সৌন্দর্যে ভরা সুনামগঞ্জের সব হাওড়গুলো পর্যটকে মুখরিত

মো. বুরহান উদ্দিন, সুনামগঞ্জ

সৌন্দর্যে ভরা সুনামগঞ্জের সব হাওড়গুলো পর্যটকে মুখরিত

দীর্ঘদিন ধরে লকডাউনে আটকে থাকা পর্যটকদের ভিড়ে মুখরিত হয়ে উঠেছে দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ পর্যটন কেন্দ্র সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওর, যাদুকাটা, নিলাদ্রী, হাওর বিলাস, পাহাড় বিলাস, বারেকটিলা, লাউড়েরগড় (হাজার বছরের স্থাপনা) সহ মুক্তিযোদ্ধের স্মারক স্থাপনাগুলিতে।

প্রকৃতিপ্রেমী ও ভ্রমণপিপাসুদের চিত্রবিনোদনের একসাথে এতো স্পট এতো আয়োজন আর কোথাও পাওয়া যাবে না। প্রকৃতির সৌন্দর্যমন্ডিত ঢালা আর কোথায় আছে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার মাত্র কয়েক কিলোমিটারের মধ্যে ছাড়া। পারিবারিক বিনোদন কিংবা বন্ধুদের অথবা অফিসের সহকর্মীদের নিয়ে পরিপূর্ণ বিনোদনের জায়গা ভারতের মেঘালয়ের পাদদেশে অবস্থিত সুনামগঞ্জের সবগুলো পর্যটনকেন্দ্র।

‘হাওরকন্যা’ বলা হয় সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওরকে। পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয়। সারি সারি হিজল, করচ আর নল খাগড়ার বন।সমৃদ্ধ ও সম্ভাবনাময় এ জলাভূমিটি দেশের দ্বিতীয় ‘রামসার সাইট’। সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর ও ধর্মপাশা উপজেলায় এ হাওরের অবস্থান।

৪টি ইউনিয়নের ১৮টি মৌজাজুড়ে এর আয়তন ১২ হাজার ৬৫৫ হেক্টর। হাওরে আগে ১২০ কান্দাবিশিষ্ট (পাড়) ১৮০টি বিল ছিল। এখন ছোট-বড় মিলিয়ে বিল আছে ১০৯টি। প্রধান বিল ৫৪টি। এর ভেতর জালের মতো ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে অসংখ্য খাল ও নালা। বর্ষায় সব মিলেমিশে একাকার হয়ে যায়। তখন হাওর যেন রূপ নেয় সমুদ্রে।

এ এলাকার ৮৮টি গ্রামের প্রায় লক্ষাধিক মানুষ হাওরের ওপর নির্ভরশীল। এর উত্তরে ভারতের মেঘালয় পাহাড়। এ পাহাড় থেকে ৩৮টি ঝর্ণা নেমে এসে মিশেছে টাঙ্গুয়ার হাওরে।

এছাড়া দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে বারেকটিলা, যাদুকাটা নদী, সীমান্ত ছড়া, শহীদ সিরাজ লেক (নিলাদ্রী লেক), শিমুল বাগান, হাওর বিলাস, পাহাড় বিলাসসহ একাধিক পর্যটন স্পটগুলো।

টাঙ্গুয়ার হাওর যেতে তাহিরপুর-বিশ্বম্ভরপুরের সড়কের পাশে খরচার হাওরে নির্মিত হয়েছে পাহাড় বিলাস। অন্যদিকে ভারতের সীমান্ত ঘেষা সোলকাবাদ ইউনিয়নের চেংবিলে নির্মাণ করা হয় পাহাড় বিলাস। সেখানেও ভ্রমণ পিপাসুরা প্রতিদিন ভিড় করছেন। ফলে দিন দিন পর্যটক বাড়ছে হাওরবেষ্টিত এই জেলায়।

আরও পড়ুন


পাঁচ বছরে বাংলাদেশকে ১২০০ কোটি ডলার দেবে এডিবি

লোহাগড়ায় বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার

বিচারের কাঠগড়ায় অং সান সুচি

‘বিসমিল্লাহ’র ফজিলত


বিশেষ করে বন্ধের দিন পর্যটকের সংখ্যা বেড়ে যায় কয়েকগুণ। বেড়ে যায় নৌকা কেন্দ্রীক হাওর ভ্রমণও। বাহাড়ি নামে রয়েছে শতাধিক নৌকা। আবাসন সুবিধা না থাকায় নৌকাতেই থাকা খাওয়া, ঘুম ও হাওরে ঘোরাঘুরির কাজটা সেরে নিচ্ছেন ঘুরতে আসা দর্শনার্থীরা। এদিকে হাওরের জীববৈচিত্র্যে রক্ষায় শব্দ দূষণ বন্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন জানিয়েছেন, সুনামগঞ্জের পর্যটন ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যানসহ জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের তত্বাবধায়নে মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার রাখা হয়েছে।

টাঙ্গুয়ার হাওর, শহীদ সিরাজ লেকসহ অসংখ্য দর্শনীয় স্থানকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠতে পারে একটি পর্যটনকেন্দ্র। দেশের অন্যতম জীববৈচিত্র্যে সমৃদ্ব সম্ভাবনাময় জলাভূমি রক্ষায় দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানিয়েছেন দর্শনার্থীরা।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

মাংস বেশি খাওয়ার জেরে তালাক, সেই বর-কনের আবার পালিয়ে বিয়ে!

অনলাইন ডেস্ক

মাংস বেশি খাওয়ার জেরে তালাক, সেই বর-কনের আবার পালিয়ে বিয়ে!

২৪ অক্টোবর, রবিবার চুয়াডাঙ্গায় বিয়ের আসরে বর পক্ষের মাংস বেশি খাওয়া নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় নববধূকে তালাক দেওয়া হয়েছিল। তথ্যসূত্রে জানা গেছে, সেই বর-কনে ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই আবার পালিয়ে নিজেরা বিয়ে করে নিয়েছেন   

বিষয়টি নিশ্চিত করে বর সবুজ আলী বলেন, 'বিয়ের দিন যা ঘটেছে, তাতে আমাদের দু’জনের তো কোন দোষ নেই। বিয়ে বাড়িতে একদুই কথা হয়। কিন্তু সেটা যে এতদূর চলে যাবে, তা ভাবি নাই। আমরা নিজেরাই বিয়ে করেছি। এখন ভালো আছি।' 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার দিন বিকালে বরপক্ষের তিনজনকে পিটিয়ে আহত করেছে কনেপক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় বরের স্বজনরা জানান, বদরগঞ্জ দশমিপাড়ার রহিম আলীর ছেলে সবুজের সঙ্গে রবিবার একই এলাকার নজরুল ইসলামের মেয়ে সুমি খাতুনের বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বরপক্ষের লোকজনকে খেতে দেওয়া হয়। বর সবুজের সঙ্গে খেতে বসেন তার বন্ধুসহ আত্মীয়-স্বজনরা। খাওয়া শেষ হওয়ার মুহূর্তে বরপক্ষের লোকজন আরও মাংস চান। কনেপক্ষের লোকজন দিতে না চাইলে উভয়পক্ষের বাগবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে উভয়ের মধ্যে উত্তেজনা শুরু হলে কনেপক্ষের লোকজন বরপক্ষের তিনজনকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন।

আরও পড়ুন:


বিয়েতে মাংস বেশি খেয়েছে, নববধূকে তালাক!

আসছে ইউনিসেক্স কনডম, ব্যবহার করতে পারবে নারী-পুরুষ উভয়ই


তবে বর সবুজ আলীর দাবি, মাংস নিয়ে না, হাত ধোয়া নিয়ে কথাবার্তার জের ধরে ঘটনাটা ঘটেছে। তারপর কী থেকে কী হয়ে গেল, বুঝলাম না। যাদের কারণে ঝামেলা হয়েছে, তারা ঘনিষ্ঠ কোন স্বজন নন।

news24bd.tv রিমু    

 

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

নোয়াখালীতে আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতা ও ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় সাথে থাকা নগদ টাকা ও মোবাইল ফোনও নিয়ে গেছে। এছাড়া এছাড়াও নিহতের মাথায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে বলে জানা গেছে।  

আজ বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের তুলুয়া চাঁদপুর গ্রামের বারিরহাট বাজার থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নিহত ব্যক্তি আবু সায়েদ রিপন (৫০) ওই এলাকার ভূঁইয়া বাড়ির রফিক উল্যার ছেলে। তিনি মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি বেগমগঞ্জের চৌমুহনী চৌরাস্তায় ‘লাল-সুবজ’ বাস কাউন্টারের মালিক। প্রতিদিন কাজ শেষে গভীর রাতে কাউন্টার থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফিরতেন তিনি। ধারণা কারা হচ্ছে, বুধবার দিবাগত গভীর রাতে বাড়ি ফেরার পথে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন তিনি। 

এ বিষয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, আজ বৃহস্পতিবার ভোরে বারিরহাট বাজার মসজিদের ইমাম ও মুসল্লিরা সড়কের ওপর রিপনের লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে বিষয়টি তারা মাইকে ঘোষণা করলে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসেন। নিহতের পায়ের ওপর মোটরসাইকেলটি পড়েছিল। এছাড়াও তার মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।   

তিনি আরও জানান, রিপনের সঙ্গে সবসময় ৩টি মোবাইল ফোন থাকলেও মরদেহের আশপাশে কোনো মোবাইল ফোন পাওয়া যায়নি, পকেটে কোনো টাকাও ছিল না।

আরও পড়ুন:


আবাসিক হোটেল থেকে ঢাবি ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, চিঠিতে যা লেখা ছিল

স্ত্রীর ইচ্ছা পূরণে মন্দিরে ১৭ লাখ রুপির স্বর্ণ দান

নির্বাচনে এক সতীনকে জেতাতে দুই সতীনের প্রচারণা!

চুল কিভাবে কাটতে হবে নিয়ম জারি ইউপি চেয়ারম্যানের!


এ ব্যাপারে বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv রিমু  

 

পরবর্তী খবর

প্রেম করে বিয়ে অতঃপর স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা!

অনলাইন ডেস্ক

প্রেম করে বিয়ে অতঃপর স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা!

পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন স্বামীও। গতকাল বুধবার রাতে এ ঘটনায় আশংকাজনক অবস্থায় স্বামীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে পৌর সদরের প্রেমতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,  সীতাকুণ্ড পৌর সদরের প্রেমতলা গ্রামের রামচন্দ্র সূত্রধরের মেয়ে উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্রী জ্যোতিকা সূত্রধরের (২৩) সঙ্গে আনুমানিক দুই বছর আগে প্রেম করে বিয়ে হয় চট্টগ্রামের বাঁশখালীর যুবক অভি ধরের (২৭)। জ্যোতি ও অভি প্রেম করে পরিবারের অমতে বিয়ে করে ভাড়া বাসায় বসবাস করছিলেন। কিন্তু অভি তাকে নিজ বাড়িতে তুলে না নেওয়ায় জ্যোতি তাকে ছেড়ে বাবার বাড়িতে চলে আসেন। বুধবার সন্ধ্যার পর অভি এখানে এসে জ্যোতিকে নিয়ে যেতে চেষ্টা করলে বাকবিতন্ডা হয়। এতে অভি জ্যোতিকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে নিজেও আত্মঘাতী হতে নিজের পেটে নিজে ছুরিকাঘাত করে। 

ঘটনার পর জ্যোতির পরিবার ও এলাকাবাসী দু’জনকেই উদ্ধার করে সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক জ্যোতিকে মৃত ঘোষণা করেন এবং অভির অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে চমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

আরও পড়ুন:


যুক্তরাজ্যে ঢুকতে দেওয়া হয়নি মিজানুর রহমান আজহারীকে

চুল কিভাবে কাটতে হবে নিয়ম জারি ইউপি চেয়ারম্যানের!

যশোরে ৫ শিশুকে বলাৎকার! যুবক গ্রেফতার


সীতাকুণ্ড থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বণিক জানান, নিহত জ্যোতির লাশের সুরতহাল তৈরি করা শেষে ময়নাতদন্তের জন্য চমেকের মর্গে পাঠানো হবে। অভির অবস্থাও সংকটজনক। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

news24bd.tv রিমু  

 

পরবর্তী খবর

নির্বাচনে এক সতীনকে জেতাতে দুই সতীনের প্রচারণা!

অনলাইন ডেস্ক

নির্বাচনে এক সতীনকে জেতাতে দুই সতীনের প্রচারণা!

বাঙালি সংস্কৃতিতে সতীনকে শত্রু হিসেবেই চিহ্নিত করা হয়। সবাই মনে করে সতীনের সংসার মানেই ঝগড়া বিবাদের পরিবার। কিন্তু আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এক ভিন্ন রকম দৃষ্টান্ত দেখা গেছে পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলায়।

নির্বাচনে একটি ইউনিয়নে একজন মহিলা সদস্য প্রার্থীর প্রচারণায় নেমেছে অপর দুই সতীন।

আরও পড়ুন:


চুল কিভাবে কাটতে হবে নিয়ম জারি ইউপি চেয়ারম্যানের!

যশোরে ৫ শিশুকে বলাৎকার! যুবক গ্রেফতার

বাড়িতে ঢুকে যুবলীগকর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

আগামী ২৮ নভেম্বর আটোয়ারী উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের ৪, ৫ এবং ৬ নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে নির্বাচন করবেন ওই এলাকার মৎস্য চাষি দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রী শাহিনা বেগম।

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

চুল কিভাবে কাটতে হবে নিয়ম জারি ইউপি চেয়ারম্যানের!

অনলাইন ডেস্ক

চুল কিভাবে কাটতে হবে নিয়ম জারি ইউপি চেয়ারম্যানের!

চুল কাটতে দুই নিয়ম জারি করে নোটিশ দিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন হাওলাদার। ঘটনাটি ঘটে ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার জাহানপুর ইউনিয়নে। জানা গেছে,  গত মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) তাঁর স্বাক্ষর করা নোটিশটি ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় লাগিয়ে দেওয়া হয়। নোটিশে ইউনিয়নের সেলুন মালিক ও কারিগরদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে লেখা হয়, ‘সুন্নতি কাটিং ও ডিফেন্স-আর্মি কাটিং ব্যতীত অন্য কোনোভাবে চুল কাটলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’  

এদিকে গতকাল বুধবার চেয়ারম্যান স্বাক্ষরিত নোটিশটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলতে থাকে। এ বিষয়ে এক কিশোর প্রতিবাদ করায় তাকে মারধরের অভিযোগও উঠেছে চেয়ারম্যানের ছেলে তুষারের বিরুদ্ধে। 

আরও পড়ুন:


পাকিস্তানের জয় উদযাপন করে চাকরি হারালেন ভারতীয় শিক্ষিকা

যশোরে ৫ শিশুকে বলাৎকার! যুবক গ্রেফতার

বাড়িতে ঢুকে যুবলীগকর্মীকে কুপিয়ে হত্যা


জাহানপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন হাওলাদার গত মঙ্গলবার তাঁর ইউনিয়নের স্থানীয় মুরব্বিদের সঙ্গে কথা বলে চুল কাটার বিষয়ে একটি নির্দেশনা জারি করেন। নির্দেশনাটি কাগজে প্রিন্ট করে ইউনিয়নের জলিল বেপারীর হাট, বাসিরদোন বাজারসহ ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে লাগিয়ে দেওয়া হয়। স্থানীয় সেলুনগুলোতে গিয়ে নির্দেশনা পালনের কথাও বলা হয়। বিষয়টি নিয়ে পরে এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

পরে এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান গতকাল তাঁর নিজের ফেসবুক আইডি থেকে ক্ষমা চেয়ে একটি স্ট্যাটাস প্রত্যাহার করে নেন। 

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর