ফেসবুক ইউটিউব কর্তৃপক্ষের জবাবদিহি চান এসপিরা

অনলাইন ডেস্ক

ফেসবুক ইউটিউব কর্তৃপক্ষের জবাবদিহি চান এসপিরা

পুলিশের সব রেঞ্জ ডিআইজি, এসপি, কমিশনার ও উপ-কমিশনারদের উপস্থিতিতে দুই দিনব্যাপী ক্রাইম কনফারেন্স গতকাল পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে শুরু হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ। 

সভায় দেশব্যাপী কিশোর অপরাধ বৃদ্ধি পাওয়া, প্রযুক্তির অপব্যবহার করে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি, সরকার ও দেশের বিরুদ্ধে নানামুখী অপতৎপরতাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। পুলিশ সুপাররা তাদের বক্তব্যে ফেসবুক ও ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর কর্তৃপক্ষকে জবাবদিহির আওতায় আনার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার কথাও বলেন। 

পুলিশ সদর দফতর জানিয়েছে, সভায় সব অতিরিক্ত আইজিপি, ঢাকাস্থ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের প্রধান এবং পুলিশ সদর দফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত আইজিপি (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশন্স) এম খুরশীদ হোসেন। 

কনফারেন্সের শুরুর দিন জানুয়ারি-মার্চ ও এপ্রিল-জুন দুই কোয়ার্টারের সার্বিক অপরাধ পরিস্থিতি, যেমন ডাকাতি, দস্যুতা, খুন, দ্রুত বিচার আইনে মামলা, নারী ও শিশু নির্যাতন মামলা, অপহরণ, সিঁধেল চুরি, দাঙ্গা, মাদক, অস্ত্র ও গাড়ি উদ্ধার ইত্যাদির তথ্য তুলে ধরা হয়। এসব তথ্য তুলে ধরেন ডিআইজি (ক্রাইম ম্যানেজমেন্ট) এ ওয়াই এম বেলালুর রহমান। 

ক্রাইম কনফারেন্সে উন্মুক্ত আলোচনায় মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তারা কিশোর অপরাধ, মুলতবি মামলা, জনকল্যাণমূলক বেস্ট প্র্যাকটিসসহ আইনশৃঙ্খলা-সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন। 

সভায় উপস্থিত থাকা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন পুলিশ সুপার জানান, সম্প্রতি দেশে ও দেশের বাইরে থেকে একটি মহল বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে টার্গেট করে নানামুখী অপতৎপরতা শুরু করেছে। এ বিষয়ে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা করলেও এসব অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করা যায় না। কারণ এই দুর্বৃত্তরা দেশের বাইরে অবস্থান করে দেশ ও সরকার, বিচার বিভাগ, রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন বাহিনী ও গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বিষোদগার করছে। তাদের এসব অপতৎপরতা রোধে ফেসবুক, টুইটার ও ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোকে জবাবদিহির আওতায় আনার পরামর্শ দেন তারা। 

আরও পড়ুন:

ডায়োজিনিস দ্য সিনিক হতে পারেন আমাদের এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত!

রক্ত দিয়ে এরশাদকে লেখা প্রেমিকার চিঠি

যে কারণে স্ট্যাপলার পিন মুক্ত হচ্ছে না টাকার বান্ডিল

'ছেলেদের সাথে বসা যাবে না, মানতে হবে ড্রেসকোড'


অপর একজন এসপি জানান, প্রযুক্তির অপব্যবহারের কারণে দেশে কিশোর অপরাধ মারাত্মকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। অনেক ক্ষেত্রে পূর্বে ধারণা না থাকায় এসব কিশোর অপরাধীদের নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয় না। 

এ বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে নির্দেশনা চান পুলিশ সুপাররা। পুলিশ সদর দফতর থেকে এ বিষয়ে পুলিশের সব ক্রাইম ইউনিটে একটি নির্দেশনা দেওয়া হয়।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

ঝিনাইদহে ১১টি ইজিবাইকসহ ছিনতাই চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ :

ঝিনাইদহে ১১টি ইজিবাইকসহ ছিনতাই চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার

ঝিনাইদহে ১১টি ইজিবাইকসহ ছিনতাই চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৬। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো শাহিনুর সরদার (৩২) মোছা. তিন্নী ওরফে টুনি (২৭) ও ইমরান হোসেন (৩০)। বুধবার রাতে মাগুরা ভায়না মোড়ের টিবি ক্লিনিক পাড়া থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে। বৃহস্পতিবার বিকেলে ঝিনাইদহ র‌্যাব কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব কমাণ্ডার এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে ঝিনাইদহ র‌্যাবের কোম্পানি কমাণ্ডার মেজর মোহাম্মদ শরীফুল আহসান জানান, ঝিনাইদহসহ এ অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা থেকে ইজিবাইক ছিনতাই করে একটি চক্র ভাড়া দেয় এবং বিক্রি করে থাকে। তারা নিজস্ব গোয়েন্দা তথ্যে ভিত্তিতে জানতে পারেন ওই চক্রটি মাগুরার ভায়নার মোড় এলাকায় অবস্থান করছে।

খবর পেয়ে র‌্যাবের একটি বিশিষ টিম মাগুরা ভায়না মোড়ের টিবি ক্লিনিকের পাশে বিসমিল্লাহ হোটেলের পিছনে ভাড়াকৃত গ্যারেজে অভিযান চালান। 

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


র‌্যাবের অভিযান টের পেয়ে পালানোর সময় মাগুরা শালিখার সরসোনার গফুর সরদারের ছেলে শাহিনুর সরদার, তার স্ত্রী মোছা. তিন্নী ওরফে টুনি ও ঝিনাইদহের পাইকপাড়ার আব্দুল হান্নানের ছেলে শরিফুল ইসলামে গ্রেপ্তার করে। 

সে সময় তাদের কাছ থেকে ১১টি ইজিবাইক, ৫৫ টি ইজিবাইকের ব্যাটারি ও ১১টি ইজিবাইকের চাবি উদ্ধার করে। গ্রেপ্তারকৃতরা এসব ইজিবাইক ছিনতাই করে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে থাকে বলে র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে তাদের থানায় সোপদ্দ করা হয়েছে। 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

নাটোরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত

নাটোর প্রতিনিধি:

নাটোরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত

দেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর সন্ত্রাসী হামলা, প্রতিমা ভাংচুর, অগ্নি সংযোগ ও বসতবাড়িতে লুটপাটের প্রতিবাদে নাটোরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে শহরের স্বাধীনতা চত্বর থেকে একটি র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি আলাইপুর এলাকায় অনিমা চৌধুরী অডেটোরিয়ামে গিয়ে শেষ হয়। 

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


পরে সেখানে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ, পুলিম সুপার লিটন কুমার সাহাসহ অন্যান্যরা। 

এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি, সকল ধর্মের প্রতিনিধি, ছাত্র শিক্ষকসহ সামাজিক ও রাজনৈতিক নের্তৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

মন্দিরে হামলার ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে র‌্যাবের অভিযানে আরও তিনজন গ্রেপ্তার

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

মন্দিরে হামলার ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে র‌্যাবের অভিযানে আরও তিনজন গ্রেপ্তার

নোয়াখালীর চৌমুহনীতে মন্দিরে হামলা-ভাংচুরের ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-১১। 

আজ বহস্পতিবার ভোর থেকে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- সোহরাব হোসাইন (৩২), মো. মানু (৩২) ও মো. হরুন অর রশিদ(৪৫)। 

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


আজ সকালে চৌমুহনীতে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার মো. শামীম হোসেন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতরা প্রত্যেকে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।

এছাড়া গতরাতে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ভিডিও ফুটেজ দেখে আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ নিয়ে এসব ঘটনায় মোট ১০৭ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। এর মধ্যে এজাহারভুক্ত ৬৮ জন, সন্দেহভাজন ৩৯ জন।

এসব ঘটনায় বেগমগঞ্জ মডেল থানায় ৮টি মামলা হয়েছে। এসব মামলার এজাহারে ২১৯ জনের নাম উলে­খ সহ অজ্ঞাত আরও পাঁচ হাজার লোককে আসামি করা হয়েছে।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে হামলায় নিহতদের পরিবারের পাশে সাংসদ একরাম

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীতে হামলায় নিহতদের পরিবারের পাশে সাংসদ একরাম

নোয়াখালীর চৌমুহনীতে গত শুক্রবারের হামলায় নিহত যতন সাহা ও প্রান্ত দাসের পরিবার এবং ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির সংস্কারের জন্য আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন সদর-সুবর্নচর আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী।

আজ  বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহত দুই পরিবারের স্বজনদের খোঁজ খবর নেন। তাদের সঙ্গে কিছু সময় কাটান। পরে দুই পরিবারকে দুই লাখ টাকা করে মোট চার লাখ টাকা অনুদান দেন। এরপর হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত কয়েকটি মন্দির পরিদর্শন করে সেগুলো সংস্কারের জন্য চার লাখ টাকা অনুদান দেন। 

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


এ সময় তিনি হামলার ভিডিও ফুটেজ দেখে ঘটনার সাথে জড়িতদের প্রত্যেককে দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানান। হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু সম্প্রদায়ের পাশে দাঁড়ানোর জন্য দলীয় নেতাকর্মীদেরকে নির্দেশ দেন।

এ সময় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবিএম জাফর উল্যা, নোয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সামছুদ্দিন জেহান, জেলা যুবলীগের আহবায়ক ইমন ভট্ট, একরামুল হক বিপ্লব সহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

ঠাকুরগাঁওয়ে দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:

ঠাকুরগাঁওয়ে দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ঠাকুরগাঁও শহরের গোয়ালপাড়া হেডস এর মোড়ে গত শনিবার (১৬ই অক্টোবর) আনুমানিক রাত ৮টায় পরিবারের লোকজনের সামনে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে দুই সন্তানের "মা" মুসলেমিনা আক্তার লিজা (৩০)।

পরে প্রতিবেশীরা লাশ উদ্ধার করে আধুনীক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। কিন্তু তার পরের দিন রোববার এ ঘটনায় লিজার পিতা এসএম মুরশিদ বাদী হয়ে সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও চৌরাস্থায় লিজা’র প্রতিবেশি ও পরিবারের লোকজন লিজাকে হত্যাকারী স্বামী অন্য আসামিদের দ্রুত বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করে।

লিজাকে হত্যা করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার নাটক করা হচ্ছে এমন অভিযোগ তুলেন লিজা’র বাবা। মেয়েকে হত্যাকারিদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন বাবা।

মানববন্ধনে লিজা’র বাবা বলেন আমার মেয়েকে নির্মমভাবে হত্যা করেছেন তার পাষণ্ড স্বামী জবাইদুল রহমান জুয়েল (৩৮) ও তার পরিবারের লোকজনেরা। পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে আমার মেয়েকে বলে জানান তিনি।

অভিযোগে বলা হয়, দীর্ঘ দিন ধরে আসামি জুয়েল পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। সে কারণে জুয়েল আমার মেয়ের সংসারে কোন প্রকার খরচ দিত না ও বাসায় যেত না। কিছু বললেই আমার মেয়েকে নির্মম অত্যাচার করত। এ জন্য কয়েকবার পারিবারিক ভাবেও আলোচনা করা হয় ও জুয়েলকে সাবধান করা হয়। পরে জুয়েল আমার কাছে ১ লাখ টাকা দাবি করে আমি সেটা দিতে না পারায় সে আমার মেয়েকে হত্যা করে।

লিজা’র প্রতিবেশি ও পরিবারের লোকজন বলেন, থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে এখন দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তারের ও দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর