সালমানের টানে মায়ামি থেকে মুম্বাই, বিচ্ছেদের কারণ ঐশ্বরিয়া

অনলাইন ডেস্ক

সালমানের টানে মায়ামি থেকে মুম্বাই, বিচ্ছেদের কারণ ঐশ্বরিয়া

সালমান খানকে বিয়ে করার লক্ষ্যে ১৯৯১ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়সে যুক্তরাষ্ট্রের মায়ামি থেকে ভারতের মুম্বাইয়ে যান পাকিস্তানি মেয়ে সোমি আলি। এক বছর পর সালমানের সঙ্গে সাক্ষাৎ, ধীরে প্রেমে জড়ান সোমি। মধ্য-নব্বইয়ে বি-টাউনে সালমান-সোমির প্রেম ছিল আলোচনার কেন্দ্রে। কিন্তু সেই সম্পর্কের অবসান হয় ১৯৯৯ সালে। এরপর সোমি ফিরে যান যুক্তরাষ্ট্রে।

সম্প্রতি ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার সঙ্গে একান্ত আলাপে সেই সব দিনের কথা বলেছেন সোমি আলি। বলেছেন, বহু বছর সালমানের সঙ্গে তাঁর কথা হয় না।

যুক্তরাষ্ট্রে ফেরার পর সোমি আলি পড়াশোনা শুরু করেন। কয়েক বছর পর একটি সংগঠন গড়ে তোলেন, নাম ‘নো মোর টিয়ার্স’। মানসিক ও শারীরিকভাবে নিগৃহীতদের সাহায্য করে সংগঠনটি। এক সাক্ষাৎকারে সোমি আলি বলেছিলেন, ঐশ্বরিয়া রাইয়ের কারণে সালমানের সঙ্গে তাঁর বিচ্ছেদ হয়েছিল।

৩০ বছর আগে মুম্বাইয়ে যাওয়া প্রসঙ্গে সোমি আলি বলেন, “১৯৯১ সালে আমার বয়স ছিল ১৬ বছর। আমি ‘ম্যায়নে পিয়ার কিয়া’ দেখেছিলাম এবং ‘এই মানুষটিকে বিয়ে করব!’ ভেবে গিয়েছিলাম। আমি মাকে বলেছিলাম, কালই ভারতে যাচ্ছি। ওই রাতে আমি স্বপ্ন দেখেছিলাম, সালমানকে বিয়ে করতে যেতে হবে। কারণ, সে আমার ত্রাতা হতে চলেছে। তার মন গলল না, বাবাকে ডাকলাম। কিন্তু কেন আমি ভারতে যেতে চাইছি, তা অবশ্য বলিনি।”

আরও পড়ুন:


বাইডেনের সঙ্গে মোদির ফোনালাপ, কথা হল যে বিষয় নিয়ে

ইরানের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধের অধিকার কেড়ে নিতে হবে: মার্কিন সিনেটর

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় বছরে পঙ্গু হয় সহস্রাধিক

দ্রুত এগিয়ে চলেছে স্বপ্নের মেট্রোরেল, প্রস্তুত ৫টি স্টেশন


সালমান খানের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর মায়ামিতে চলে যান সোমি আলি। দীর্ঘ সাক্ষাৎকারের এক পর্যায়ে তিনি সে প্রসঙ্গে বলেন, ‘১৯৯৯ সালের ডিসেম্বরে আমি যুক্তরাষ্ট্রে ফেরার সিদ্ধান্ত নিই। প্রাথমিক কারণ ছিল, সম্পর্ক খুব খারাপ অবস্থায় পৌঁছেছিল। মনে রাখা দরকার, আমি নবম গ্রেড পর্যন্ত পড়েছিলাম এবং আর পড়াশোনা ছিল না। ফিরেই পড়াশোনা শেষ করার আকাঙ্ক্ষা ছিল। আমি মনে করি, সেটা আমার সেরা সিদ্ধান্ত ছিল। সম্প্রচার সাংবাদিকতায় আমার মাস্টার্স ডিগ্রি রয়েছে।’

মুম্বাইকে মিস করেন? এমন প্রশ্নের জবাবে সোমি আলি জানান, তিনি পানি পুরি ও পাও ভাজি মিস করেন। ঘরে যে পাঁচজন মানুষ তাঁকে সাহায্য করতেন, তাঁদের মিস করেন। এ ছাড়া অনেকের কথা মনে পড়ে তাঁর। এখন সোমির বয়স ৪০ হয়েছে। সেই ষোড়শী মেয়েটি আর নেই। আজও ভারতকে ভালোবাসেন আর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, কখনো ভারতে গেলে তিনি নিশ্চয়ই তাজমহল দেখতে যাবেন।

সেই ১৬ বছর বয়সে প্রেমের দেখা পেয়েছিলেন সোমি আলি। আর প্রেমের সন্ধান মেলেনি? উত্তরে হেসে সোমি বলেন, ‘আমি আমার সংগঠনের সঙ্গে সংসার করে সুখী আছি। যদি আপনি প্রেমের সন্ধান করেন, তবে সেটি ধরা দেবে না। এখন আমি সন্তানও চাই না, কিন্তু যখন ভারতে ছিলাম, চাইতাম। তখন আমি চাইতাম, বিয়ে করব, পাঁচ সন্তান হবে; কিন্তু এখন এ চল্লিশে এসে আর চাই না। যদি ভালোবাসা আসে এবং আমাদের মানসিকতা একই হয়, তবে নিশ্চয়ই এগোব, কিন্তু এমন মানুষের দেখা আমি এখনো পাইনি।’

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ

অনলাইন ডেস্ক

সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ

সমাজসেবার কারণে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ। গত শনিবার (১০ এপ্রিল) ভারতের তামিলনাড়ুর গ্লোবাল হিউম্যান পিস ইউনিভার্সিটি তাকে এ সম্মাননা দিয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে উল্লেখ করে, বিশ্বের প্রথম শিল্পী হিসেবে ৭০০টির বেশি একক অ্যালবামের রেকর্ড, সুদীর্ঘ ৩০ বছর বাংলা গানকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরা ও সমাজসেবা ছাড়াও নানামুখী কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত রেখে নিজেকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন মমতাজ।


‘খেলাফত প্রতিষ্ঠা হলে ধরব আর জবাই করব’ বক্তব্য দেওয়া হেফাজত নেতা রিমান্ডে

ফরিদা পারভীনের ফুসফুসের ৫০ শতাংশ আক্রান্ত

সাপ্তাহিক বন্ধের দিনও খোলা বসুন্ধরা সিটি শপিংমল

এদেশে জন্ম নেওয়া কি পাপ, প্রশ্ন নুরুর


যে কারণে তারা বিশেষ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শনিবার ‘ডক্টর অব মিউজিক’ পদক প্রদান করে।

এই বিশেষ পুরস্কার দেন বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ড. পি. ম্যানুয়েল। এর ফলে বহু সম্মানে ভূষিত এ শিল্পী প্রথমবারের মতো ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন।

মমতাজ বলেন, ‘এটা আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া। ৩০ বছর ধরে আমি মা-মাটির গান করে চলেছি; মানুষের সেবা করেছি। এই প্রাপ্তি কাজ করতে আমাকে আরও অনুপ্রাণিত করবে।’

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ঠিকমতো হাঁটতে পারছেন না নায়ক ওয়াসিম

অনলাইন ডেস্ক

ঠিকমতো হাঁটতে পারছেন না নায়ক ওয়াসিম

বাংলা চলচ্চিত্রের ৮০ দশকের জনপ্রিয় নায়ক ওয়াসিম দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। এই নায়ক কিছুদিন ধরে অসুস্থ হয়ে বাসাতেই আছেন। পারছেন না ঠিকমতো হাঁটতেও। তাই বিছানাতে শুয়ে-বসে দিন কাটছে তার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসব তথ্য জানিয়েছেন শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।


‘খেলাফত প্রতিষ্ঠা হলে ধরব আর জবাই করব’ বক্তব্য দেওয়া হেফাজত নেতা রিমান্ডে

ফরিদা পারভীনের ফুসফুসের ৫০ শতাংশ আক্রান্ত

সাপ্তাহিক বন্ধের দিনও খোলা বসুন্ধরা সিটি শপিংমল

এদেশে জন্ম নেওয়া কি পাপ, প্রশ্ন নুরুর


তিনি বলেন, ‘ওয়াসিম ভাই কিছুদিন ধরে অনেক অসুস্থ। হাঁটতে পারছেন না। বিছানাতে শুয়েই কাটছে সময়। সবার কাছে দোয়া চাচ্ছি, ওয়াসিম ভাইয়ের জন্য।’

ঢালিউডে ওয়াসিমের অভিষেক হয় ১৯৭২ সালে। সহকারী পরিচালক হিসেবে ‘ছন্দ হারিয়ে গেল’ চলচ্চিত্রে কাজ করেন। নায়ক হিসেবে তার যাত্রা শুরু হয় মহসিন পরিচালিত ‘রাতের পর দিন’ সিনেমার মাধ্যমে। দিন যতই যেতে থাকে ওয়াসিমের জনপ্রিয়তা ততই আকাশচুম্বী হয়। বাণিজ্যিক ঘরানার সিনেমার অপরিহার্য নায়ক হয়ে ওঠেন তিনি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ফরিদা পারভীনের ফুসফুসের ৫০ শতাংশ আক্রান্ত

অনলাইন ডেস্ক

ফরিদা পারভীনের ফুসফুসের ৫০ শতাংশ আক্রান্ত

করোনায় আক্রান্ত মা ফরিদা পারভীনের জন্য চিন্তিত ছেলে ইমাম জাফর নোমানী। মায়ের জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন তিনি।

প্রখ্যাত লালনশিল্পী ফরিদা পারভীনের করোনা শনাক্ত হয় গত ৮ এপ্রিল। ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী এ কয়দিন বাসাতে চিকিৎসা নিলেও আজ দুপুরে তাকে  ইউনিভার্সেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


ছেলে ইমাম জাফর নোমানী বলেন, ‘আমার আম্মা এই কয়েকদিন বাসা থেকে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। কিন্তু, সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট অনুযায়ী আম্মার ফুসফুসের প্রায় ৫০ শতাংশ আক্রান্ত হয়েছে৷ ডাক্তারের বিশেষ পরামর্শে খুব দ্রুত তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে৷ তার সুস্থতার জন্য দোয়া করবেন।’

ফরিদা পারভীন লালনের গান গেয়ে দেশে-বিদেশে খ্যাতি পেয়েছেন৷ ১৯৫৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর নাটোর জেলার সিংড়া থানার শাওল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে গডজিলা-কংয়ের লড়াই

অনলাইন ডেস্ক

বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে গডজিলা-কংয়ের লড়াই

করোনাভাইরাসের ঝড়ে আক্রান্ত বৈশ্বিক অর্থনীতি। এর আঁচ লেগেছে বড়পর্দার জগতেও। অনেকেই এই মহামারিতে পিছিয়ে দিচ্ছেন ছবি মুক্তির দিনক্ষণ। তবে এই মহামারির মধ্যেও হলিউডে ঝড় তুলেছে ‘গডজিলা ভার্সেস কং’ ছবিটি।

অ্যাডাম উইংগার্ড পরিচালিত সায়েন্সফিকশন ও অ্যাকশন চলচ্চিত্র 'গডজিলা বনাম কং'। কিং কং ফ্র্যাঞ্চাইজির ১২তম সিনেমাটি মুক্তির প্রথম পাঁচ দিনেই আয় করে নিয়েছে ৪৮.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

শ্রেঠত্বের লড়াইয়ে জেতার যুদ্ধে বিশালাকার দুইটি প্রাণীর এই সিনেমাটি পুরো দুনিয়াজুড়ে এখন পর্যন্ত আয় করেছে ২৮৫.৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আয় হয়েছে চীন থেকে ৪৪.২ মিলিয়ন ডলার।


আরও পড়ুনঃ


শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যদের নিয়েই হবে প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য

বাংলাদেশের জিহাদি সমাজে 'তসলিমা নাসরিন' একটি গালির নাম

করোনা আক্রান্ত প্রতি তিনজনের একজন মস্তিষ্কের সমস্যায় ভুগছেন: গবেষণা

কুমারীত্ব পরীক্ষায় 'ফেল' করায় নববধূকে বিবাহবিচ্ছেদের নির্দেশ


ফ্র্যাঞ্চাইজ এন্টারটেইনমেন্ট রিসার্চ পরামর্শদাতা ডেভিড এ গ্রস গণমাধ্যমকে জানান, 'করোনার এই সময়েও সিনেমাটি প্রথম দিন থেকেই ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ৫০ শতাংশেরও বেশি প্রেক্ষাগৃহ খুলে দেওয়ার পেছনেও বেশ বড় ভূমিকা রেখেছে এই সিনেমা। যদিও নিউইয়র্ক সিটি এবং লস অ্যাঞ্জেলেসসহ অনেকগুলো জায়গাতেই স্বাস্থ্যবিধির নানা জটিলতায় অনেক প্রেক্ষাগৃহ এখনো খোলা সম্ভব হয়নি৷ তাহলে লাভের পরিমাণটা আরও বড় হতো।'

করোনা পরবর্তী সময়ে মুক্তি প্রাপ্ত 'ওয়ান্ডার ওম্যান ১৯৮৪'-কেও পেছনে ফেলেছে ছবিটি। বর্তমানে বক্স অফিস তালিকার শীর্ষে রয়েছে ছবিটি।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মা–বাবার পাশে দাফন করা হলো মিতা হককে

অনলাইন ডেস্ক

মা–বাবার পাশে দাফন করা হলো মিতা হককে

স্বনামধন্য রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী মিতা হককে কেরানীগঞ্জের বড় মনোহারিয়ায় জানাজা শেষে মা–বাবার কবরের পাশে দাফন করা হয়েছে। আজ রোববার জোহরের নামাজের পর তাকে দাফন করা হয়।

বেলা ১১টায় তাঁর মরদেহ নেওয়া হয় ছায়ানট সংস্কৃতি–ভবনে। সেখানে ফুল দিয়ে মিতা হককে শেষ শ্রদ্ধা জানান তাঁর সহকর্মী, স্বজন, শিক্ষার্থী ও গুণগ্রাহীরা।

মিতা হক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন একটি বেসরকারি হাসপাতালে।

চার দিন আগে করোনার নমুনা পরীক্ষা করিয়ে দেখা যায়, তিনি করোনামুক্ত।


খালেদা জিয়াসহ ফিরোজা বাসভবনের সবাই করোনায় আক্রান্ত, চলছে চিকিৎসা

ভ্যাকসিন নিয়ে পাইলট-কেবিন ক্রুরা ৪৮ ঘণ্টা ফ্লাইটে যেতে পারবেন না

মাদরাসা ও মসজিদ লকডাউনের আওতামুক্ত রাখার দাবি


তাঁকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে অসুস্থতা বোধ করলে তাঁকে আবার হাসপাতালে নেওয়া হয়। আজ ভোর ৬টা ২০ মিনিটে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

তার মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

রাষ্ট্রপতি আজ এক শোকবার্তায় মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

রাষ্ট্রপতি বার্তায় বলেন, বাংলাদেশে রবীন্দ্রচর্চা ও রবীন্দ্রসংগীত সাধারণ মানুষের কাছে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে মিতা হকের প্রচেষ্টা মানুষ শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে। প্রধানমন্ত্রী মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর