কিশোরীকে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করায় নারী আটক
কিশোরীকে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করায় নারী আটক

প্রতীকী ছবি

কিশোরীকে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করায় নারী আটক

Other

কিশোরীকে কাজের কথা বলে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করার অভিযোগে ফাতেমা খাতুন (৪৩) নামের এক নারীকে আটক করেছে নেত্রকোনার দুর্গাপুর থানার পুলিশ। এ সময় ভুক্তভোগী ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে ঢাকায় বোনের কাছে পাঠিয়েছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে আটককৃত নারী ফাতেমাকে আজ শুক্রবার সকালে আদালতে পাঠানো হয়েছে।  

পুলিশ জানায়, মাদারীপুর জেলার এক কিশোরী মামার বাড়ি থেকে রাগ করে ঢাকায় কাজের উদ্যেশ্যে গামেন্টর্সকর্মী বোনের বাড়ি চলে আসে।

বোন মিতু কাজের জন্য নেত্রকোনার দুর্গাপুর এলাকার ফাতেমার কাছে দেন।  

ফাতেমা নিজ গ্রাম নেত্রকোনা জেলার দুর্গাপুরের চর মোক্তারপাড়া এলাকায় কিশোরীকে এনে কাজে না দিয়ে নিজ বাসায় পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে। কিন্তু এ কাজ করতে না চাইলে তাকে আটকে রেখে নির্যাতন চালায়। পরে গত বৃহস্পতিবার বিকালে কৌশলে কিশোরী পালিয়ে গিয়ে পার্শ্ববর্তী আশ্রয়ন প্রকল্পে গিয়ে আশ্রয় নেয়।  

খোঁজ পেয়ে সেখান থেকে ফাতেমা ওই কিশোরীকে নিয়ে আসতে গেলে আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্ধারা থানায় খবর দিয়ে কিশোরীকে উদ্ধার করে। পরে পুলিশ গিয়ে ফাতেমাকে আটক করে কিশেরাকে উদ্ধার করে ঢাকায় বোনের বাড়ি পাঠায়। এ ঘটনায় কিশোরী বাদী হয়ে থানায় একটি মাামলা দায়ের করেছে।  

দুর্গাপুর থানার ওসি শাহ নুর এ আলম সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, কিশোরীটি ওই আশ্রয়ন প্রকল্পে গিয়ে আশ্রয় চাইলে সেখান থেকেও নিয়ে যেতে চেয়েছিল। পরে আমাদেরকে খবর দিলে আমরা সেখানে গিয়ে কিশোরীকে উদ্ধার করে তার বোনের কাছে পাঠাই। এদিকে অভিযুক্ত নারীকে আটক করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আটক নারী ওই এলাকার আবুল কাশেমের স্ত্রী। তার বিরুদ্ধে এলাকায় অনৈতিক কাজ করার নানা অভিযোগ রয়েছে।  

আরও পড়ুন:


করোনায় স্কুল বন্ধ থাকায় শ্রেণিকক্ষে সপরিবারে বসবাস

বগুড়ায় বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার দুই নারী যাত্রী নিহত

জামালপুর থেকে নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রীকে ঢাকা থেকে উদ্ধার

যশোরের ১৮টি রুটে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে


NEWS24.TV / কামরুল