চাকরির প্রলোভনে অর্ধকোটি টাকা নিয়ে উধাও ‘হায় হায় কোম্পানী’
চাকরির প্রলোভনে অর্ধকোটি টাকা নিয়ে উধাও ‘হায় হায় কোম্পানী’

ভুক্তভোগীরা

চাকরির প্রলোভনে অর্ধকোটি টাকা নিয়ে উধাও ‘হায় হায় কোম্পানী’

Other

বরিশালে চাকরি দেয়ার নামে তরুণ-তরুণীদের কাছ থেকে অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে উধাও হয়ে গেছে আরএম গ্রুপ নামে একটি হায় হায় কোম্পানী। নগরীর রূপাতলী হাউজিংয়ের হিরন পয়েন্ট-২ ভবনের ৭ম তলায় অবস্থিত ওই প্রতিষ্ঠানটির অফিসে বুধবার মঙ্গলবার নতুন চাকরিতে যোগদান করতে গিয়ে অফিস বন্ধ পায় নবনিযুক্তরা। শুধু তাই নয়, প্রতারণার ফাঁদে ফেলে বাড়িওয়ালা, পত্রিকার মালিক এবং বিভিন্ন দোকান থেকেও কয়েক লাখ টাকার নিয়ে লাপত্তা হয়েছে চক্রটি।  

ভূক্তোভোগীরা জানিয়েছেন, গত মাসে নগরীর স্থানীয় বেশ কয়েকটি আঞ্চলিক পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয় আরএম গ্রুপ নামে ওই প্রতিষ্ঠানটি।

বিজ্ঞাপনটি এখনো বিভিন্ন পত্রিকায় চলছে। তারা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখে সেখানে আবেদন করেন।

আবেদনের পরই তাদের চাকরি হয়ে যায়। তবে এজন্য তাদের কাছ থেকে জামানত হিসেবে বিভিন্ন অংকের টাকা নেয় তারা। ভূয়া রশিদের মাধ্যমে সাড়ে ৩ হাজার টাকা থেকে শুরু করে যার কাছ থেকে যা পেরেছে তা জমা নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধাররা। কিন্তু চাকরিতে যোগদান করতে গিয়ে দেখেন অফিসটিই বন্ধ। এ সময় আরএম গ্রুপের জিএম আমজাদ হোসেন কিরণের মুঠোফোনও বন্ধ পায় তারা।  

স্থানীয়রা জানায়, কয়েকদিন আগে থেকেই অফিসের যাবতীয় মালামাল তা কুরিয়ার সার্ভিসে টাঙ্গাইলে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।  

ভবনের ম্যানেজার আবু তালেব জানান, ভবনটিতে ভাড়া উঠেছিল প্রতিষ্ঠানটি। কিন্তু তাদেরও টাকা না দিয়েই পালিয়েছে তারা। এছাড়া ওয়ালটন, শাওমিসহ বিভিন্ন শোরুম থেকেও ২০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল বাকীতে নিয়ে আত্মসাৎ করেছে তারা। এর বিপরীতে চেক প্রদান করলেও ব্যাংকে পর্যাপ্ত অর্থ না থাকায় ওই চেক প্রত্যাখ্যান হয়। ওই একাউন্টে রয়েছে মাত্র ৩ শ’ টাকা।  

এ বিষয়ে জানতে আর এম গ্রুপের জিএম পরিচায়ধারী আমজাদ হোসেন কিরনের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।  

এ ঘটনায় যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আজিমুল করিম।

আরও পড়ুন


বিয়েতে মত ছিল না তরুণীর, গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা

news24bd.tv এসএম