হাঁসের খামার করে স্বাবলম্বী কুড়িগ্রামের আবুল কালাম

হুমায়ুন কবির সূর্য্য, কুড়িগ্রাম

হাঁসের খামার করে স্বাবলম্বী কুড়িগ্রামের আবুল কালাম

 কুড়িগ্রামের চা দোকানদার আবুল কালাম আজাদ। প্রতিমাসে আয় করছেন লক্ষাধিক টাকা। গেল দুই বছরে শুধু নিজেই স্বাবলম্বী হননি, প্রেরণা যুগিয়েছেন অন্যদেরও। ফলে কুড়িগ্রামে তরুণরা হয়ে উঠছেন উদ্যোগী। 

চা দোকানের ব্যবসা ছেড়ে দু’বছর আগে হাঁস পালন শুরু করেন কুড়িগ্রামের উলিপুরের আবুল কালাম আজাদ। ৩০টি হাঁস দিয়ে শুরু হলেও এখন তার খামারে হাসের সংখ্যা ৬ হাজার। খামারে ডিম ফুটিয়ে বাচ্চা এবং ডিম বিক্রি করে প্রতি মাসে আয় করছেন দেড় থেকে দুই লাখ টাকা।

একসময় সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হতো আজাদকে। হাঁস চাষ করে এখন হাসিখুশি জীবন পার করছে তার পরিবার। পরিবারের সদস্যরা বলছেন, খামার করে স্বাবলম্বী তারা।

স্থানীয়রা বলছেন, আবুল কালামের কাজ দেখে বেকার যুবকরা খামার তৈরীতে উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন। তারা বলছেন, খামার করে অনের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হচ্ছে।


আরও পড়ুন: চাচীকে ধর্ষণ করে নগ্ন ভিডিও ধারণ: যুবলীগ নেতার বাড়ি থেকে অস্ত্র উদ্ধার


আজাদের অভিযোগ, খামার নিয়ে নানা প্রতিবন্ধকতাও আছে। প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তারা সহযোগীতা না করায় পাশের

উপজেলায় গিয়ে ওষুধ আনতে হয় তাকে। পড়তে হয় নানা বিড়ম্বনায়।

আবুল কালামের মত অন্য তরুণরা খামার ব্যবসায় এগিয়ে এলে দেশের আমিষের ঘাটতি পূরণ সম্ভব বলে জানান জেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা

ডা. মো. আব্দুল হাই। তিনি জানান, এভাবে সবাই এগিয়ে এলে বেকারত্বও দূর হবে।

হাঁস পালনের পাশাপাশি একই জায়গায় মুরগী এবং মাছ চাষও শুরু করেছেন আবুল কালাম।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য