ধর্মঘটের তৃতীয় দিনে প্রথম কর্মদিবসে আরও ভোগান্তিতে মানুষ
ধর্মঘটের তৃতীয় দিনে প্রথম কর্মদিবসে আরও ভোগান্তিতে মানুষ

ধর্মঘটের তৃতীয় দিনে প্রথম কর্মদিবসে আরও ভোগান্তিতে মানুষ

অনলাইন ডেস্ক

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে টানা তৃতীয় দিনের মতো রাজধানীসহ সারাদেশে চলছে পরিবহন ধর্মঘট। শুক্রবার থেকেই বন্ধ গণপরিবহন। এদিকে শুক্র ও শনিবার সরকারি বন্ধ ছিল। আজ সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে ভোগান্তিতে পড়েছেন অফিসগামীরা।

তবে গত দুদিন থেকেই অসহনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বেসকারকারি চাকরিজীবী ও সাধারণ মানুষদের। এদিকে রাস্তায় গণপরিবহন না থাকার সুযোগে ফায়দা লুটছে সিএনজি, রিকশা ও ভাড়ায় চলা মোটরসাইকেলে আদায় করা হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া। তাদের কাছে জিম্মি হয়ে দুই থেকে তিনগুণ টাকা ভাড়া দিয়ে গন্তব্যে যেতে হচ্ছে।

ধর্মঘটের তৃতীয় দিন আজ রোববার (৭ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা অফিসগামী ও সাধারণ মানুষের ভোগান্তির চিত্র।

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়ক এলাকার বেশ কয়েকটি বাস স্টপে দেখা যায় মানুষের অনেক ভিড়। কেউ অপেক্ষায় আছেন বিআরটিসির আবার কেউ সিএনজি বা রিকশায় বেশি ভাড়া দিয়ে ছুটছেন গন্তব্যে। আবার অনেকক্ষণ পর পর বিআরটিসি এলেই অফিসগামীরা সেখানে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন। কেউ আবার বাসের নাগাল পেতে দৌড়ুচ্ছেন।

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম ঊর্ধ্বগতির কারণে ভারতসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ডিজেল-কেরোসিনের দাম পুনর্নির্ধারণ করেছে সরকার। গত বুধবার (৩ নভেম্বর) রাতে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হয়। নতুন দাম ভোক্তা পর্যায়ে ৬৫ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮০ টাকা করা হয়েছে। যা ওইদিন রাত ১২টা থেকে কার্যকর হয়।

ডিজেল-কেরোসিনের দাম বাড়ানোর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পরদিনই পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা এ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন। এরপর শুক্রবার (৫ নভেম্বর) সকাল ছয়টা থেকে পূর্বঘোষণা ছাড়াই রাজধানীসহ সারাদেশে শুরু হয় অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট।

আরও পড়ুন


নিজের দ্বিতীয় বিয়ে মুখ খুললেন লাক্স সুন্দরী নাফিজা

news24bd.tv এসএম