বাবরের রেকর্ড গড়া সেঞ্চুরির পরও হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় পাকিস্তান
বাবরের রেকর্ড গড়া সেঞ্চুরির পরও হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় পাকিস্তান

বাবরের রেকর্ড গড়া সেঞ্চুরির পরও হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় পাকিস্তান

অনলাইন ডেস্ক

ইংলিশ বোলারদের তুলোধুনো করে ক্যারিয়ার সেরা ১৫৮ রানের ইনিংস খেলেছিলেন বাবার আজম। এজবাস্টনে তার ব্যাটে চড়ে ইংল্যান্ডকে ৩৩২ রানের বিশাল লক্ষ্য দেয় পাকিস্তান।

কিন্তু লাভ হয়নি। শেষ পর্যন্ত হোয়াইটওয়াশের লজ্জা নিয়েই মাঠ ছাড়ে সফরকারীরা।

   স্বাগতিকদের বিপক্ষে চলমান সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে ৩ উইকেটের ব্যবধানে হেরেছে তারা।  

বার্মিংহামের এজবাস্টনে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন স্বাগতিক দলের অধিনায়ক বেন স্টোকস। প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে অধিনায়ক বাবর আজমের দুর্দান্ত সেঞ্চুরির (১৫৮ রান) ওপর ভর করে ৩৩১ রানের বিশাল স্কোর দাঁড় করায় পাকিস্তান।

ওপেনিংয়ে নামেন ইমাম উল হক ও ফখর জামান। দলীয় ২১ রানের মাথায় মাত্র ৬ রান করে বিদায় নেন ফখর জামান। এরপর অধিনায়ক বাবার আজমের সঙ্গে জুটি ধরেন ইমাম উল হক। দলীয় ১১৩ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৫৬ রান করে তার বিদায়ের পর মোহাম্মদ রিজওয়ানের সঙ্গে জুটি ধরেন সফরকারী দলের অধিনায়ক। তাদের দুজনের জুটি থেকে আসে ১৭৯ রান। যা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডেতে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ জুটি (৩য় উইকেটে)।

শেষ পর্যন্ত ১৩৯ বলের বিনিময়ে ১৫৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে বিদায় নেন বাবর আজম। যা তার ক্যারিয়ারের ১৪তম সেঞ্চুরি এবং এটা তুলে নিয়েছেন মাত্র ৮১তম ম্যাচে। অন্যদিকে, মোহাম্মদ রিজওয়ান করেছেন ৭৪ রান। এর বাহিরে আর কেউ তেমন বলার মতো স্কোর করতে পারেননি।

ইংল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট শিকার করেছেন সাকিব মাহমুদ। এছাড়া লুইস গ্রেগরি, ক্রেগ ওভারটন, ব্রাইডন কার্সে, বেন স্টোকস ও ম্যাথু পার্কিনসন নিয়েছেন একটি করে উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে দুই ওভার বাকি থাকতে ৭ উইকেটের বিনিময়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় স্বাগতিকরা। ১০২ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে দলের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন জেমস ভিনস।

এছাড়া ফিলিপ সল্ট ৩৭, জাক ক্রোলি ৩৯, বেন স্টোকস ৩২, লুইস গ্রেগরি ৭৭, ক্রেগ ওভারটন ১৮ ও ব্রাইডন কার্সে করেন ১২ রান।

আরও পড়ুন:


ইসরাইলের নয়া প্রেসিডেন্টের সঙ্গে এরদোগানের ফোনালাপ

ঈদযাত্রা: আজ পাওয়া যাবে যে তারিখের টিকিট

সকাল ৮টা থেকে মিলবে ট্রেনের টিকিট


পাকিস্তানের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট শিকার করেছেন হারিস রউফ। এছাড়া শাদাব খান ২টি ও হাসান আলি ১টি উইকেট নেন।

এর আগে প্রথম দুটি ম্যাচেও পরাজয়বরণ করে পাকিস্তান। আগামী ১৬ জুলাই থেকে দু্ই দলের মধ্যে টি-টিয়েন্টি সিরিজ শুরু হবে। প্রথমটি অনুষ্ঠিত হবে নটিংহামের ট্রেন্ট ব্রিজে। পরের ম্যাচ দুটি যথাক্রমে ১৮ ও ২০ জুলাই।

news24bd.tv নাজিম

;