বসুন্ধরা কিংসের নারী ফুটবলারদের সংবর্ধনা

অনলাইন ডেস্ক

বসুন্ধরা কিংসের নারী ফুটবলারদের সংবর্ধনা

বাংলাদেশ নারী ফুটবল লিগে শিরোপা জয় করায় বসুন্ধরা কিংসের নারী ফুটবলারদের সংবর্ধনা দিয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপ। আজ মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর) রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় অবস্থিত ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের কনফারেন্স হলে সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে নারী ফুটবল দলের কর্মকর্তা ও খেলোয়াড়দের হাতে সম্মাননার চেক তুলে দেন বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক ও নিউজ টোয়েন্টিফোর, রেডিও ক্যাপিটালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) নঈম নিজাম, কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, বসুন্ধরা কিংসের প্রেসিডেন্ট ইমরুল হাসান প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমের এডিটর জুয়েল মাজহার।

বসুন্ধরা গ্রুপের ম্যাডাম চেয়ারম্যান ও ম্যাডাম ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পক্ষ থেকে কোচ ও ফুটবল টিমের প্রত্যেক সদস্যকে ৫০ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়। এছাড়াও ফুটবল টিমের অধিনায়ক ও সর্বোচ্চ গোলাদাতা সাবিনা খাতুনকে ৩ লাখ টাকা এবং ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট তহুরা খাতুনকে ২ লাখ টাকার চেক দেওয়া হয়।  

এসময় ইমরুল হাসান বলেন, আমাদের চেয়ারম্যান ম্যাডাম নারী ফুটবল টিমকে সংবর্ধনা দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন। তবে চেয়ারম্যান ম্যাডাম ও এমডি ম্যাডাম সকলের জন্য শুভকামনা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। বসুন্ধরা গ্রুপ অনেকদিন ধরেই খেলাধুলার সঙ্গে জড়িত। ফুটবল-ক্রিকেটের পাশাপাশি বিভিন্ন খেলাধুলায় পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছে।

তিনি আরও বলেন, ২০১৬ সালে বসুন্ধরা কিংসের যাত্রা শুরুর পর হতেই বাংলাদেশের ফুটবল জগতে নবজাগরণ শুরু হয়েছে। পুরুষ ফুটবলের পাশপাশি এবার আমরা নতুন করে নারী দল গঠন করলাম। আমি মনে করি, নারী ফুটবল দলে সোনা নয় সেখানে হীরা ফলেছে।  নারী ফুটবল টিম যে রেকর্ড গড়েছে আমার মনে হয়, অদুর ভবিষ্যতে বাংলাদেশের জন্য ফুটবলে এই রেকর্ড কেউ ভাঙতে পারবে না। সেজন্য আমরা সকল খেলোয়াড়ের প্রতি কৃতজ্ঞ। পাশাপাশি যারা কোচিংয়ের সঙ্গে আছে তাদেরকেও অভিনন্দন। তাদের কঠোর পরিশ্রমের ফলে এই অর্জন সম্ভব হয়েছে।

বসুন্ধরা কিংসের প্রেসিডেন্ট বলেন, বসুন্ধরা কিংস এ পর্যন্ত নারী ফুটবল নিয়ে ছয়টি টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করেছে। এরমধ্যে পাঁচটিতে চ্যাম্পিয়ন ও একটিতে রানার্স-আপ হয়েছি। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এটাও একটা বিশাল অর্জন। সবচেয়ে বড় কথা, আমরা চ্যাম্পিয়নস লিগে অভিষেক আসরেই চ্যাম্পিয়ন, প্রিমিয়ার লিগে অভিষেক আসরে চ্যাম্পিয়ন ও নারী ফুটবল লিগেও অভিষেক আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছি। 

এই রেকর্ড সহসা কারও দ্বারা ভাঙা সম্ভব হবে না। আমরা এতেই সন্তুষ্ট থাকতে চাই না। দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশেও সুনাম ছড়িয়ে দিতে চাই। এজন্য খেলোয়াড় এবং কোচদের সর্বাত্বক চেষ্টা আমাদের প্রয়োজন। আশা করি, আপনাদের সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বসুন্ধরা কিংসের নাম দেশের বাইরে বিদেশেও ছড়িয়ে দিতে পারব।

বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজাম বলেন, তোমরা যারা, খেলোয়াড়রা বসুন্ধরা কিংসকে গৌরবান্বিত করলে, সকলকে আমি অভিনন্দন ও অভিবাদন জানাচ্ছি। আর নারী ফুটবল টিমকে গড়ে তোলার জন্য কোচ টিম ও ম্যানেজমেন্ট শ্রম-মেধা দিয়ে আজকের এই পথ পরিক্রমা তৈরী করলেন, তাদের সকলকে অভিবাদন জানাচ্ছি।

কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন বলেন, আমি খুব বিস্মিত হয়েছি যে, বসুন্ধরা কিংসের মেয়েরা ১২টি খেলায় ১১৯টি গোল দিয়েছে। এরকম ইতিহাস আমি পৃথিবীতে কোনোদিন শুনিনি। একটি মেয়ে একাই ৩৫টি গোল দিয়েছে। আমার কাছে এটি বিস্ময়ের ঘটনা। আমি মনে করি, আমাদের মেয়েরা শুধু বাংলাদেশ নয়, ফুটবলে গোটা পৃথিবীকে আলোকিত করবে। সেই স্বপ্নটা আমি দেখি। কারণ বসুন্ধরা কিংস একটি নারী ফুটবল টিম তৈরী করলো এবং সেই মেয়েরা দেশ কাঁপিয়ে দিল।

আরও পড়ুন:


সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

ফাইনাল না খেলে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে সাকিব

'যুক্তরাষ্ট্র সাইবার হামলা ঠেকাতে ব্যর্থ হলেই রাশিয়ার ঘাড়ে দোষ চাপায়'

বোমা হামলায় কাবুলের ডেপুটি গভর্নর নিহত


news24bd.tv কামরুল

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

এ যাবৎ টিকা নিয়ে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার শিকার ৮৪৮ জন

অনলাইন ডেস্ক

এ যাবৎ টিকা নিয়ে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার শিকার ৮৪৮ জন

সারা দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় টিকা নিয়েছেন ১ লাখ ৭ হাজার ২০০ জন। তাদের মধ্যে মাত্র ২৩ জনের সামান্য জ্বর, টিকা দেওয়া স্থানে লাল হাওয়া দেখা গেছে। রোববার (৭ মার্চ) সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (এমআইএস) অধ্যাপক ডা. মিজানুর রহমান এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান।

আরও জানানো হয়, আর এখন পর্যন্ত টিকা নিয়েছেন ৩৭ লাখ ৮৯ হাজার ৩৫২ জন। তাদের মধ্যে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা গেছে ৮৪৮ জনের। পাশাপাশি টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন ৫০ লাখ ১৭ হাজার ৮০৪ জন।



রাঙামাটিতে বিজিবি-বিএসএফের পতাকা বৈঠক

৭৫০ মে.টন কয়লা নিয়ে জাহাজ ডুবি, শুরু হয়নি উদ্ধার কাজ

মোবাইলে পরিচয়, দেখা করতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী

নোয়াখালীতে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা: স্বামী আটক


এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় টিকা নিয়েছেন এক লাখ ১৭ হাজার ৮০৪ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৬৫ হাজার ৪৩০ জন ও নারী ৪১ হাজার ৭৭০ জন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ঢাকা বিভাগে ৩৯ হাজার ২৪৪ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ৪ হাজার ৩২ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৮ হাজার ২৫০ জন, রাজশাহী বিভাগে ১১ হাজার ৪৫ জন, রংপুর বিভাগে ৯ হাজার ৫৯০ জন, খুলনা বিভাগে ১৬ হাজার ৮৬৯ জন, বরিশাল বিভাগে ৩ হাজার ৮০৬ জন ও সিলেট বিভাগে ৪ হাজার ৩৬৪ জন রয়েছেন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খুলনায় দেড় লাখ ক্ষুদে কন্ঠে উচ্চারিত হলো বঙ্গবন্ধুর ভাষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

খুলনায় দেড় লাখ ক্ষুদে কন্ঠে 
উচ্চারিত হলো বঙ্গবন্ধুর ভাষণ

‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম ....’ খুলনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে জুম ওয়েবিনারের মাধ্যমে এক লাখ ৫০ হাজার ১৫১ জন ক্ষুদে শিক্ষার্থীর কণ্ঠে উচ্চারিত হলো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষন।

বঙ্গবন্ধুর সাথে মিল রেখে তাদের পরনে ছিল সাদা পাঞ্জাবি কালো মুজিবকোট। শিক্ষার্থীরা লাল-সবুজ জাতীয় পতাকার নিচে দাঁড়িয়ে শপথ নিলো বঙ্গবন্ধুর আদর্শে দেশ গড়ার। 

আজ রোববার ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে খুলনায় ব্যতিক্রমী এ আয়োজন করে খুলনা জেলা প্রশাসন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে জুম ওয়েবিনারে যুক্ত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, খুলনায় দেড় হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় দেড় লাখ ক্ষুদে বঙ্গবন্ধুকে দিয়ে ৭ মার্চের ভাষন উপস্থাপনা আজকের দিনের সবচেয়ে ব্যতিক্রমী আয়োজন। 


সালমান খানের তোয়ালে পরা ছবি ভাইরাল

দেব-মিমি-নুসরাত যে কারণে প্রার্থীদের তালিকায় নেই

চুম্বনের দৃশ্যের আগে ফালতু কথা বলতো ইমরান : বিদ্যা

রণবীরের সঙ্গে ক্যাটরিনার খোলামেলা ছবি বিশ্বাস হয়নি সালমানের


জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তৃতা করেন সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, বিভাগীয় কমিশনার মো, ইসমাইল হোসেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন। 

জানা যায়, ঢাকায় কেন্দ্রিয় অনুষ্ঠানের সাথে মিল রেখে বেলা ৩টা ১৯ মিনিটে ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা একই সাথে বঙ্গবন্ধুর ভাষন উপস্থাপন করে। খুলনা বয়রা মডেল স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে ১৫১ জন শিক্ষার্থী ও একই সাথে জুম ওয়েবিনারের মাধ্যমে জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দেড় লাখ শিক্ষার্থী এতে অংশ নেয়। চাইল্ড ইন্টিগ্রিটি ও শিশু বঙ্গবন্ধু ফোরামের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

স্বাধীনতা পদক পেলেন যারা

অনলাইন ডেস্ক

স্বাধীনতা পদক পেলেন যারা

জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে শ্রমিক নেতা আহসান উল্লাহ মাস্টার, কবি মহাদেব সাহা, সুরকার-গীতিকার গাজী মাজহারুল আনোয়ারসহ ৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠান ২০২১ সালের স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছে।

 রোববার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

দেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান দেওয়ার জন্য ২০২১ সালের মনোনীতদের তালিকা রোববার প্রকাশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

পদকপ্রাপ্তদের তালিকা-

১. মরহুম এ কে এম বজলুর রহমান (স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ)

২. শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার (স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ)

৩. মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খুরশিদ উদ্দিন আহমেদ (স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ)

৪. মরহুম আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু (স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ)

৫. ড. মৃন্ময় গুহ নিয়োগী (বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি)

৬. মহাদেব সাহা (সাহিত্য)


অভাব দুর হবে, বাড়বে ধন-সম্পদ যে আমলে

সংবাদ উপস্থাপনায় ও নাটকে রূপান্তরিত দুই নারী

করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণে বাধা নেই ইসলামে

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


৭. আতাউর রহমান (সংস্কৃতি)

৮. গাজী মাজহারুল আনোয়ার (সংস্কৃতি)

৯. অধ্যাপক ডা. এম আমজাদ হোসেন (সমাজসেবা/জনসেবা)

১০. বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল (গবেষণা ও প্রশিক্ষণ)।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করোনার টিকা গ্রহণের ১২ দিন পর ব্যবসায়ীর মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

করোনার টিকা গ্রহণের ১২ দিন পর ব্যবসায়ীর মৃত্যু

করোনার টিকা নেওয়ার ১২ দিন পর করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন মাদারীপুরের বিল্লাল সরদার (৪৮) নামে এক ব্যবসায়ী। 

গত ২২ ফেব্রুয়ারি জেলা সদর হাসপাতালের করোনা ভাইরাস প্রতিরোধক ভ্যাকসিন (টিকা) গ্রহণ করেন বিল্লাল। পরদিন তার জ্বর আসলে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নেওয়া শুরু করেন তিনি। ৪ দিনেও জ্বর না কমলে পরবর্তীতে গলাব্যথা, কাশি ও শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। একপর্যায়ে গত ২ মার্চ শহরের বাবু চৌধুরী জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক টিএম সাহিন ইকবালের মাধ্যমে তিনি চিকিৎসাও নেন।

অবস্থার অবনতি হলে গত ৬ মার্চ জেলা সদর হাসপাতালে তাকে ভর্তি করেন পরিবারের লোকজন। শনিবার বিকেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতাল থেকে তাকে ঢাকায় নেওয়ার পথে মারা যান বিল্লাল। 

শনিবার রাতে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে বিল্লালের দাফন সম্পন্ন হয়।


অভাব দুর হবে, বাড়বে ধন-সম্পদ যে আমলে

সংবাদ উপস্থাপনায় ও নাটকে রূপান্তরিত দুই নারী

করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণে বাধা নেই ইসলামে

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


বিল্লাল সরদারের ছেলে সাগর সরদার বলেন, আমার বাবা টিকা নেওয়ার পর অসুস্থ হলে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়। একপর্যায়ে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়ার পথে মারা যান তিনি। কিন্তু কী কারণে বাবা মারা গেলেন কিছুই বুঝতে পারছি না।

মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) ড. রহিমা খাতুন বলেন, এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়সহ স্বাস্থ্য বিভাগের উচ্চপর্যায়ে অবগত করা হবে। কী কারণে তিনি মারা গেলেন স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে পরীক্ষার পরে বলা যাবে।

খবর পেয়ে রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে সিভিল সার্জন ডা. সফিকুল ইসলাম, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সার্ভিরেন্ট অ্যান্ড ইমোনাইজেশন মেডিকেল অফিসার (সিমু) ডা. বিকাশ চন্দ্র দাস, ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর মাদারীপুরের সহকারী পরিচালক মহেশ্বর কুমার মণ্ডল, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. ইকরাম হোসেন, সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. এইচএম খলিলুজ্জামানসহ স্বাস্থ্য বিভাগের একাধিক কর্মকর্তা পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন।

সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. এইচএম খলিলুজ্জামান জানান, গত ৫ মার্চ সদর হাসপাতাল থেকে বিল্লাল সরদারের করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ৬ মার্চ করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। টিকা নেওয়ার পর বিল্লাল সরদার মারা যাওয়ার বিষয়টি নিয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের একাধিক অভিজ্ঞ প্রতিনিধি কাজ করছেন। তার অন্য কোনো রোগ ছিল কি না কিংবা অন্যকোনো কারণে তার মৃত্যু হয়েছে কি না সেগুলো নিয়ে অভিজ্ঞরা মাঠে কাজ শুরু করেছেন।

বিল্লাল সদর উপজেলার পেয়ারপুর ইউনিয়নের মধ্য পেয়ারপুর গ্রামের বাসিন্দিা ছিলেন। স্থানীয় চরমুগরিয়া বন্দরের থাই ও অ্যালমুনিয়াম ব্যবসা করতেন বিল্লাল।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দীর্ঘ এক বছর পর গণভবন থেকে বের হলেন শেখ হাসিনা

অনলাইন ডেস্ক

দীর্ঘ এক বছর পর গণভবন থেকে বের হলেন শেখ হাসিনা

দেশে করোনার প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে জীবনযাপন করে আসছিল। আজ প্রায় দীর্ঘ এক বছর পর গণভবন থেকে বের হলেন তিনি। ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাতে ধানমন্ডিতে যার তিনি।

আজ রোববার (৭ মার্চ) সকাল ৭টায় রাজধানীর ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি। পরে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর ছোট বোন শেখ রেহানাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মন্ত্রিপরিষদের সদস্য ও দলের সিনিয়র নেতারা উপস্থিত ছিলেন। 

দলীয় সভাপতির শ্রদ্ধা জানানোর পর দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।


সালমান খানের তোয়ালে পরা ছবি ভাইরাল

দেব-মিমি-নুসরাত যে কারণে প্রার্থীদের তালিকায় নেই

চুম্বনের দৃশ্যের আগে ফালতু কথা বলতো ইমরান : বিদ্যা

রণবীরের সঙ্গে ক্যাটরিনার খোলামেলা ছবি বিশ্বাস হয়নি সালমানের


এর আগে, একাধিক অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে বাইরে বের হতে না পারার অনুভূতি ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি তার বন্দি জীবনের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী হলে সব স্বাধীনতা থাকে না। আমিও একরকম বন্দি জীবনযাপন করছি। বের হতে পারি না। কারণ আমার বের হওয়ার সঙ্গে প্রায় এক হাজার লোকের সম্পৃক্ততার বিষয় জড়িত। এ জন্য ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও আমি বাইরে বের হতে পারি না।

সম্প্রতি, মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে নিজের শিক্ষক জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের হাতে সশরীরে উপস্থিত হয়ে পদক তুলে দিতে না পারার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী। 

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর