বিয়ে বন্ধ করতে কনে নিজেই থানায়!
বিয়ে বন্ধ করতে কনে নিজেই থানায়!

বিয়ে বন্ধ করতে কনে নিজেই থানায়!

অনলাইন ডেস্ক

নিজের বিয়ে বন্ধ করতে থানায় হাজির হয়েছে এক স্কুলছাত্রী। আজ মঙ্গলবার সকালে ওই স্কুলছাত্রী চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় এসে নিজের বাল্য বিয়ে বন্ধ করার জন্য লিখিতভাবে আবেদন করেন।

আবেদনের প্রেক্ষিতে পুলিশ ওই স্কুলছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে তার অভিভাবককে বোঝালে তাঁরা বিয়ে বন্ধ রেখে মেয়ের লেখাপড়া অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নেন।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন জানান, চুয়াডাঙ্গা শহরের ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী সকালে থানায় এসে লিখিতভাবে জানায়, কয়েকদিন ধরে তার মা ও খালা তাকে বিয়ের জন্য চাপ দিচ্ছেন।

পাত্রও ঠিক করে ফেলা হয়েছে। কিন্তু মেয়েটি লেখাপড়া করবে বলে পুলিশকে জানায়।  

পরে সদর থানা পুলিশের একটি টিম মেয়েটির বাড়িতে গিয়ে তার অভিভাবককে বাল্য বিয়ে আইনত অপরাধ এবং তার কুফল সম্পর্কে বোঝালে অভিভাবকরা মেয়ের বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে। পাশাপাশি মেয়ের লেখাপড়া অব্যাহত রাখার ইচ্ছা প্রকাশ করে তারা।

ওসি আরো জানান, দরিদ্র হওয়ায় তাঁরা মেয়ের বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।  

মেয়েটির উদ্ধৃতি দিয়ে ওসি জানান, সম্প্রতি পুলিশি হস্তক্ষেপে একই এলাকায় এক নাবালিকা মেয়ের বিয়ে বন্ধ করা হলে মেয়েটি অনুপ্রাণিত হয়ে নিজের বিয়ে বন্ধ করার জন্য থানায় আসে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত