পাঠাও বাইকে এখন দেশের সর্বনিম্ন কমিশন রেট
পাঠাও বাইকে এখন দেশের সর্বনিম্ন কমিশন রেট

পাঠাও বাইকে এখন দেশের সর্বনিম্ন কমিশন রেট

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশের বাইক রাইড শেয়ারিং এ মার্কেট লিডার ‘পাঠাও’ কমিশন ১০ শতাংশে কমিয়ে এনেছে। এই সিদ্ধান্তের ফলে চালকরা ‘ট্রিপ’ এর ভাড়া থেকে সর্বোচ্চ ৯০ শতাংশ আয় করতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) থেকে নতুন এই নীতি কার্যকর হচ্ছে। এদিন থেকে পিক আওয়ারে (সকাল ৮টা থেকে সকাল ১১টা এবং বিকেল ৫টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত) পাঠাও বাইকে ১০ শতাংশ করে কমিশন নেবে।

এছাড়া, অফ-পিক আওয়ারে নেবে সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ কমিশন। এটি বাংলাদেশের সকল রাইড শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মের মধ্যে সর্বনিম্ন কমিশন।

এর আগে, পাঠাও বাইকে ঢাকায় ১৫% এবং চট্টগ্রাম ও সিলেটে ২৫% কমিশন প্রযোজ্য ছিলো। নতুন নির্ধারিত এই কমিশন সারাদেশের জন্য প্রযোজ্য হবে।

পাঠাওয়ের এই পদক্ষেপের ফলে যাত্রীদের জন্য পাঠাও বাইক আরো বেশি নির্ভরযোগ্য ও সহজলভ্য হবে। বিশেষ করে পিক আওয়ারে যখন রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের চাহিদা তুলনামূলকভাবে অনেক বেড়ে যায় তখন যাত্রীরা আরো সহজে সেবা পাবেন এবং চালকরাও নিজেদের আয় বাড়াতে সক্ষম হবেন।

এ প্রসঙ্গে পাঠাও এর সিইও অ্যান্ড ম্যানেজিং ডিরেক্টর ফাহিম আহমেদ বলেন, “চালকদের আয় বৃদ্ধি এবং তাদের জীবনমানের উন্নয়নে পাঠাও সুযোগ তৈরি করেছে। এরি ফলশ্রুতিতে পাঠাও এর সাথে থাকা বিশাল রাইডার কমিউনিটির ইনকাম আরো বাড়াতে এবং তাদের নিরাপদ ও নির্ভরযোগ্য রাইড শেয়ারিং সেবা প্রদানের স্বীকৃতি স্বরূপ পাঠাও বাইকে কমিশন কমিয়ে আনা হয়েছে। ’’

আরও পড়ুন


নির্বাচনে রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে সেই মাসুদকে হত্যা করা হয়

news24bd.tv এসএম