এতো বিশাল পরিমাণ অর্থ সিঙ্গাপুরের একাউন্টে কিভাবে গেলো?

শওগাত আলী সাগর

প্রিন্ট করুন printer
এতো বিশাল পরিমাণ অর্থ সিঙ্গাপুরের একাউন্টে কিভাবে গেলো?

বাংলাদেশি এক ব্যক্তির বিলিয়ন মার্কিন ডলারের উপরে পরে আছে সিঙ্গাপুরের একটি ব্যাংকে । হ্যাঁ, ’বিলিয়ন’ শব্দটিই বলেছেন দুদকের আইনজীবী এডভোকেট খুরশিদ আলম। বিশাল অংকের এই টাকার কোনো দাবিদার নাই। বাংলাদেশ টাকাটর মালিকানা দাবি করেছে। চেষ্টা করছে টাকাগুলো দেশে ফিরিয়ে আনতে।

বাংলাদেশি একজন নাগরিকের এতো বিশাল পরিমাণ অর্থ সিঙ্গাপুরের একাউন্টে কিভাবে গেলো? সাংবাদিক জ ই মামুনের সঞ্চালনায় ইংরেজী দৈনিক দ্যা বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড এর লাইভ আলোচনার বিষয়বস্তু ছিলো দুর্নীতি ও অর্থ পাচার। এডভোকেট খুরশিদ আলম।সেখানে আলোচক ছিলেন। একাউন্টটি কার সে সম্পর্কে তিনি কোনো তথ্য দেন নি। 


আরও পড়ুন: ‘ভ্যাকসিন এলো বলে’ ভাবনটাটা আমাদের যেনো দু:সাহসী করে না ফেলে


তবে বলেছেন, এই একাউন্টের যিনি মালিক বাংলাদেশের ‘কোনো একটি মামলায়’  তার মৃত্যুদন্ড হয়েছে। তার স্ত্রী সন্তানেরা আছেন, কিন্তু তারাও এই টাকাটার মালিকানা দাবি করতে যাচ্ছে না।

আলোচনায় ‘বিলিয়ন মার্কিন ডলার’ শব্দটা শুনে আমিও চমকে উঠেছিলাম। জ ই মামুন নিশ্চিত হতে প্রশ্ন করেছিলেন- একজনের? তিনি নিশ্চিত করেছেন- টাকাটা একজনেরই। হায় বাংলাদেশ, যে যেভাবে পেরেছে, যে যখন পেরেছে – এই দেশের টাকা বাইরে পাচার করে দিয়েছে। শওগাত আলী সাগর, প্রধান সম্পাদক , নতুন দেশ , কানাডা।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য