদুজ্জামান, কুষ্টিয়া

ফকির লালন সাঁইয়ের তিরোধান দিবস আজ, হচ্ছে না বাউল মেলা

মরমী সাধক ফকির লালন সাঁইয়ের ১৩১তম তিরোধান দিবস আজ। করোনার কারণ দেখিয়ে এবারো বাউল মেলার আয়োজন বাতিল করেছে জেলা প্রশাসন।

তবে কুষ্টিয়ার ছেঁউড়িয়ায় আখড়াবাড়ি খোলা থাকায় জড়ো হয়েছেন সাধু-বাউল-ফকিররা। প্রথা অনুযায়ী তারা ভক্তি-শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন সাঁইজির চরণে।

এমন ঘোষণা দেয়া হয়েছে কয়েকদিন আগেই। ফকির লালনের দেহত্যাগের পর ১৩১ বছরে এবার দ্বিতীয়বারের মতো হচ্ছে না অনুষ্ঠান আয়োজন। তারপরও লালন ধামে অবস্থান নিয়েছেন সাধু-ফকির, বাউল-পাগলরা। জাতপাতহীন-মানবতার লালন দর্শন প্রচার হচ্ছে তারই গানে।

নিজস্ব রেওয়াজে ভক্তি-শ্রদ্ধা দিচ্ছেন লালন অনুসারীরা। তবে, অনুষ্ঠান না করার ঘোষণায় মর্মাহত তারা।

আখড়াবাড়ির বাইরে লালন একাডেমির মাঠে রোদ-বৃষ্টিতে কষ্ট করেও আছেন অনেক ফকির-বাউল।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

একাধিক ছাত্রীর সঙ্গে প্রেম, ঘরে স্ত্রী রেখেই স্কুলছাত্রীকে বিয়ে মাদ্রাসা শিক্ষকের

অনলাইন ডেস্ক

একাধিক ছাত্রীর সঙ্গে প্রেম, ঘরে স্ত্রী রেখেই স্কুলছাত্রীকে বিয়ে মাদ্রাসা শিক্ষকের

১৯ বছর বয়সী দশম শ্রেণির এক মাদরাসা ছাত্রীকে বিয়ে করার অভিযোগ উঠেছে সাতক্ষীরার তালার একই মাদরাসার শিক্ষক খায়রুল ইসলামের বিরুদ্ধে। খায়রুল ইসলাম মানিকহার দ্বিমুখী দাখিল মাদরাসার কম্পিউটার শিক্ষক ও ওমরপুর গ্রামের মৃত মুসলিম সানার ছেলে।

জানা গেছে, খায়রুল ইসলামের কাছে প্রাইভেট পড়তো ওই ছাত্রী। প্রাইভেট পড়ানোর সুযোগে কায়েক মাস আগে ওই ছাত্রীকে বিয়ে করেন খায়রুল। তিনি গত ১১ বছর আগে ওমরপুর এলাকার ওহাব মোড়লের মেয়ে তানিয়াকে বিয়ে করেন।

বিয়ের বিষয়ে খায়রুল ইসলাম বলেন, ‘আমার প্রথম স্ত্রীর অনুমতি নিয়েই ওই ছাত্রীকে বিয়ে করেছি। সে দশম শ্রেণিতে পড়লেও তার বয়স ১৯ বছর বলে দাবি করেন তিনি।

ওই ছাত্রীর পিতা বলেন, ‘খায়রুলকে আমি অনেক বিশ্বাস করতাম। আমার মেয়ে তার কাছে প্রাইভেট পড়তো। একমাত্র মেয়েকে ফুঁসলিয়ে বিয়ে করায় আমার স্ত্রী এবং আমি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছি।’

আরও পড়ুন


পাত্র দেখানোর কথা বলে তরুণীকে আটকে রেখে ৩ দিন ধরে লাগাতার ধর্ষণ ঘটকের

চাকরির কথা বলে তরুণীকে হোটেলে নিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে নূর

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসরের পর্দা উঠছে আজ

রোববার রাজধানীর যেসব এলাকার মার্কেট বন্ধ থাকবে


মানিকহার দ্বিমুখী দাখিল মাদরাসা সুপার ফজলুর রহমান জানান, আমি লোকমুখে শুনেছি খায়রুল আমাদের মাদরাসার এক ছাত্রীকে বিয়ে করেছে। কিন্তু এ ব্যাপারে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

খায়রুল ইসলামের প্রথম স্ত্রীর ভাই আজহারুল ইসলাম জানান, আমার বোনের সঙ্গে ১১ বছর আগে খায়রুলের বিবাহ হয়। সে সময় খায়রুলের কিছুই ছিল না। আমরা টাকা খরচ করে তাকে চাকরি পাইয়ে দিয়েছি। খায়রুল চাকরি পাওয়ার পর তার প্রতিষ্ঠানের একাধিক শিক্ষার্থীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক করে। এ নিয়ে ইতোপূর্বে একাধিকবার শালিসও হয়েছে। সম্প্রতি খায়রুল তার প্রতিষ্ঠানের এক শিক্ষার্থীকে বিয়ে করেছে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

পাত্র দেখানোর কথা বলে তরুণীকে আটকে রেখে ৩ দিন ধরে লাগাতার ধর্ষণ ঘটকের

অনলাইন ডেস্ক

পাত্র দেখানোর কথা বলে তরুণীকে আটকে রেখে ৩ দিন ধরে লাগাতার ধর্ষণ ঘটকের

পাত্র দেখানোর কথা বলে বগুড়ার শিবগঞ্জে এক কলেজছাত্রীকে অপহরণ করে আটকে রেখে ৩ দিন ধরে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ঘটক শাহিনুরের বিরুদ্ধে। পরে অপহৃত কলেজছাত্রীকে উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় ওই ঘটককেও গ্রেপ্তার করা হয়।

গতকাল শনিবার (১৬ অক্টোবর) রাত ১১টার দিকে ঘটককে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত শাহিনুর রহমান (৪৩) শিবগঞ্জ থানার রায়নগর ইউনিয়নের করতকোলা গ্রামের মৃত মোবারক প্রাং এর ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঘটক শাহিনুরের পেশা ঘটকালি। সেই সূত্রে ওই কলেজছাত্রীর বাবার সঙ্গে পরিচয় হয় তার। ভালো ছেলের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার কথা বলে ঘটক শাহিনুর ওই কলেজ ছাত্রীকে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যান।

গত ১৩ অক্টোবর সকাল ১০টার দিকে ওই ছাত্রী কলেজে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন। সন্ধ্যা পার হলেও বাড়ি না ফেরায় তার পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে খোঁজ শুরু করেন। একপর্যায়ে ঘটকের বাড়িতে গিয়ে ঘটককে না পেয়ে তাদের মনে সন্দেহ হয়। ঘটককে ফোন দিলে ফোন রিসিভ করেননি।

আরও পড়ুন


চাকরির কথা বলে তরুণীকে হোটেলে নিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে নূর

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসরের পর্দা উঠছে আজ

রোববার রাজধানীর যেসব এলাকার মার্কেট বন্ধ থাকবে

কানাডায় ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি: চ্যালেঞ্জ কোথায়?’ আলোচনা অনুষ্ঠিত


আরও জানা গেছে, কয়েকদিন ধরে ঘটক এবং ওই ছাত্রীর সন্ধান করতে গিয়ে জানতে পারে শিবগঞ্জ থানার রহবল এলাকায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে ঘটক তার মেয়েকে নিয়ে আত্মগোপন করে আছেন। শনিবার (১৬ আক্টোবর) রাতে ওই ছাত্রীর পরিবারের লোকজন সেখানে গেলে ঘটক পালানোর চেষ্টা করেন। এসময় স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করে গণধোলাই দেয়। পরে পুলিশে খবর দেয়া হলে ঘটক শাহিনুরকে গ্রেপ্তার এবং কলেজছাত্রীকে উদ্ধার করে। ঘটক শাহিনুর ভালো ছেলের সাথে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ইতোপূর্বে আরো ৩ জনকে বিয়ে করেন। কিন্তু পরে কেউ তার সংসার করেনি।

শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, অপহৃত কলেজছাত্রীকে ঘটক শাহিনুরের হেফাজত থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার হওয়া শাহিনুরের বিরুদ্ধে কলেজছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেন।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

চাকরির কথা বলে তরুণীকে হোটেলে নিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে নূর

অনলাইন ডেস্ক

চাকরির কথা বলে তরুণীকে হোটেলে নিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে নূর

চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় নিয়ে এক তরুণীকে পতিতাবৃত্তি করানোর অভিযোগে নুর আলম খান (৩৬) নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই যুবকতে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় পৌর শহরের রেডসন হোটেল থেকে গ্রেপ্তার করা হয় নুর আলমকে। এ ঘটনায় মানবপাচার আইনে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, খুলনা থেকে গত বৃহস্পতিবার চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ওই তরুণীকে কুয়াকাটায় নিয়ে আসে আলমগীর। পরে তাকে হোটেল রেডিসনে নিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিষয়টি জানতে পারে পুলিশ। পরে বিকালে হোটেল রেডিসনে অভিযান চালায় কুয়াকাটা ট্যুরিস্ট পুলিশ। এসময় ওই হোটেল থেকে আলমগীরকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং ওই তরুণীকে উদ্ধার করা হয়।

মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এ ঘটনায় মানবপাচার আইনে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

news24bd.tv এসএম

আরও পড়ুন


টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসরের পর্দা উঠছে আজ

রোববার রাজধানীর যেসব এলাকার মার্কেট বন্ধ থাকবে

কানাডায় ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি: চ্যালেঞ্জ কোথায়?’ আলোচনা অনুষ্ঠিত

ছড়াচ্ছিল দুর্গন্ধ, উৎস খুঁজতে গিয়ে মিলল চিকিৎসকের মরদেহ


 

পরবর্তী খবর

কিশোরী প্রেমিকাকে কাশবনে ডেকে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে দুই বন্ধু

অনলাইন ডেস্ক

কিশোরী প্রেমিকাকে কাশবনে ডেকে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে দুই বন্ধু

গাইবান্ধার দুর্গম বালু চরের কাশবনে ছবি তুলে দেওয়ার কথা বলে প্রেমিকা কিশোরীকে ডেকে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মাহবুব নামের এক যুবক ও তার বন্ধু পলাশের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় প্রেমিকসহ তার বন্ধুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) দিবাগত রাতে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ফুলছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাওসার আলী।

ওসি জানান, সাঘাটা উপজেলার মাহবুব নামের এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল গাইবান্ধা শহরের এক মেয়ের সঙ্গে। শুক্রবার মাহবুব তার বন্ধু পলাশকে সঙ্গে নিয়ে মেয়েটির সঙ্গে দেখা করতে আসে। পরে মেয়েটিকে ফুলছড়ি উপজেলার গজারিয়া চরে নিয়ে যায়। দুর্গম চরের কাশবনে ছবি তোলার সময় প্রেমিক মাহবুব প্রথমে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। পরে তার বন্ধু পলাশও ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন মেয়েটিকে উদ্ধার করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়।

আরও পড়ুন


মোস্তাফিজকে রুখে দেয়ার ইচ্ছে স্কটল্যান্ডের!

রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে আ.লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীকে গুলি করে হত্যা

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ: প্রথম দিনে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড

বঙ্গবন্ধু যেতেই গুলি বন্ধ করল বিডিআর


ঘটনাটি ধামাচাপা থাকলেও শনিবার রাতে বিষয়টি জানাজানি হয়। শনিবার রাতে ভুক্তভোগী কিশোরীর মা বাদী হয়ে ফুলছড়ি থানায় মামলা করলে পুলিশ অভিযান দিয়ে দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতার দুই আসামিকে রোববার আদালতে তোলা হবে বলেও জানান তিনি।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর