হাইকোর্টে ইরফান সেলিমের জামিন, কারামুক্তিতে বাধা থাকলো না

অনলাইন ডেস্ক

হাইকোর্টে ইরফান সেলিমের জামিন, কারামুক্তিতে বাধা থাকলো না

রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকায় নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তাকে মারধরের অভিযোগে করা হত্যাচেষ্টা মামলায় ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ ইরফান সেলিমকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম ও বিচারপতি মো. বদরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতের এই আদেশের ফলে ইরফান সেলিমের কারামুক্তিতে আর কোন বাধা থাকলো না বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী সাঈদ আহমেদ রাজা। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো. বশির উল্লাহ।

এর আগে গত বছরের ২৬ অক্টোবর ভোরে ভুক্তভোগী নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিম নিজেই বাদী হয়ে ধানমন্ডি থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

আরও পড়ুন


এবার ‘টুম্পা সোনা’ গেয়ে ভাইরাল রানু মণ্ডল (ভিডিও)

হবিগঞ্জে মা-মেয়েকে গলা কেটে হত্যা

১৫ বছর বয়সে প্রথম ধর্ষণের শিকার, ভর্তি হতে হয়েছে হাসপাতালেও

বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে মুক্তিযুদ্ধের আগেই শুরু হয় আরেক যুদ্ধ


এই মামলায় সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিম (৩৭), তার বডিগার্ড মোহাম্মদ জাহিদ (৩৫), হাজী সেলিমের মদীনা গ্রুপের প্রটোকল অফিসার এবি সিদ্দিক দিপু (৪৫), গাড়িচালক মিজানুর রহমানসহ (৩০) অজ্ঞাতপরিচয়ের দুই তিনজনকে আসামি করা হয়।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ইরফানের গাড়ি ওয়াসিমকে ধাক্কা মারার পর নৌবাহিনীর কর্মকর্তা ওয়াসিম সড়কের পাশে মোটরসাইকেলটি থামান এবং গাড়ির সামনে দাঁড়ান। নিজের পরিচয় দেন। তখন গাড়ি থেকে আসামিরা একসঙ্গে বলতে থাকেন, ‘তোর নৌবাহিনী/সেনাবাহিনী বের করতেছি, তোর লেফটেন্যান্ট/ক্যাপ্টেন বের করতেছি। তোকে এখনই মেরে ফেলব’। এরপর বের হয়ে ওয়াসিমকে কিল-ঘুষি মারেন এবং তার স্ত্রীকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। তারা মারধর করে ওয়াসিমকে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে যান। তার স্ত্রী, স্থানীয় জনতা এবং পাশে ডিউটিরত ধানমন্ডির ট্রাফিক পুলিশ কর্মকর্তা তাকে উদ্ধার করে আনোয়ার খান মডেল হাসপাতালে নিয়ে যান।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

মামুনুল ও রফিকুলকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ

অনলাইন ডেস্ক

মামুনুল ও রফিকুলকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ

হেফাজতে ইসলামের নেতা মাওলানা মামুনুল হক ও রফিকুল ইসলাম মাদানীকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। 

আজ সোমবার (১০ মে) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নিভানা খায়ের জেসি শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

রিমান্ড শেষে সকালে তাদের আদালতে হাজির করেন মামলা সংশ্লিষ্ট তদন্ত কর্মকর্তারা। একই সঙ্গে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে গত ২৬ এপ্রিল মতিঝিল ও পল্টন থানার নাশকতার দুই মামলায় মামুনুলের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এছাড়া গত ১৯ এপ্রিল মোহাম্মদপুর থানায় হত্যার উদ্দেশ্যে আঘাত করে গুরুতর জখম ও চুরি মামলায় আদালত তার সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

news24bd.tv / কামরুল  

পরবর্তী খবর

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা ও অবকাঠামো নির্মাণ বন্ধে হাইকোর্টে রিট

অনলাইন ডেস্ক

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা ও অবকাঠামো নির্মাণ বন্ধে হাইকোর্টে রিট

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা ও অবকাঠামো নির্মাণ বন্ধে বেসরকারি ৬টি সংগঠন ও এক ব্যক্তি হাইকোর্টে রিট দায়ের করেছেন। একইসঙ্গে মূল নকশায় সোহরাওয়ার্দীর মাস্টারপ্ল্যান রয়েছে তা ঠিক রাখার আর্জি জানানো হয়েছে ওই রিটে।

রোববার (৯ মে) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট দায়ের করা হয়।

এর আগে রিট করা ৬ সংগঠন এবং এক ব্যক্তির পক্ষ থেকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার (৬ মে) নোটিশ পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেন পরিবেশবাদী সংগঠন ‘বেলার’ আইন সমন্বয়কারী সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ কবীর।

আরও পড়ুন


নওগাঁয় অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিল শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

করোনামুক্ত খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতি: ফখরুল

যে যেখানে আছে, সেখানে থেকেই ঈদ উদযাপনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

এবার নার্সের ‘নিমুরা নিমুরা’ গানের নাচের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও)


এদিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গাছ কাটা বন্ধে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। তিনিও বৃহস্পতিবার এ নোটিশ পাঠিয়েছেন।

নোটিশে মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ, গণপূর্ত বিভাগের চিফ ইঞ্জিনিয়ার মো. শামিম আখতার এবং চিফ আর্কিটেক্ট অব বাংলাদেশ মীর মনজুর রহমানকে বিবাদী করা হয়েছে।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

বিদেশ যেতে পারছেন না খালেদা জিয়া: আইনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিদেশ যেতে পারছেন না খালেদা জিয়া: আইনমন্ত্রী

বেগম খালেদা জিয়া বিদেশ যেতে পারছেন না বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। সাজাপ্রাপ্ত আসামির বিদেশ যাওয়ার সুযোগ নেই বলে আইন মন্ত্রণলায়ের মত।

বিস্তারিত আসছে ...

news24bd.tv / কামরুল 

 

পরবর্তী খবর

রাঙামাটিতে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হত্যার আসামি অস্ত্রসহ আটক

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি

রাঙামাটিতে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হত্যার আসামি অস্ত্রসহ আটক

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা হত্যার এক আসামিকে আটক করেছে যৌথবাহিনী। আটকের নাম- মিন্টু চাকমা ওরফে জ্যোতি চাকমাকে (৩৯)।

শুক্রবার ভোর রাতে নানিয়ারচর উপজেলার বেতছড়ি ১৮মাইল এলাকায় থেকে তাকে আটক করা হয়। এসময় তল্লাশি চালিয়ে তার কাছ থেকে অস্ত্র গুলি উদ্ধার করা হয়।


অভিনন্দনের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

গাছ উপড়ে পড়ল ঘরের ওপর, গেল স্বামী-স্ত্রীর প্রাণ

ঢাবি শিক্ষক-কর্মচারীদের ঈদ কর্মস্থলেই

এরা মানুষ না, অমানুষ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার বেতছড়ি ১৮মাইল এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযানে নামে সেনাবাহিনীর যৌথদল। এসময় উপজেলার পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা হত্যাকাণ্ডের আসামি মিন্টু চাকমা অস্ত্রসহ ওই এলাকায় তার নিজ বাড়িতে অবস্থান করছিল। রাত গভির হলে সেনা সদস্যরা তার বাড়ি ঘেরাও করে তাকে আটক করে। অবশ্য সেনাবাহিনীর যৌথদলের উপস্থিতি টের পেয়েও পালাতে চেয়েও পালাতে পারেনি। এসময় তার ঘর তল্লাশি চালিয়ে একটি একনলা বন্ধুক, ২ রাউন্ড কার্তুজ, একটি নোটবুক ও ৫টি মোবাইল সিম উদ্ধার করা হয়।

রাঙামাটির নানিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বির রহমান জানান, আটকের পর সেনাবাহিনীর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে নিজেকে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট সংক্ষেপে ইউপিডিএফের সক্রিয় সদস্য বলে নিজেকে দাবি করে। তার বিরুদ্ধে উপজেলার পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা হত্যাকাণ্ডের মামলা ছিল। একই সাথে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের নেতা বর্মা হত্যাকাণ্ডের অন্যতম আসামি মিন্টু চাকমা।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে নববধূকে গলাটিপে হত্যা, স্বামী আটক

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীতে নববধূকে গলাটিপে হত্যা, স্বামী আটক

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এক নববধূকে গলাটিপে হত্যা করেছে স্বামী। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত ফাতেমা আক্তার মুন্নি (১৯), নোয়াখালী পৌরসভার ১নম্বর ওয়ার্ডের মধুসুদনপুর গ্রামের ফরিদ হাজী বাড়ির আহছান উল্যার মেয়ে।

বৃহস্পতিবার এ ঘটনায় নিহতের মা খায়েরুন নেছা বাদী অভিযুক্ত স্বামীকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এর আগে, বুধবার (৫ মে) গভীর রাতের যে কোন এক সময়ে উপজেলার ছয়ানী ইউনিয়নের উত্তর নয়নপুর গ্রামের ওদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

আটক স্বামী মো.জিহাদ (২২), উপজেলার ৫নং ছয়ানী ইউনিয়নের উত্তর নয়নপুর গ্রামের ওদার বাড়ির মো.হারুনের ছেলে।

প্রায় একমাস পর সুখবর পেলেন খালেদা জিয়া

ঘরের ডেকোরেশন দেখানোর কথা বলে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

হেফাজত নেতা জাকারিয়া নোমান ফয়জী ৫ দিনের রিমান্ডে

কুড়িল ফ্লাইওভারে গলায় গামছা পেঁচানো দুবাই প্রবাসীর লাশ

ভুক্তভোগী পরিবার ও মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, গত ৩ মাস ২৭ দিন আগে মুন্নি ও জিহাদ প্রেম করে নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। বিবাহের পর থেকে জিহাদ তাকে একটি ব্যাটারী চালিত অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য শ্বশুরের পরিবারের কাছে দাবি করে। তার স্ত্রীকে শ্বশুর বাড়ি থেকে টাকা এনে দেওয়ার জন্য শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করত। জিহাদের স্ত্রী তার মা-বাবা গরীব বলে তাদের পক্ষে অটোরিকশা কিনে দেওয়া সম্ভব নয় মর্মে স্বামীকে জানাইলে,সে স্ত্রীকে মারধর ও নির্যাতন করে। শ্বশুর-শাশুড়ি একাধিকবার মেয়ের স্বামীর বাড়িতে গেলে মেয়ের
জামাই তাদের কাছেও অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য টাকা দাবি করে। শ্বশুর-শাশুড়ি অটোরিকশা কিনে দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে সে ফের স্ত্রীর ওপর নির্যাতন করত। বুধবার রাতে জিহাদ তার স্ত্রীকে অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য টাকার এনে দেওয়ার কথা বললে এই নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। টাকা এনে দিতে পারবে না বললে গভীর রাতে বসত ঘরের রুমের খাটের ওপর তার স্বামী তাকে গলা টিপে হত্যা করে। নিহতের শাশুড়ি জোসনা বেগম সেহরী খেতে তাকে ডাকতে গেলে খাটের ওপর পুত্রবধূর মরদেহ দেখতে পায় । বৃহস্পতিবার পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করে।

বেগমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান সিকাদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর