ফাঁকা বাড়িতে প্রেমিকাকে হত্যার পর প্রেমিকের আত্মহত্যা
ফাঁকা বাড়িতে প্রেমিকাকে হত্যার পর প্রেমিকের আত্মহত্যা

ফাঁকা বাড়িতে প্রেমিকাকে হত্যার পর প্রেমিকের আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক

বাড়িতে প্রেমিকাকে ডেকে এনে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে প্রেমিক নিজেই ছুরি দিয়ে আঘাতে আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা পুলিশের। গতকাল বুধবার ঘটনাটি ঘটে গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার বক্তারপুর ইউনিয়নের সাতানীপাড়া গ্রামে।  

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে বুধবার রাতে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনিসুর রহমান।

নিহত প্রেমিকের নাম হৃদয় গমেজ।

তিনি কালীগঞ্জ উপজেলার বক্তারপুর ইউনিয়নের সাতানীপাড়া গ্রামের মৃত সমর গমেজের ছেলে। নিহত প্রেমিকার নাম ইভানা রোজারিও। তিনি একই উপজেলার তুমলিয়া ইউনিয়নের বান্দাখোলা গ্রামের স্বপন রোজারিওর মেয়ে।

পুলিশ বলছে, দুই জনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল, যা পরিবার মেনে নেয়নি। সেই অভিমানে প্রেমিক তার প্রমিকাকে খুন করে নিজও আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।
 
এছাড়া পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, বুধবার সকাল ১০টার দিকে হৃদয় গমেজের (২৩) মা স্বর্ণা গমেজ স্থানীয় ভূমি রেজিস্ট্রি অফিসে যান জমি রেজিস্ট্রি করতে। বাড়ি ফাঁকা পেয়ে ডেকে আনেন প্রেমিকা ইভানা ভেনেডিট রোজারিওকে (২২)। সন্ধ্যা ৭টার দিকে প্রেমিক হৃদয়ের মা বাড়ি ফিরেন এবং এসে দেখেন ঘরের দরজা বন্ধ। পরে ঘরের পেছনের জানালা দিয়ে দেখেন ঘরের মেঝেতে দুই জনের মরদেহ পড়ে আছে। ছেলের মায়ের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসেন। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই প্রেমিক-প্রেমিকার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।  

আরও পড়ুন:


বিশ্বের সবচেয়ে দামি পানি খান মুকেশ আম্বানীর স্ত্রী, দাম কত?

ঈমান ঠিক রাখার আমল

সৌদি জোটের আরো একটি ড্রোন ভূপাতিত করল ইয়েমেন

এবার ফেসবুকের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠল


এ ব্যাপারে ওসি মো. আনিসুর রহমান জানান, সকালে হৃদয়ের মা বাড়ি থেকে বেড়িয়ে গেলে কোনো এক সময় প্রেমিকা ইভানাকে বাড়ি ডেকে আনেন হৃদয় গমেজ। পরে সকাল থেকে সন্ধ্যার কোনো একসময় প্রেমিকাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা শেষে, হৃদয় নিজেই নিজের পেটে ছুরি দিয়ে আঘাতে আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।

এ ব্যাপারে আইনানুগ পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।  

news24bd.tv রিমু  

;