জমি লিখে দিতে রাজি না হওয়ায় বাবার কবজি কেটে ফেলল ছেলে
Breaking News
জমি লিখে দিতে রাজি না হওয়ায় বাবার কবজি কেটে ফেলল ছেলে

জমি লিখে দিতে রাজি না হওয়ায় বাবার কবজি কেটে ফেলল ছেলে

অনলাইন ডেস্ক

মাগুরায় ছেলের আবদারের জমি লিখে না দেওয়ায় রাগে বাবার হাতের কবজি কেটে ফেলেছে ছোট ছেলে। মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) সকালে সদর উপজেলার হাজরাপুর ইউনিয়নের উথলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

কবজি কাটা বাবা শহীদুল হক সাধুকে গুরুতর অবস্থায় মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে ছেলে হানিফ মিয়া পলাতক।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, হানিফ মিয়া বিয়ের পর থেকেই স্ত্রীকে নিয়ে আলাদা থাকতেন। আর বাবা শহীদুল হক থাকেন বড় ছেলে গোলাম মোস্তফার সঙ্গে। তবে মাঝে মধ্যেই কিছুু জমি লিখে দেওয়ার জন্য বাবাকে চাপ প্রয়োগ করে আসছিল ছোট ছেলে হানিফ। কিন্তু আচার-আচরণ ভালো না হওয়ায় ছেলেকে কোনো সম্পত্তি লিখে দেননি বাবা। এ কারণে বাবার ওপর ক্ষুব্ধ ছিলেন হানিফ। এমনকি প্রায়ই বাবা-ছেলের মধ্যে কথা কাটাকাটি হতো। এরই জেরে মঙ্গলবার বাক্‌বিতণ্ডার এক পর্যায়ে ধারালো ছুরি দিয়ে বাবাকে এলোপাতাড়ি কোপালে বাবার হাতের কবজি কেটে পড়ে যায়।

মাগুরা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শফিউর রহমান বলেন, শহীদুল হকের মাথা এবং কপালে ধারালো ছুরির আঘাত লেগেছে। তার হাতের কবজি কেটে পড়ে গেছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তার চিকিৎসা চলছে।

মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঞ্জুর আলম বলেন, গুরুতর আহত শহীদুল হকের চিকিৎসা চলছে। এ ঘটনায় জড়িত ছেলে হানিফ মিয়াকে আটকের চেষ্টা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন


হাফ ভাড়ার প্রজ্ঞাপন চেয়ে সময় বেঁধে দিলো শিক্ষার্থীরা

news24bd.tv এসএম