‘নিখোঁজ’ নুসরাত জাহান!
‘নিখোঁজ’ নুসরাত জাহান!

সংগৃহীত ছবি

‘নিখোঁজ’ নুসরাত জাহান!

অনলাইন ডেস্ক

বিতর্কিত মন্তব্য বা ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে নানা সময়ে খবরের শিরোনামে থাকেন টলিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। তবে, সোশ্যাল মিডিয়াতে চোখ রাখলে সারাক্ষণই সক্রিয় থাকতে দেখা যায় তাকে। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় থাকার মধ্যেই হঠাৎ শোনা গেল ‘নিখোঁজ’ নুসরাত জাহান! হ্যাঁ, এমন পোস্টারেই সয়লাব হাড়োয়া বিধানসভার চাপাতলা পঞ্চায়েত এলাকা।

সকালে ঘুম ভাঙতেই হাড়োয়া বিধানসভা কেন্দ্রের চাঁপা তলা অঞ্চলের মানুষজন অবাক।

গোটা চাঁপাতলা পঞ্চায়েত এলাকা জুড়ে সাংসদ নুসরাত জাহানের ছবি দিয়ে পোস্টার পড়েছে, ইনি নিখোঁজ, এঁর সন্ধান চাই। সাংসদের দীর্ঘ অনুপস্থিতিতে ক্ষুব্ধ মানুষজন এই পোস্টার দিয়েছেন বলে অনুমান।  

তবে, স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেসের নেতারা এটিকে বিজেপির কাজ বলে চিহ্নিত করছেন। এর মধ্যে ঘৃণ্য রাজনীতি আছে বলে তাদের অনুমান। দেগঙ্গা-চাঁপাতলার পঞ্চায়েত প্রধান হুমায়ুন চৌধুরীর মতে, সাংসদ এলাকার সব উন্নয়নের কাজে থাকেন। দূর থেকেও তিনি খবরাখবর রাখেন। সম্ভব হলে নিজে আসেন। বিজেপি হালে পানি না পেয়ে এই সব করছে।  

হুমায়ুন যাই বলুন, উত্তর বসিরহাট, দক্ষিণ বসিরহাট, হিঙ্গলগঞ্জ, হাসনাবাদ এর মত অঞ্চলের তৃণমূল কর্মীদের মধ্যে নুসরাতকে নিয়ে ক্ষোভ আছে। আমফান ও করোনা কালে তাঁর অনুপস্থিতি নিয়ে এলাকার তৃণমূল কর্মীরাও সরব।

এদিকে, তারকা সংসদ সদস্যের অনুপস্থিতির অভিযোগে ক্ষুব্ধ বসিরহাটের সন্দেশখালি, হিঙ্গলগঞ্জ, হাসনাবাদ, বসিরহাট উত্তর ও দক্ষিণ বিধানসভার তৃণমূলের একাংশও। তৃণমূলের স্থানীয় নেতাদের একাংশের অভিযোগ, তিনি ধূমকেতু। বসিরহাটে শুধু প্রচার করতে আসেন। করোনাকালে বসিরহাটে তাকে দেখা যায়নি। গত বছর আমফানের সময়ও মানুষ তাকে পাশে পায়নি। তবে এ নিয়ে এখনও অভিনেত্রীর কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। হারানো প্রাপ্তির পোস্টার যেই দিক, নুসরাত জাহান যে আর বসিরহাটের ডার্লিং নয় তা বুঝতে অসুবিধা নেই।      

news24bd.tv/আলী