নির্জনতা কখনো আমাদের শূন্য হাতে ফেরায় না
নির্জনতা কখনো আমাদের শূন্য হাতে ফেরায় না

নির্জনতা কখনো আমাদের শূন্য হাতে ফেরায় না

Other

মৌন থাকা সকলের জন্যই ভাল। আত্মা তাতে শান্ত হয়। আমি বেশিরভাগ সময় মৌন থাকি। গৃহে যতটা সম্ভব মৌনব্রত থাকা আমার জন্য নিরাপদ।

মৌন থাকলে চিন্তার ক্ষমতা বাড়ে।

সমুদ্রে দিশেহারা নাবিকের মতন যখন অবস্থা হয় তখন আমার মতো গৃহীর, সঠিক দিক নির্ণয়ের জন্যে মৌনতা অবশ্যই ভাল কাজ দেয়। এখন এই অব্যাহত করোনাকালে আরো বেশি মৌনতায় পেয়েছে আমাকে।

গৃহে মাত্র দু’জন মানুষ আমরা তাও কথা হয় অল্প স্বল্প। যেনো দুজন দুই গ্রহের বাসীন্দা। শুধু গ্রোসারি লাগবে কি না, ফেসবুকে কে কি ট্রল করল, কে অসুস্থ্য হলো, কে মারা গেলো, ইফতারিতে কি খাব এই রকম খাপছাড়া কথা হয়।

আরও পড়ুন


কৃষকদের সহায়তা করতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীর প্রতি আহ্বান মাউশির

ঈদের আগে সব কিছু খুলে দেয়া হলে আমাদেরও মাশুল গুনতে হবে

ভারতে হাসপাতালে আগুন, ১২ করোনা রোগীর মৃত্যু

স্ত্রীকে দিনভর খোঁজাখুঁজির নাটক, তবুও শেষরক্ষা হলো না


ঠিক করেছি এই মহামারি কাটিয়ে যদি কোনোভাবে বেঁচে যাই তাহলে নির্জনতার সন্ধান করব। নির্জনতা কখনো আমাদের শূন্য হাতে ফেরায় না। লেখাও নির্জনতার অবদান। কোলাহলে নিজেকে খুঁজে পাওয়া যায় না।

নিরবচ্ছিন্ন নির্জনতার সন্ধান করব। ঘোর লাগানো নির্জনতা। নির্জনতার মধ্যে না গেলে, নিজের মন নির্জন না হলে কোনো কিছু ভাবা সম্ভব না। আমাদের মতো সাধারণ মানুষ মেন্টাল-ওয়াল্ড-এর গন্ডির বাইরে যেতে পারে না প্রায়ই।

news24bd.tv আহমেদ