দিহান আরও বলে, আমরা চারজনই তাকে বাসায় নিয়ে যাই: আনুশকার মা

অনলাইন ডেস্ক

দিহান আরও বলে, আমরা চারজনই তাকে বাসায় নিয়ে যাই: আনুশকার মা

আনুশকাকে অপহরণ করে বাসায় নিয়ে ধর্ষণ শেষে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই তরুণী মা। ইংরেজি মাধ্যমপড়ুয়া ওই স্কুলছাত্রীর মা জানিয়েছেন, গত ৭ জানুয়ারি দিহান ও তার সঙ্গীরা আমার মেয়েকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। বাসায় নিয়ে ধর্ষণ শেষে আমার মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: স্কুলছাত্রী আনুশকাহকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করল বন্ধু দিহান

সেই কবরটির একপাশে লেখা ইয়াসিন, অন্যপাশে মিম হা মিম

প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে ‘রাত্রিযাপনকালে যৌন উত্তেজক ট্যাবলেটসহ’ ধরা কৃষকলীগ নেতা

‘দিহান তখন ফোন দিয়ে জানায়। হাসপাতালে পায়ে ধরে কান্নাকাটি করে বলে, ‘আন্টি আমাকে বাঁচান।’ তখন দিহান আরও বলে, ‘আমরা চারজনই তাকে বাসায় নিয়ে যাই। আমার মেয়ে ফাঁকা বাসায় একা যাওয়ার কথা না’।

আজ বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

 কেই এই দিহান?

এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে অভিযোগ করেন তিনি।

‘আমার নিষ্পাপ মেয়েকে নিয়ে মিথ্যা প্রচারণা চালানো হচ্ছে। চরিত্রহনন করা হচ্ছে। এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে মিথ্যা প্রচারণাকারীদের সাইবার ট্রাইব্যুনালে বিচারের দাবি জানাচ্ছি।’

নার্সের কাণ্ড, করোনা রোগীর সঙ্গে যৌনতা, দেখুন ভিডিও

আনুশকার শরীরে মিলেছে রহস্যজনক ‘ফরেন বডির’ আলামত

বাবার টাকার দাপটে দিহানের বেপরোয়া জীবন যাপন

বিয়ের পরও পরকীয়া, মেয়েকে গুলি করে মারলেন বাবা!

দুইমাস আগে থেকেই আনুশকা-দিহানের সম্পর্ক

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কাজের কথা বলে তরুণীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

অনলাইন ডেস্ক

কাজের কথা বলে তরুণীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

কাজের সন্ধানে আসা স্বামী পরিত্যক্তা এক তরুণীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে। বগুড়ার শেরপুরে  ওই তরুণীকে কাজের কথা বলে বাড়িতে না নিয়ে তাকে একটি পুকুরপাড়ে নিয়ে যায় তারা।  সেখানে তাকে প্রাণনাশের ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক ওই নারীকে ধর্ষণ করতে থাকে। এসময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাদের হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

এ ঘটনায় শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে শেরপুর থানায় ভুক্তভোগী ওই নারী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়নের বাগড়া হঠাৎপাড়া গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে মামুন প্রামাণিক (৩৫), একই গ্রামের আবুল সেখের ছেলে আব্দুল খালেক (২৮) ও পৌরশহরের উত্তরসাহাপাড়া এলাকার সাইফুল সরকারের ছেলে সোহাগ সরকার (২২)।

মামলা সূত্রে জানা যায়, জেলার ধুনট উপজেলার গোসাইবাড়ী ইউনিয়নের গোসাইবাড়ী চিতুলিয়া গ্রামের আবিন সরকারের স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারী বাসা-বাড়িতে কাজের খোঁজে বৃহস্পতিবার বিকেলে শেরপুর শহরে আসেন। এরপর শহরের একাধিক বাড়িতে কাজের খোঁজ করেন। এক পর্যায়ে রাত নেমে এলে বাড়ি ফেরার উদ্দেশে ধুনটমোড়স্থ সিএনজি অটোরিকশা স্ট্যান্ডে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন।

তখন রাত আটটা বাজে। এসময় আটক ব্যক্তিরা বাগড়া হঠাৎপাড়া গ্রামের একটি বাড়িতে কাজের সন্ধান দেন। সেইসঙ্গে ব্যাটারি চালিত একটি অটোরিকশায় সেখানে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু সেখানে পৌঁছার পর ওই বাড়িতে তাকে না নিয়ে একটি পুকুরপাড়ে নিয়ে যায় তারা। এমনকি প্রাণনাশের ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক ওই নারীকে ধর্ষণ করতে থাকে। এসময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাদের হাতেনাতে আটক করেন। 

শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, গণধর্ষণের শিকার ওই নারী বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন। 

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

স্বামীকে রক্ষায় এগিয়ে আসা স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি মারপিটের ভিডিও ভাইরাল

অনলাইন ডেস্ক

স্বামীকে রক্ষায় এগিয়ে আসা স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি মারপিটের ভিডিও ভাইরাল

স্বামীকে রক্ষায় এগিয়ে আসা স্ত্রীকে নির্যাতনের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, এক নারীকে এক যুবক লাঠি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করছেন। আর ওই নারী চিৎকার করছেন। পাশে আরও কয়েকজন লাঠি নিয়ে আছেন। এর মধ্যে ওই নারী অচেতন হয়ে পড়েন। অচেতন হয়ে পড়ার পরেও এক যুবক এসে ওই নারীকে লাথি মারছেন।

জানা গেছে, ওই নারীর নাম আকলিমা বেগম (২০)। তাঁর স্বামীর নাম মো. কালু হাওলাদার। বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়নের দক্ষিণ চরমিয়াজ গ্রামে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার আকলিমার শ্বশুর আবদুস ছালাম হাওলাদার বাদী হয়ে ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে ২০ জনকে অজ্ঞাত করে বাউফল থানায় মামলা করেছেন।


আল্লাহ ফেরআউনকেও সুযোগ দিয়েছিলেন ছেড়ে দেননি: বাবুনগরী

ইফতারের আগে দোয়া কবুলের জন্য যে আমল করা উচিত

কখন রোজা ভাঙলে গোনাহ হবে না

আল্লাহ ছাড় দেন, ছেড়ে দেন না


স্থানীয় সূত্র জানায়, ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন নিয়ে চন্দ্রদ্বীপ ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ডের দুই ইউপি সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার সংঘর্ষ হয়। এতে দুই পক্ষের কমপক্ষে ২৫ জন আহত হয়েছেন। ওই সংঘর্ষের সময় আকলিমা তাঁর স্বামীকে বাঁচাতে গেলে তাঁর ওপর বর্বর হামলা করে সন্ত্রাসীরা। যার কিছু অংশ ভিডিও করেন স্থানীয় এক যুবক। ২৫ সেকেন্ডের ওই ভিডিও আজ ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

আকলিমা ও তাঁর স্বামী কালুকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে বৃহস্পতিবার বিকেলে দুজনকেই বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, আকলিমার শরীরের বিভিন্ন অংশে গুরুতর জখম হয়েছে। তাঁর ডান পা ভেঙে গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে তাঁর ডান পায়ে অস্ত্রোপচার হয়েছে। তাঁর স্বামী কালুরও হাড় ভেঙে জখম রয়েছে।

এ ব্যাপারে বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) আল মামুন বলেন, ভিডিওটি দেখলাম। এটি একটি ন্যক্কারজনক ঘটনা। ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিরা পলাতক। আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

শরীয়তপুরে ইউনিয়ন যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:

শরীয়তপুরে ইউনিয়ন যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

শরীয়তপুর সদর উপজেলার শৌলপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ও মালয়েশিয়া প্রবাসী দাদন খলিফা নামে এক ব্যক্তিকে পরিকল্পিত ভাবে ধরে নিয়ে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। এসকান্দার সরদার ও তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে। 

পূর্ব শত্রুতা ও আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পরিকল্পিত ভাবে ১৫ এপ্রিল তারাবির নামাজের পরে গয়ঘর খলিফা কান্দি মসজিদের কাছ থেকে দাদনকে তুলে পার্শ্ববর্ত পাটক্ষেতে নিয়ে কুপিয়ে ও গুলি করে গুরুতর আহত করে দুবৃত্তরা। 

আহত দানকে প্রথমে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকায় প্রেরণ করে। ঢাকা নেয়ার পথে বাবুবাজার ব্রিজের নিকট এম্বুলেন্সে আজ শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) ভোর সাড়ে চারটায় দাদনের মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। 

নিহতের পিতা সেকান্দার খলিফা বলেন, দুই মাস পূর্বে এসকান্দার সরদার তার পক্ষে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন করার জন্য প্রস্তাব করে। এসকান্দার সরদারের প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় পরিকল্পিত ভাবে এই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে তারা। 

আরও পড়ুন


ডেডিকেশন নিয়ে সংসার করেছি, কাজের জায়গাতেও একই রকম

জলবায়ু পরিবর্তন আইন করতে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ড

ধর্মীয় একটি রাজনৈতিক দলকে নিষিদ্ধ করছে পাকিস্তান

পাঁচ দেশের সঙ্গে বিশেষ ফ্লাইট শুরুর ঘোষণা


নিহতের পিতা বিষয়টি চিকন্দী পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত পুলিশ অফিসারকে বিষয়টি অবগত করেছেন বলেও দাবি করেছেন। ঘটনার পরে পুলিশ আসলে একাদিক ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করে হত্যাকারীরা। 

এর ২৫ বছর পূর্বে এসকান্দার খলিফার বোন দিলুনুরকেও পরিকল্পিত ভাবে এই সন্ত্রাসীরাই কুপিয়ে হত্যা করেছিল বলে অভিযোগ রয়েছে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ধর্মীয় শিক্ষা নিতে আসা তরুণীকে মন্দিরে ধর্ষণচেষ্টা, পুরোহিত ধরা

অনলাইন ডেস্ক

ধর্মীয় শিক্ষা নিতে আসা তরুণীকে মন্দিরে ধর্ষণচেষ্টা, পুরোহিত ধরা

সিলেটের গোলাপগঞ্জের বাঘায় মন্দিরে তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় এক পুরোহিতকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ বুধবার (১৪ এপ্রিল) রাতে উপজেেলার বাঘা কালাকোনা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।

বৃহস্পতিবার (১৫এপ্রিল) বিকেলে এতথ্য জানান গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)।

অসহায় পরিবারের ওই তরুণী ধর্মীয় শিক্ষা লাভের জন্য পুরোহিতের কাছে গেলে তার ধর্ষণচেষ্টা করা হয় বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাঘা ইউনিয়নের কালাকোনা গ্রামে শ্রী শ্রী গিরিধারী জিও মন্দিরের পুরোহিত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন টাঙ্গাইলের দেলদোহার থানার সিলিমপুর গ্রামের কালু চৌহানের ছেলে প্রাণ গবিন্দ দাস বাবাজি ওরফে ফরেস্ট চৌহান (৪৬)।


কলকাতায় বর্ষবরণে মঙ্গল শোভাযাত্রা

যন্ত্রাংশের প্যাকেটে রাখা বোমার বিস্ফোরণে শিশু নিহত

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে করোনা শনাক্ত ৪১৯২


ধর্মীয় শিক্ষা লাভের জন্য ওই পুরোহিতের কাছে প্রায়ই যাওয়া আসা করতেন এলাকার তরুণ-তরুণীসহ বিভিন্ন বয়সী হিন্দু ধর্মের অনুসারীরা। মন্দিরের পার্শ্ববর্তী বাড়ির ওই তরুণী অন্যান্য সময়ের মতো গত ১৩ এপ্রিল সন্ধ্যা ৭টায় ধর্মীয় শিক্ষা লাভের জন্য গেলে মন্দিরের পুরোহিত গবিন্দ দাস তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। পরে তরুণীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করেন।

পরে পুরোহিত গবিন্দ দাস বাবাজি ওরফে ফরেস্ট চৌহানকে এলাকাবাসী ধরে গণধোলাই দিলে তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টার বিষয়টি তিনি স্বীকার করেন।

এসময় পুরোহিতের সহযোগী দিপংকর দেব তপন পালিয়ে যান। বিষয়টি গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাঘা ইউনিয়ন তথা বিভিন্ন এলাকায় তোলপাড় হচ্ছে।

এ ঘটনায় গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হারুনূর রশীদ চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

গ্রেপ্তার গোবিন্দকে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

অব্যাহতি দেওয়া হলো ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তার সেই যুবলীগ নেতাকে

অনলাইন ডেস্ক

অব্যাহতি দেওয়া হলো ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তার সেই যুবলীগ নেতাকে

ফেনীতে ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তার পৌর যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদককে সংগঠন থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। ওই নেতার নাম মো. রেজাউল করিম। সেই সঙ্গে তাঁকে কেন সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে। এজন্য সাত দিন সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

গতকাল বুধবার ফেনী জেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।


কলকাতায় বর্ষবরণে মঙ্গল শোভাযাত্রা

যন্ত্রাংশের প্যাকেটে রাখা বোমার বিস্ফোরণে শিশু নিহত

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে করোনা শনাক্ত ৪১৯২


প্রসঙ্গত, ফেনী পৌর যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. রেজাউল করিম ও তাঁর এক সহযোগীকে দুটি ফেনসিডিলসহ ৯ এপ্রিল ফুলগাজী উপজেলার বন্দুয়া সেতু এলাকায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশ গ্রেপ্তার করে। ১৩ এপ্রিল তিনি ফেনীর আদালত থেকে জামিনে ছাড়া পান।

জেলা যুবলীগের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ফেনী জেলা যুবলীগ একটি সুশৃঙ্খল ও সুসংগঠিত সংগঠন। জেলা যুবলীগের জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক রেজাউলকে দলীয় পদ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়। স্থায়ীভাবে কেন তাঁকে বহিষ্কার করা হবে না, তার কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর