১৪ মাস পর কারিশমা হত্যার রহস্য উদঘাটন

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ

১৪ মাস পর কারিশমা হত্যার রহস্য উদঘাটন

ঝিনাইদহ পৌর এলাকার উদয়পুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে খুন হওয়া তৃতীয় লিঙ্গের নাগরিক লিয়াকত ওরফে কারিশমা হত্যার জট খুলেছে। প্রায় ১৪ মাস পর এই হত্যার মোটিভ ও ক্লু উদ্ধারের দ্বার প্রান্তে পিবিআই। প্রথমে এটিকে আত্মহত্যা বলে অনুমান করা হলেও ময়না তদন্তের রিপোর্টে হত্যার আলামত পায় চিকিৎসকরা।

এই হত্যা মামলাটি প্রথম দফায় পুলিশ ও পরে হাত বদল হয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কাছে। নিবিড় তদন্ত, তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার ও আলামত দেখে ক্লুলেস এই মামলাটির মোড় ঘুরিয়ে আনে পিবিআই। কারিশমা হত্যার পর ২০২০ সালের ৯ সেপ্টেম্বর মাসের ঝিনাইদহ সদর থানায় অজ্ঞাতনামা হিসেবে মামলা দায়ের করেন নিহতের ভাই মোঃ আয়ুব আলী।

এক বছরের বেশি সময় পার হয়ে গেলেও পুলিশ হত্যার মোটিভ উদ্ধার করতে পারছিল না। চাঞ্চল্যকর এই মামলায় অবশেষে চূড়ান্ত অগ্রগতি সাধন করে ক্লু উদ্ধার করতে সমর্থ হয় ঝিনাইদহ পিবিআই।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, লিয়াকত ওরফে কারিশমা সদর উপজেলার কাশিমপুর গ্রামের মৃত সুলতান মাস্টারের ছেলে। ৬ ভাই ২ বোনের মধ্যে লিয়াকত ওরফে কারিশমা সবার ছোট। ১৬ বছর আগে সে হিজড়ার দলে নাম লেখায়। ১৩ বছর আগে জনৈক কামাল মন্ডলের নিকট থেকে জমি কিনে পৌর এলাকার উদয়পুর গ্রামে বাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করে আসছিলেন কারিশমা। বছর দুয়েক আগে সদর উপজেলার গোয়ালপাড়া বাজারে একটি জমি কিনে একতলা বাড়ি নির্মাণ করেন তিনি। স্থায়ীভাবে গোয়ালপাড়ার বাড়িতে বসবাস করার জন্য উদয়পুর গ্রামের বাড়িটি বিক্রি করে দিতে গোবিন্দপুর গ্রামের কামরুল ইসলামের স্ত্রী কাজলের কাছ থেকে অগ্রিম ৫০ হাজার টাকাও গ্রহণ করেন কারিশমা। হিজড়াদের সঙ্গে দ্বন্দের জের ধরে কারিশমা হিজড়া মানসিকভাবে চাপে ছিলেন বলে তার বোন শাহানারা জানান।

এরই মধ্যে ঝুলন্ত অবস্থায় ৯ সেপ্টেম্বর সকালে উদয়পুরের বাড়ি থেকে লিয়াকত ওরফে কারিশমার মরদেহ ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। থানায় মামলা রেকর্ড হওয়ার পরে প্রথমে মামলাটি তদন্ত করেন পরিদর্শক শেখ আবুল খায়ের। পুলিশ কোন কুল কিনারা করতে না পেরে মামলাটি পিবিআইতে হস্তান্তর করা হয়।

পিবিআইয়ের পুলিশ পরিদর্শক একেএম মনিরুজ্জামান মামলার তদন্ত ভার নিয়ে গত ২৭ অক্টোবর সন্দেহভাজন ৬ জনকে গ্রেফতার করেন। পরে তথ্য যাচাই করে ৩ জনকে ছেড়ে দেন এবং বাকী তিনজনকে আদালতে পাঠান। তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালতের কাছে তাদের ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। বিজ্ঞ আদালত ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডে পাঠানো তিন আসামি হলো উদয়পুর বিশ্বাস পাড়ার আব্দুল কুদ্দুস মোল্লার ছেলে মোঃ রাজন মিয়া (৩৫), উদয়পুর গ্রামের শাহ পাড়ার লতাফত শাহ'র ছেলে আনোয়ার হোসেন শাহ (৪০) এবং উদয়পুর বিশ্বাস পাড়ার মৃত সৈয়দ আলীর ছেলে মিন্টু মিয়া ওরফে লম্বা মিন্টু। ৩ দিনের রিমান্ড শেষে তাদেরকে আবারও কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পিবিআই'র পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান জানান, এটি একটি ক্লুলেস মার্ডার ছিল। কিন্তু পিবিআই মামলার তদন্তে ব্যাপক অগ্রগতি করেছে। এই ঘটনায় ৩ আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও পলাতক আসামি রয়েছে। তদন্তের স্বার্থে তাদের ব্যাপারে আমরা বলতে পারছি না। তবে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তাদেরকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারলে হত্যার পুরো রহস্য জানা যাবে। 

নিহত কারিশমার ভাই আয়ুব হোসেন গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে অভিযোগ করেছেন, রাজনৈতিক কিছু নেতা এই মামলায় প্রভাব খাটিয়ে জড়িত আসামিদের বাঁচানোর চেষ্টা করছেন। তারাই আসামিদের পালিয়ে থাকতে সাহায্য করছে।

আরও পড়ুন


পরকীয়া, স্বামীকে ডিভোর্সের পর পুলিশ দেবরের সঙ্গে বিয়ের দাবিতে অনশন

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

উল্টো ভর্তুকি দাবি

হাফ পাস সমস্যা ঝুলে রইল

অনলাইন ডেস্ক

হাফ পাস সমস্যা ঝুলে রইল

বেসরকারি গণপরিবহনে অর্ধেক ভাড়া (হাফ পাস) নিয়ে সমস্যা তৈরি হয় বাস মালিক, হেলপার, চালক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে। এই সমস্যা সমাধানে মালিকদের সঙ্গে সড়ক পরিবহণ কর্তৃপক্ষের বৈঠকে উল্টো ভর্তুকি দাবি করছেন বেসরকারি বাস মালিকরা।

শনিবার (২৭ নভেম্বর) ঢাকার বনানীতে বিআরটিএ কার্যালয়ে টানা দুই ঘণ্টা বৈঠক শেষে পরিবহণ মালিকরা টাস্কফোর্স গঠন করে তাদের জন্য ভর্তুকি নির্ধারণ করার দাবি জানান।

বৈঠক শেষে বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, দ্বিতীয় দিনের মতো আজ বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে পরিবহণ মালিক-শ্রমিক বেশকিছু প্রস্তাব দিয়েছেন। রাজধানীতে কত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কতজন শিক্ষার্থী রয়েছে এর হিসেব চেয়েছে।

আরও পড়ুন:


আবারও আইসিইউতে রওশন এরশাদ

ছেলেকে হত্যা করে সেফটিক ট্যাঙ্কে লুকিয়ে রাখা বাবা-মা আটক

মুশফিকের আউট নিয়ে সমালোচনা (ভিডিও)


বিআরটিএ চেয়ারম্যান আরও বলেন, হাফ ভাড়া নেওয়ার ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের আলাদা কোনো পরিচয়পত্র দেওয়া হবে কি না, সে বিষয়টিও আলোচনায় এসেছে। পুরো বিষয়টি সুরাহা করার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বিআরটিএ এবং পরিবহণ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে একটি টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব এসেছে।

এদিকে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ মালিক সমিতির নেতা খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, ঢাকায় নগর পরিবহনের যে বাসগুলো চলে, তার মালিকদের ৮০ শতাংশই গরিব। একটা বা দুটো বাস চালিয়ে তাদের সংসার চলে। তাদের বাচ্চারাও স্কুল কলেজে যায়।

এ কারণে পরিবহণ মালিক-শ্রমিকদের প্রস্তাব হচ্ছে, বাস মালিকদের ক্ষতিপূরণ বা ভর্তুকির বিষয়টি নির্ধারণ করেই হাফ ভাড়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। কোন তহবিল থেকে এই ভর্তুকি আসবে সেটিও নির্ধারণ করতে হবে।

বৈঠকে ঢাকা সড়ক পরিবহণ মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল বাতেন বাবু, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ, বিআরটির চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সহকারী কমিশনার মো. আশফাকসহ বিআরটিএর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

এবার পাঁচ মিনিটের ভোটে চেয়ারম্যান হবো বললেন নৌকার প্রার্থী

অনলাইন ডেস্ক

এবার পাঁচ মিনিটের ভোটে চেয়ারম্যান হবো বললেন নৌকার প্রার্থী

বক্তব্য রাখছেন রেজাউল হক হীরা

আগামীকাল রোববার (২৮ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তৃতীয় ধাপে দেশের এক হাজার সাতটি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন। এরই মধ্যে এক নৌকার প্রার্থীর বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। তিনি নকলা উপজেলার উরফা ইউনিয়নের নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান রেজাউল হক হীরা।

এক জনসভায় তিনি বলেন, ‘মার্কা আমার নৌকা। গতবার আধা ঘণ্টার ভোটে চেয়ারম্যান হয়েছি। এবার ভোট করবো মাত্র পাঁচ মিনিটে।’

ওই জনসভাতেই তার পুত্র সিয়াম ইমতিয়াজ হুংকার দিয়ে বলেছেন, ভোটের দিন নৌকায় ভোট না দিলে পাঁচ বছর এলাকায় থাকা যাবে না। শান্তি চাইলে ভোট দেবেন নৌকায়।

বুধবার রাতে উরফা এলাকার মারমাইসা দাখিল মাদ্রাসায় এক জনসভায় পিতা-পুত্র এমন বক্তব্য দিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে নৌকার প্রার্থী রেজাউল হক বলেছেন, বিরোধীরা গুজব ছড়াচ্ছেন। আমার বক্তব্য এডিট করে বিতর্কিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন:


দ. আফ্রিকার করোনার নতুন ধরন খুবই ভয়ঙ্কর : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

একই ইউপিতে বাবা-ছেলে ও আপন দুই ভাই চেয়ারম্যান প্রার্থী!

বেগম জিয়ার জন্য আলাদা আইন করার সুযোগ নেই: হানিফ


এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মোমিনুর রশীদ বলেছেন, ওসব নির্বাচনে কোনো প্রভাব ফেলবে না। ভোট হবে সুষ্ঠু নিরপেক্ষ।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

মসিকের নতুন নগরীতে সাড়ে ৯ কোটি টাকার সড়ক

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:

মসিকের নতুন নগরীতে সাড়ে ৯ কোটি টাকার সড়ক

ময়মনসিংহ সিটি

ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের (মসিক) নতুন ওয়ার্ড ২৬। অবহেলিত এই জনপদে এবার সাড়ে ৯ কোটি ৩১ লক্ষ টাকা ব্যায়ে নির্মাণ হচ্ছে পাঁচটি সড়ক। 

শনিবার সকালে নগরীর শিকারীকান্দায় এসব সড়কের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেন মসিক মেয়র ইকরামুল হক টিটু। 

মসিক বলছে,সড়ক উন্নয়ন ও ড্রেনেজ নেটওয়ার্কসহ নাগরিকসেবা উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় এ সড়কসমূহ নির্মাণ করা হচ্ছে। সড়কের কাজ শেষ হলে যোগাযোগ ব্যবস্থায় নতুন দিগন্ত সূচনা হবে ঘনবসতিপূর্ণ এই ওয়ার্ডে। 

উদ্বোধনকৃত সড়কগুলো হলো- নগরীর শিকারীকান্দা রেনু মহাজন বাড়ি থেকে রহিমের দোকান পর্যন্ত বিসি সড়ক, শিকারীকান্দা খামার ফকিরবাড়ি মোড় পর্যন্ত আরসিসি সড়ক, বাড়েরার পুল থেকে ফকিরবাড়ি মোড় পর্যন্ত আরসিসি সড়ক, ঝিগাতলা মোড় থেকে গোফিবাড়ি মোড় পর্যন্ত আরসিসি ও বিসি সড়ক এবং বাদশা মাস্টারের বাড়ি নটরডেমে কলেজ পর্যন্ত বিসি সড়ক। 

উদ্বোধনকালে মসিক মেয়র ইকরামুল হক টিটু জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিটি করপোরেশনের উন্নয়নের জন্য ১৫৭৫ কোটি টাকার প্রকল্প বরাদ্দ দিয়েছেন। এ থেকে আমরা নতুন অন্তর্ভুক্ত ওয়ার্ডগুলোতে বেশি বরাদ্দ দিয়েছি। তাই নতুন এসব ওয়ার্ডগুলোকে মডেল ওয়ার্ড হিসেবে গড়তে চাই। 

অনুষ্ঠানে ২৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. শফিকুল ইসলাম শফিক, ২৫, ২৬ ও ২৭ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর আইরিন আক্তার, মসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জহিরুল হক, সহকারী প্রকৌশলী মো. জসিম উদ্দিন ছাড়াও স্থানীয় রাজনৈতিক ও সামাজিক গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:


আবারও আইসিইউতে রওশন এরশাদ

ছেলেকে হত্যা করে সেফটিক ট্যাঙ্কে লুকিয়ে রাখা বাবা-মা আটক

মুশফিকের আউট নিয়ে সমালোচনা (ভিডিও)


news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

ইকোপার্ক থেকে উদ্ধার ১৭টি বন্যপ্রাণী সুন্দরবনে অবমুক্ত

শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট

ইকোপার্ক থেকে উদ্ধার ১৭টি বন্যপ্রাণী সুন্দরবনে অবমুক্ত

অবমুক্ত করা হচ্ছে ১৭টি বন্যপ্রাণী

বাগেরহাটের চন্দ্রমহল ইকোপার্ক থেকে উদ্ধার করা কুমির, হরিণ ও বানরসহ বিভিন্ন প্রজাতির ১৭টি বন্যপ্রাণী সুন্দরবনে অবমুক্ত করা হয়েছে।

শনিবার (২৭ নভেম্বর) দুপুরে র‌্যাব ও বন বিভাগের কর্মকর্তারা বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে অবমুক্ত করেন।

কুমির, হরিণ ও বানরসহ বিভিন্ন প্রজাতির ১৭টি বন্যপ্রাণী সুন্দরবনে অবমুক্তকালে র‌্যাব-৬ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার আল আসাদ মো. মাহফুজুল ইসলাম, খুলনার বিভাগীয় বন্য প্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ কর্মকর্তা নির্মল কুমার পাল, মৎস্য বিশেষজ্ঞ মো. মফিজুর রহমান, করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজাদ কবীর উপস্থিত ছিলেন।

অবমুক্ত করা বন্যপ্রাণীগুলোর মধ্যে রয়েছে  ১টি কুমির, ২টি হরিণ, ৩টি বানর, ২টি কচ্ছপ, ৭টি বক ও ২টি মাছমুড়াল পাখি। 
গত ১৫ নভেম্বর বাগেরহাট সদর উপজেলার রণজিতপুরে অবস্থিত চন্দ্রমহল ইকোপার্ক থেকে ১৬ প্রজাতির ৪৩টি বন্য প্রাণী উদ্ধার করে বন্য প্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ এবং র‌্যাব-৬।

এর মধ্যে ১৭টি প্রাণি সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে অবমুক্ত হয়েছে। বাকি বন্যপ্রাণীর মধ্যে ১টি হনুমান যশোরের কেশবপুর ও সাফারি পার্কে অবমুক্ত করা হয়েছে। ১টি ময়ুর, ৫টি অস্ট্রেলিয়ান ঘুঘু ও ২টি উট পাখি সাফারি পার্কে অবমুক্ত এবং ১টি তিমির কংকাল, ৬টি হরিণের শিং, ৬টি হরিণের চামড়া, ১টি ভাল্লুকের চামড়া ও ১টি ক্যাঙ্গারুর চামড়া বনভিাগের বিভাগীয় দপ্তরে সংরক্ষণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বন বিভাগ।

আরও পড়ুন


বেপরোয়া মোটরসাইকেলের ধাক্কায় পথচারী নিহত

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

বেপরোয়া মোটরসাইকেলের ধাক্কায় পথচারী নিহত

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর

বেপরোয়া মোটরসাইকেলের ধাক্কায় পথচারী নিহত

নাটোরের গুরুদাসপুরে বেপরোয়া মোটরসাইকেলের ধাক্কায় মজনু আলী নামের এক পথচারীর মৃত্যু হয়েছে। গুরুত্বর আহত হয়েছেন শুকুর আলী নামের আরো এক পথচারী।

শুক্রবার রাতে ওই দুর্ঘটনা ঘটে উপজেলার গুরুদাসপুর-নয়াবাজার রোডের দেবদার মোড় নামকস্থানে। নিহত মজনু আলী ও আহত শুকুর আলী পাচশিশা গ্রামের বাসিন্দা। বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালক ছিলেন উপজেলার কালাকান্দর মহল্লার রেজাউল করিমের ছেলে শাহরিয়ার আহম্দে।

স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার রাতে নয়াবাজার থেকে গুরুদাসপুর মুখী একটি মোটরসাইকেল বেপরোয়াভাবে দ্রুত গতিতে আসছিলো। দেবদার মোড় নামকস্থানে পৌঁছালে রাস্তা দিয়ে হেটে যাওয়া দুই পথচারীকে সজরো ধাক্কা দেয়। ঘটনাস্থল থেকে আহত দুই পথচারীকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। রাজশাহী মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে মজনু আলী মৃত্যু বরণ করেন। অপরদিকে আহত শুকুর আলীর অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো.আব্দুল মতিন দুর্ঘটনায় মজনু নামের পথচারীর মৃত্যুর বিষয় নিশ্চিত করেন বলেন, বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

আরও পড়ুন


আইসিবি ইসলামিক ব্যাংকে চাকরির সুযোগ

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর