মদ খাইয়ে অজ্ঞান করে পরীর পর্নো ভিডিও বানানো হয়
মদ খাইয়ে অজ্ঞান করে পরীর পর্নো ভিডিও বানানো হয়

মদ খাইয়ে অজ্ঞান করে পরীর পর্নো ভিডিও বানানো হয়

অনলাইন ডেস্ক

এবার পর্নোকাণ্ডে নিয়ে অদ্ভুত এক তথ্য সামনে এসেছে। ড্রিংকসের সঙ্গে মাদক মিশিয়ে অজ্ঞান করে পর্নো ভিডিও শ্যুট করা হয়েছিল বলে বিস্ফোরক অভিযোগ এনেছেন প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্স পরী পাসওয়ান।  

অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকেই বেরিয়ে আসছে পর্নো সংশ্লিষ্ট অভিযুক্ত ও ভুক্তভোগীদের নাম। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হলেন পরী পাসওয়ান।

পরী অভিযোগ করেছেন, বলিউডে কাজ করতে গিয়ে প্রতারিত হয়েছেন তিনি। ‘এক প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের অফিসে ডাকা হয়েছিল আমাকে। সেখানে কোমল পানীয়র সঙ্গে মাদক মিশিয়ে খাওয়ানো হয়। এরপর আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি। সেই অজ্ঞান অবস্থাতেই আমার পর্নো ভিডিও ধারণ করা হয়। এবং সেটা ছড়িয়ে দেওয়া হয় অন্তর্জালে। ’

তিনি আরও জানান, এ ঘটনার পর মুম্বাইয়ের একটি থানায় অভিযোগও দায়ের করেছিলেন। কিন্তু তাতে কোনও ফল হয়নি।

আরও পড়ুন


চুরি করতে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়ল চোর, অতঃপর...

পরীমণির সঙ্গে নিজেকে মিলিয়ে যা বললেন তসলিমা নাসরিন

ভেনেজুয়েলাকে উড়িয়ে দারুণ সূচনা মেসির আর্জেন্টিনার

ঘূর্ণিঝড়, অতিবৃষ্টি ও বন্যায় যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু বেড়ে ৪৬


ভারতের ধনবাদের বাসিন্দা পরী পাসওয়ান। ২০১৯ সালে তিনি মিস ইউনিভার্স ইন্ডিয়া খেতাব পান। এরপর নীরাজ পাসওয়ানের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন পরী। কিন্তু কিছু দিন যেতে না যেতেই শুরু হয় দাম্পত্য কলহ। শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ দায়ের করেন পরী। তার অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামী নীরাজকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ ঘটনার পর নীরাজের পরিবার আসল সত্য প্রকাশ্যে আনেন। তারা জানান, পরী আগেও দুটি বিয়ে করেছিল। তার ১২ বছর বয়সী একটি সন্তানও রয়েছে। এমনকি পর্নো ভিডিওতে কাজ করে আয় করেন বলেও জানায় নীরাজের পরিবার। এসব অভিযোগের পর পরী মুখ খোলেন এবং পর্নো ভিডিও প্রসঙ্গে তার অভিজ্ঞতার কথা জানান। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস।

news24bd.tv এসএম