তিন দিনে মারা গেল তিনটি বাঘ

অনলাইন ডেস্ক

তিন দিনে মারা গেল তিনটি বাঘ

বিপর্যয়ে বাঘ। তিন দিনে মারা গেল তিনটি বাঘ। এর আগে ২১ মার্চ মহারাষ্ট্রের বোর ধরন ড্যামের কাছে একটি বাঘের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার ফের মহারাষ্ট্রের যবৎমাল ও নাগপুরের পেঞ্চ ব্যাঘ্র প্রকল্প থেকে দুটি বাঘের দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। 

সূত্রের খবরে বলা হচ্ছে, এই তিনটি বাঘের মৃত্যুর পেছনে কোন চোরাকারবারির হাত নেই। কারণ বাঘগুলোর শরীরে কোন আঘাতের চিহৃ পাওয়া যায়নি।

পরপর তিনটি বাঘের মৃত্যুতে এরইমধ্যে রহস্যের জন্ম দিয়েছে। কেন পরপর তিনদিনে তিনটি বাঘের মৃত্যু। দায়িত্বপ্রাপ্তরা বলছেন, বাঘ তিনটির শরীরে এমন কোনও আঘাতের চিহ্ন মেলেনি। তাই বলা যায় বাঘগুলো কোন হামলার শিকার হয়েনি।

আরও পড়ুন


ফের সৌদির আবহা বিমানবন্দরে ড্রোন হামলা ইয়েমেনের

শুভ জন্মদিন সাকিব আল হাসান

যাদুকাটা নদীতে বাংলাদেশির মরদেহ, ৩৯ ঘণ্টা পর ফেরত দিল বিএসএফ

হামলার সঙ্গে ছাত্রলীগ জড়িত নয়, মিথ্যাচার করা হচ্ছে দাবি লেখকের


ক্যানালের পাড়ে যে বাঘিনীর দেহ মেলে সম্ভবত সেটির পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে অবশ্য বাঘটির মৃত্যুর পর তার দেহ পানিতে ছুঁড়ে ফেলা হতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে। বাঘের শরীরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হওয়ারও কোনও চিহ্ন মেলেনি।

নাগপুরের ব্যাঘ্র প্রকল্প থেকে একটি বাঘ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। সেটিই পরে মঙ্গলবার নাগলওয়াডি এলাকা থেকে উদ্ধার হয়। বাঘটির শরীরে পচন ধরে গিয়েছিল। তবে তিনটি বাঘের দাঁতগুলি ভঙ্গুর ছিল। বাঘ তিনটিরই বয়স বেশি ছিল।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

রেকর্ড সংখ্যক যুদ্ধবিমান নিয়ে তাইওয়ানের আকাশে চীন

অনলাইন ডেস্ক

রেকর্ড সংখ্যক যুদ্ধবিমান নিয়ে তাইওয়ানের আকাশে চীন

রেকর্ড সংখ্যক যুদ্ধবিমান নিয়ে তাইওয়ানের আকাশে মহড়া দিয়েছে চীন। সোমবার (১২ এপ্রিল) দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এমন অভিযোগ করা হয়েছে।

তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, তথাকথিত বিমান প্রতিরক্ষা শনাক্তকরণ অঞ্চলে (এডিআইজেড) সোমবার পারমাণবিক বোমারু বিমানসহ ২৫টি জঙ্গি বিমান ওড়ায় চীন।

এই মহড়া চলতি বছরের সবচেয়ে আক্রমণাত্মক ও বৃহৎ বলে জানিয়েছে তাইওয়ান। তাইওয়ান ইস্যুতে চীন ক্রমেই আগ্রাসী হয়ে উঠছে যুক্তরাষ্ট্রের এমন মন্তব্যের পরপরই এই মহড়া চালালো চীন।


আরও পড়ুনঃ


করোনা আক্রান্ত প্রতি তিনজনের একজন মস্তিষ্কের সমস্যায় ভুগছেন: গবেষণা

চীনে সন্তান নেয়ার প্রবণতা কমছে, কমছে জন্মহার

কুমারীত্ব পরীক্ষায় 'ফেল' করায় নববধূকে বিবাহবিচ্ছেদের নির্দেশ

বাদশাহ সালমানের নির্দেশে সৌদিতে কমছে তারাবির রাকাত সংখ্যা


চীন বরাবরই তাইওয়ানকে একটি বিচ্ছিন্ন প্রদেশ হিসাবে দেখে আসলেও তাইওয়ান নিজেকে সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করেছে।

মহড়ায় ছিল ১৮টি জঙ্গিবিমান, ৪টি আনবিক অস্ত্র বহনকারী বোমারু বিমান এবং দুটি সাবমেরিন বিধ্বংসী এয়ারক্রাফট ছিলো বলে জানায় তাইওয়ান।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সাগরে ১০ লাখ টন দূষিত পানি ফেলার সিদ্ধান্ত জাপানের

অনলাইন ডেস্ক

সাগরে ১০ লাখ টন দূষিত পানি ফেলার সিদ্ধান্ত জাপানের

ফুকুশিমা পারমাণবিক শক্তি কেন্দ্র থেকে ১০ লাখ টন দূষিত পানি সাগরে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাপান। আগামী দুই বছরের মধ্যে এই দূষিত পানি নির্গমন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

বিষয়টির দায়িত্ব পালন করবে পারমাণবিক শক্তি কেন্দ্রটি পরিচালনার দায়িত্বে থাকা টোকিও ইলেক্ট্রিক পাওয়ার। এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হলে মৎস্য সম্পদের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

এ বিষয়ে জাপান সরকারের দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, নিয়ন্ত্রক মানদণ্ডের পরিপ্রেক্ষিতে আসা পরামর্শের পরিপ্রেক্ষিতে সমুদ্রে (পানি) নির্গমনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

৫০০টি প্রমাণ আকৃতির সুইমিং পুলের সমপরিমাণ এই পানিকে বিশুদ্ধিকরণ করা হয়েছে। তবে এর মধ্য থেকে ক্ষতিকর আইসোটোপ সরানোর জন্য পুনরায় ফিল্টার করার প্রয়োজন।


আরও পড়ুনঃ


করোনা আক্রান্ত প্রতি তিনজনের একজন মস্তিষ্কের সমস্যায় ভুগছেন: গবেষণা

চীনে সন্তান নেয়ার প্রবণতা কমছে, কমছে জন্মহার

কুমারীত্ব পরীক্ষায় 'ফেল' করায় নববধূকে বিবাহবিচ্ছেদের নির্দেশ

বাদশাহ সালমানের নির্দেশে সৌদিতে কমছে তারাবির রাকাত সংখ্যা


এছাড়া আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী এই বিপুল পরিমাণ পানিকে বিশেষ প্রক্রিয়াকরণের মধ্য দিয়ে যেতে হবে।

বিষয়টির তাৎক্ষণিক ও তীব্র নিন্দা জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

‘দ্রুত মার্কিন সেনা বহিষ্কার ইরাকে স্থিতিশীলতা ফিরবে’

অনলাইন ডেস্ক

‘দ্রুত মার্কিন সেনা বহিষ্কার ইরাকে স্থিতিশীলতা ফিরবে’

ইরাক থেকে দ্রুত মার্কিন সেনা বহিষ্কার করা হলে তাতে দেশটিতে স্থিতিশীলতা ফিরে আসবে বলে জানিয়েছেন ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলী শামখানি।

এসময় তিনি বলেন, মার্কিন সেনা বহিষ্কারের ব্যাপারে ইরাকের জাতীয় সংসদে যে বিল পাস হয়েছে তা দ্রুত বাস্তবায়ন করলে দেশটিতে রাজনৈতিক প্রক্রিয়া সহজ ও দ্রুততর হবে।

গতকাল ইরান সফররত ইরাকের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের উপদেষ্টা কাসিম আল-আরাজির সঙ্গে তেহরানে বৈঠকের সময় এসব কথা বলেন আলী শামখানি।

আরও পড়ুন


হবিগঞ্জ হার্ট ফাউন্ডেশনের আজীবন সদস্য হলেন কানাডা প্রবাসী মাহমুদ

মামুনুলকে নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট, আ. লীগের ২ পক্ষের সংঘর্ষ

বৈশাখে মঙ্গল শোভাযাত্রা ও গণজমায়েত না করার নির্দেশ

তারাবির নামাজ নিয়ে নতুন নির্দেশনা


তিনি আরও বলেন, ইরাকে নিরাপত্তাহীনতা ও অস্থিতিশীলতা সৃষ্টির মূল কারণ মার্কিন সেনাদের উপস্থিতি। তারাই মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে সঙ্ঘবদ্ধ সন্ত্রাসবাদ চালায়। ইরানের ইসলামী বিপ্লব গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি'র কুদস ফোর্সের সাবেক কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল কাসেম সোলাইমানি এবং ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হাশদ আশ-শাবির সেকেন্ড-ইন-কমান্ড আবু মাহাদি আল-মুহান্দিসকে হত্যার মাধ্যমে মার্কিন সেনারা পরিষ্কার করে দিয়েছে যে, আমেরিকাই উগ্র তাকফিরি সন্ত্রাসবাদকে উসকে দিচ্ছে।

সন্ত্রাসবাদ-বিরোধী এই দুই কমান্ডারকে হত্যার পর ইরাকে মার্কিন বিরোধী মনোভাব তুঙ্গে উঠেছে। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

জিবুতিতে নৌকাডুবি, নিহত ৩৪

অনলাইন ডেস্ক

জিবুতিতে নৌকাডুবি, নিহত ৩৪

আফ্রিকার দেশ জিবুতিতে নৌকা ডুবে ৩৪ অভিবাসন প্রত্যাশীর মৃত্যু হয়েছে। দেশটির এডেন সাগরে উপকূল সংলগ্ন এলাকায় সোমবার (১২ এপ্রিল) এই ঘটনা ঘটে।

অভিবাসন বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংস্থা (আইওএম) বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

এক টুইট বার্তায় আইওএম জানিয়েছে, চোরাকারবারিদের নিয়ন্ত্রণাধীন নৌকাটিতে ৬০ জন যাত্রী ছিল। তাদের নিয়ে এডেন উপসাগরের জিবুতি সংলগ্ন উপকূলে ডুবে যায়। তাতে ৩৪ জন নিহত হয়। তবে সংস্থাটি বিস্তারিত তথ্য জানায়নি।


আরও পড়ুনঃ


বাংলাদেশের জিহাদি সমাজে 'তসলিমা নাসরিন' একটি গালির নাম

করোনা আক্রান্ত প্রতি তিনজনের একজন মস্তিষ্কের সমস্যায় ভুগছেন: গবেষণা

কুমারীত্ব পরীক্ষায় 'ফেল' করায় নববধূকে বিবাহবিচ্ছেদের নির্দেশ

বাদশাহ সালমানের নির্দেশে সৌদিতে কমছে তারাবির রাকাত সংখ্যা


বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, করোনাভাইরাস সংক্রান্ত বিধিনিষেধ ও কড়াকড়ির কারণে তারা সৌদি আরবে প্রবেশে ব্যর্থ হয়ে তারা ইয়েমেনে আটকে পড়ে। সেখান থেকে ফেরার পথেই নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আবারও যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ নিহত, কারফিউ জারি

অনলাইন ডেস্ক

আবারও যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ নিহত, কারফিউ জারি

গত বছর যুক্তরাষ্ট্রে এক শেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তার হাতে জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি নিহত হয়। সারাবিশ্বে আলোচিত সেই হত্যার বিচারকাজ চলার মধ্যেই রোববার (১১ এপ্রিল) পুলিশের গুলিতে যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়াপোলিসে পুলিশের গুলিতে এক কৃষ্ণাঙ্গ নিহত হয়েছেন।

পুলিশ জানায়, ট্রাফিক স্টপের কাছে দন্তে রাইট নামে ২০ বছর বয়সী ওই যুবককে গাড়ি চালানো অবস্থায় জোরপূর্বক আটক করে নিয়ে যেতে চেয়েছিলেন দায়িত্বরত এক পুলিশ কর্মকর্তা। এ সময় পুলিশের সঙ্গে বাগ্বিতণ্ডার একপর্যায়ে ঘটনাস্থলেই তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। তার সঙ্গে গাড়িতে থাকা এক নারীও আহত হন বলে জানা গেছে।

 


শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যদের নিয়েই হবে প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য

বাংলাদেশের জিহাদি সমাজে 'তসলিমা নাসরিন' একটি গালির নাম

করোনা আক্রান্ত প্রতি তিনজনের একজন মস্তিষ্কের সমস্যায় ভুগছেন: গবেষণা

কুমারীত্ব পরীক্ষায় 'ফেল' করায় নববধূকে বিবাহবিচ্ছেদের নির্দেশ


এ ঘটনার পরপরই প্রতিবাদের ঝড় ওঠে মিনিয়াপোলিসে। ঘটনার বিচার দাবি করে শহরের ব্রুকলিন স্কয়ারের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন সাধারণ মানুষ। এতে পুলিশ বাধা দিলে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ওই এলাকায় কারফিউ জারি করেছে পুলিশ। 

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর